এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > নীতিশ হাত ছাড়তেই হাসি চওড়া তৃণমূলের? পিকের জন্য অপেক্ষায় দলীয় পদ থেকে রাজ্যসভার টিকিট?

নীতিশ হাত ছাড়তেই হাসি চওড়া তৃণমূলের? পিকের জন্য অপেক্ষায় দলীয় পদ থেকে রাজ্যসভার টিকিট?



বর্তমানে তিনি রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের রণনীতিকার। তবে এতদিন তিনি বিজেপির শরিক দল তথা বিহারের শাসক দলে জেডিইউয়ের সহ-সভাপতির দায়িত্ব সামলাচ্ছিলেন। তবে জেডিইউয়ের সহ-সভাপতি থাকার সময় বিভিন্ন কারণে নীতীশ কুমারের সঙ্গে তার মতানৈক্য তৈরি হয়। যার ফলস্বরুপ আজ এই ঘটনার যবনিকা পতন হতে দেখা যায়। যেখানে এদিন জেডিইউ থেকে বহিষ্কার করা হয় সেই প্রশান্ত কিশোরকে।

আর এর পরেই নানা মহলে জল্পনা তৈরি হতে থাকে, তাহলে কি এবার নতুন কোনো ভবিষ্যত পথ বেছে নেবেন প্রশান্ত কিশোর? নাকি শুধুমাত্র পেশাদার রণনীতিকারের কাজ চালাবেন তিনি? বস্তুত, নানা মহলে জল্পনা তৈরি হয়েছিল যে, জেডিইউ থেকে বহিষ্কৃত হওয়ার পর যেহেতু তৃণমূল বিজেপি বিরোধী দল হিসেবে পরিচিত এবং প্রশান্ত কিশোর তৃণমূল কংগ্রেসের রননীতিকারের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন, সেহেতু পাকাপাকিভাবে তিনি তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিতে পারেন।


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

কিন্তু এখনও পর্যন্ত সেই ব্যাপারে কোনো নিশ্চয়তা নেই। আর এরই মাঝে প্রশান্ত কিশোরকে নিয়ে জল্পনা বাড়িয়ে দিলেন তৃণমূল মহাসচিব তথা শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। সূত্রের খবর, এদিন রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে সরস্বতী পুজোর অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যান শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। আর সেখানেই জেডিইউ থেকে প্রশান্ত কিশোরকে বহিস্কার করা প্রসঙ্গে তাকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, “কার চাপে কে বাদ যাচ্ছে, এটা কি আমার পক্ষে বলা সম্ভব!”

কিন্তু জেডিইউ থেকে বহিষ্কৃত হওয়ার পর, প্রশান্ত কিশোর কি এবার তৃণমূলে? এদিন এই প্রসঙ্গে জল্পনা উস্কে দিয়ে পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, “সেটা দল ঠিক করবে। এখনও পর্যন্ত দলে তিনি পরামর্শদাতা হিসেবে কাজ করছেন। যথেষ্ট সুনামের সঙ্গে সেই কাজ করছেন। অভিষেক যদিও তার সঙ্গে আছে। আমরা ডেটা দিচ্ছি। সেটা উনি তৈরি করছেন। এখন উনি আমাদের দলে আসবেন কি আমরা ওনাকে নেব, সেটা দলনেত্রী ও দল ঠিক করবে। আমি সরস্বতী পুজোর মঞ্চে বসে সেই সিদ্ধান্ত নিতে পারি না।”

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পার্থবাবু সরস্বতী পুজোর মঞ্চে বসে, সেই সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা শোনালেও, প্রশান্ত কিশোর যদি তৃণমূলে আসতে চান, তাহলে যে তারা কোনমতেই দ্বিধাদ্বন্দ্ব দেখাবেন না, তা একপ্রকার নিশ্চিত। তবে পার্থ চট্টোপাধ্যায় এদিন জেডিইউ থেকে বহিস্কৃত তথা তৃণমূল কংগ্রেসের রাজনৈতিক রননীতিকারের ভবিষ্যৎ যে তৃণমূল কংগ্রেসে হতেও পারে, সেই ব্যাপারে জল্পনা উস্কে দিলেন। এখন গোটা পরিস্থিতি কোন দিকে যায়!প্রশান্ত কিশোর তৃণমূলের রননীতিকার, নাকি তৃণমূল নেতা হিসেবে এখন কাজ চালান! সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!