এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > শুভ্রাংশু কি বিজেপিতে? কি বলছেন মুকুল রায়?

শুভ্রাংশু কি বিজেপিতে? কি বলছেন মুকুল রায়?



ফিসফাসটা শুরু হয়েছিল বাবা মুকুল রায় ঘাস ছেড়ে পদ্ম শিবিরে যোগ দিতেই, যে এবার কি বাবার পিছুপিছু ছেলেও পদ্মশিবিরে নাম লেখাবেন। কিন্তু তখন তিনি, শুভ্রাংশু রায় দ্বর্থ্যহীন ভাষায় জানিয়েছিলেন, তিনি নিজে ও মুকুল রায় দুজন সম্পূর্ণ আলাদা রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ত্ব। বাবা বাবার জায়গায় থাকলেও, তাঁকে রাজনীতিতে পায়ের তলায় মাটি দিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, সুতরাং কোনো পরিস্থিতিতেই তিনি তৃণমূল ছেড়ে অন্য দোলে যোগ দেবেন না। এরপর উৎসাহিত তৃণমূল নেতৃত্ত্ব তাঁকে সামনে রেখেই কার্যত মুকুল রায়কে চ্যালেঞ্জ করে বসে, যে তৃণমূল দল ভাঙ্গানো তো অনেক পরের ব্যাপার আগে নিজের ছেলেকে বিজেপিতে নিয়ে দেখান।
কিন্তু এরপরই ছন্দ কাটে, যখন তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে সভায় থাকার কথা হলেও শেষমেশ আসেন না শুভ্রাংশু। যদিও তিনি নিজে জানিয়েছিলেন শারীরিক অসুস্থতার জন্যই আসা হয় নি। কিন্তু এরপরই সূত্রের খবর তাঁকে ঘিরে একটা অবিশ্বাসের বাতাবরণ তৈরি হয়ে গেছে দলে, আর সেই আগুনে আরো ঘি ঢেলেছে যখন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ জানিয়েছিলেন, শুভ্রাংশুকে বিজেপিতে স্বাগত। এরফলে তাঁর বিজেপিতে যোগদানের সম্ভাবনা অনেকগুন বেড়ে গেছে। এই পরিস্থিতিতে মুকুলবাবুকে এই নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানিয়েছেন, শুভ্রাংশু সাবালক ছেলে, ও যখন যা সিদ্ধান্ত নিয়েছে, নিজের মতো নিয়েছে, আমি কেন কথা বলব? ও সাবালক, ওর নিজের সিদ্ধান্ত নেওয়ার যথেষ্ট ক্ষমতা রয়েছে। এই প্রসঙ্গে তিনি বিজেপি নেত্রী রাজমাতা বিজয়রাজে সিন্ধিয়ার বিরুদ্ধে কংগ্রেসের হয়ে মাধবরাও সিন্ধিয়ার রাজনৈতিক লড়াইয়ের নজিরও তুলে ধরেন। অর্থাত্‍ বিজেপি নেতার ছেলে তৃণমূল বিধায়ক হতেই পারে বলতে চেয়েছেন। এখন দেখার ‘সাবালক’ শুভ্রাংশু কি সিদ্ধান্ত শেষপর্যন্ত নেন, বাবার দেখানো পথে গেরুয়াশিবিরে যোগদান করেন নাকি অবিশ্বাস দূরে ঠেলে রাজনৈতিক ‘গুরু’ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আদর্শে স্বমহিমায় ঘাসফুল শিবিরেই থাকেন।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!