এখন পড়ছেন
হোম > অন্যান্য > এরিয়া ৫১ থেকে হোয়াইট হাউস, বিশ্বের সবচেয়ে সুরক্ষিত প্রথম দশটি জায়গা কোথায়?

এরিয়া ৫১ থেকে হোয়াইট হাউস, বিশ্বের সবচেয়ে সুরক্ষিত প্রথম দশটি জায়গা কোথায়?



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – বর্তমান যুগে নিরাপদ বা সুরক্ষিত জায়গা খুঁজে পাওয়া কঠিন কাজ। তবে এর মধ্যেও পৃথিবীর কয়েকটি জায়গা সবচেয়ে সুরক্ষিত হওয়ায় তকমা পেয়েছে। সেখানে পৃথিবীর সবচেয়ে সুরক্ষিত জায়গা গুলির মধ্যে স্থান পেয়েছে পৃথিবীর সবচেয়ে রহস্যময় কিছু জায়গাও। আসুন দেখিনি একনজরে, পৃথিবীর সবচেয়ে কঠোর সুরক্ষা বিধি রয়েছে যে জায়গাগুলিতে, তার প্রথম দশটি জায়গা।

দশম স্থান:-
এই তালিকার ১০ নম্বরে স্থান পেয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের কলোরাডোর, চেয়েন্নে পর্বতের কমপ্লেক্স। এই হাউসিং কম্প্লেক্স টি তৈরি করা হয়েছে পর্বতের গভীরে ২০০০ ফুটগ্রানাইট পাথরের নিচে। এই কমপ্লেক্সটি যুক্তরাষ্ট্রের বহু সরকারি সংস্থার কাজের জন্য ব্যবহার করা হয়ে আসছে বহু বছর ধরে।

নবম স্থান:-
তালিকার নবম স্থানে রয়েছে, যুক্তরাজ্যের, ডার্বির বোল্ড লেন কার পার্ক। সত্তরের দশকে তৈরি এই কার পার্কে, নানান সমাজবিরোধী, অপরাধমূলক কর্যাকলাপের আখড়ায় পরিণত হয়। এরপরই নব্বইয়ের দশকে এই কার পার্কের সুরক্ষা বহুগুণ বাড়িয়ে দেওয়া হয়।

অষ্টম স্থান:-
তালিকার অষ্টম স্থানে রয়েছে গ্রানাইট মাউন্টেন রেকর্ড ভোল্ট। এই ভোল্ট নির্মিত হয়েছে যু্তরাষ্ট্রের ইউটাহের গ্রানাইট মাউন্টেন এর গভীরে কয়েকশো ফুট নিচে। এই ভোল্ট একটি বিশাল সংরক্ষণাগার, যেখানে সংরক্ষিত রয়েছে পৃথিবীর বহু রেকর্ড এবং ইতিহাস।

সপ্তম স্থান:-
পৃথিবীর সবচেয়ে কড়া সুরক্ষার জায়গা গুলির মধ্যে টুমেন নদী জায়গা করে নিয়েছে সপ্তম স্থানে। এই নদী চীন, উত্তর কোরিয়া এবং রাশিয়ার মধ্যে প্রবেশ পথ হিসেবে কাজ করে। উত্তর কোরিয়া থেকে বহু মানুষ এই নদীর অগভীর জল পেড়িয়ে চীনে প্রবেশ করার চেষ্টা করে এবং তার জন্যই নদীর সুরক্ষা বিধি এত কড়াকড়ি করা হয়েছে।

ষষ্ঠ স্থান:-
এই তালিকার ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে নরওয়ের সিড ভোল্ট। এই ভোল্ট এ সংরক্ষিত রয়েছে বহু উদ্ভিদের দানা। কখনও সারা বিশ্বে কোনো বিরাট আকারের বিপর্যয়ে নেমে এলেও ফসল ফলানোর জন্য করে প্রয়োজনীয় দানা পাওয়া থাকে, সেই উদ্দেশ্যেই তৈরি হয়েছে এই ভোল্ট।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

পঞ্চম স্থান:-
পঞ্চম স্থানে রয়েছে, নিউ ইয়র্কের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক। নিউ ইয়র্কের রিজার্ভ ব্যাংক এর ভোল্ট এর সুরক্ষার জন্য রোবট ব্যবহূত হয়।

চতুর্থ স্থান:-
চতুর্থ স্থানে রয়েছে ইতালির, ভ্যাটিকানের গোপন সংরক্ষণাগার। এই সংগ্রহশালায় রয়েছে ক্যাথলিক চার্চের অসংখ্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ নথি এবং এই সংরক্ষণাগারের মালিকানা এক পোপ থেকে পরবর্তী পোপের কাছে চলে যায়।

তৃতীয় স্থান:-
তিন নম্বরে রয়েছে আমেরিকার হোয়াইট হাউস। হোয়াইট হাউস যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের বাস গৃহের এবং এবং তার ফলেই হোয়াইট হাউজের সুরক্ষা ব্যবস্থা বিশ্বের সমস্ত জায়গার তুলনায় অত্যন্ত কড়া।

দ্বিতীয় স্থান:-
পৃথিবীর সবচেয়ে সুরক্ষিত জায়গা গুলির মধ্যে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ফর্ট নোক্স। এখানে সুরক্ষা ভীতি এতই করা এখানে প্রবেশ কার্যত অসম্ভব। ফর্ট নোক্স হলো যুক্তরাষ্ট্রের বুলিয়ান রিজার্ভ। অর্থাৎ যুক্তরাষ্ট্রের সমস্ত সোনা, রূপো এখানে সংরক্ষিত থাকে।

প্রথম স্থান:-
পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি রক্ষিত স্থানটি পৃথিবীর সবচেয়ে রহস্যময় স্থানও বটে। জায়গাটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের, নভাদার এরিয়া ৫১। এরিয়া ৫১ এর সুরক্ষা এবং নিরাপত্তা ব্যবস্থা এতই কড়া, যে সাধারণ মানুষ এখানে কি হয় সেই সম্পর্কে কিছুই জানতে পারেনা। এই রহস্যময় জায়গা বহু মানুষের কল্পনা শক্তিকে ত্বরান্বিত করেছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!