এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > সবং নির্বাচনের পরই কি দলে ‘বড় পদ’ পেতে চলেছেন মুকুল রায়?

সবং নির্বাচনের পরই কি দলে ‘বড় পদ’ পেতে চলেছেন মুকুল রায়?



অনেক টালবাহানার পর তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন একদা শাসকদলের অঘোষিত দুনম্বর মুকুল রায়। আর তিনি বিজেপিতে যোগদানের পরেই যেন নতুন উন্মাদনা ফিরে পেয়েছেন বিজেপি কর্মী-সমর্থকেরা। যতই তিনি সাংবাদিক বৈঠকে বর্তমান রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে ‘আমার বাংলার ক্যাপ্টেন’ বলে জড়িয়ে ধরুন, বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের আলোচনায় বারবার উঠে আসছে, তিনি দলে যোগ দেওয়ার পর যে উন্মাদনা বঙ্গ রাজনীতিতে দেখা যাচ্ছে, তা কোনোমতেই প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি রাহুল সিনহা বা বর্তমান রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের জামানায় ছিল না। তিনি এক-একটা অভিযোগ আনছেন শাসকদলের বিরুদ্ধে বা শাসকদল ভাঙ্গিয়ে এমন এমন লোককে নিয়ে আসছেন যা রীতিমত চর্চার বিষয় হয়ে উঠছে রাজ্য-রাজনীতিতে। শুধু তাই নয়, এই প্রথম রাজ্যে বিজেপি কোনো নির্বাচনে লড়তে নামছে (সবং উপনির্বাচন) জেতার অঙ্গীকার নিয়ে, দ্বিতীয় বা তৃতীয় হওয়ার ভাবনায় গুটিয়ে থেকে নয়।
আর এই সব খবর পৌঁছাচ্ছে দিল্লিতে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ত্বের কাছেও। কাজেই গুজরাট ও হিমাচল প্রদেশের নির্বাচন নিয়ে কাজ মিটতেই এবার বঙ্গভূমির দিকে তাকাতে শুরু করেছেন তাঁরা। বাংলায় বিজেপির ভালো ফল করতে হলে মুকুল রায়কে আরো বেশি করে ক্ষমতা দিতে হবে একথা এখন দুধের শিশুর কাছেও পরিষ্কার। আর তাই সবং উপনির্বাচন মিটলেই এবার মুকুল রায়কে কোনো বড়সড় পদ দেওয়ার কথা ভাবা হচ্ছে। কেননা যতই রাজ্য-রাজনীতিতে তিনি উন্মাদনা তৈরি করুন, খাতায়-কলমে এখনো তিনি বিজেপির একজন সাধারণ সদস্য ছাড়া কিছু নন। তাই আপাতত তিনটি বিষয় ভাবা হচ্ছে বলে সূত্রের খবর –

১. দিলীপ ঘোষকে সরিয়ে এখনই মুকুল রায়কে রাজ্য সভাপতি করে দেওয়া হোক – অনেক কর্মী-সমর্থক মনে-প্রাণে এটা চাইলেও এর সম্ভাবনা অত্যন্ত ক্ষীণ
২. মুকুল রায়কে জাতীয় স্তরে সম্পাদকের পদ দিয়ে রাজ্যের সহ-পর্যবেক্ষক করা – সম্ভাবনা অত্যন্ত উজ্জ্বল
৩. কেন্দ্রে কোনো মন্ত্রকে মন্ত্রীত্ত্ব দিয়ে আগামী এপ্রিলে রাজস্থান থেকে রাজ্যসভায় জিতিয়ে আনা – অনেক শীর্ষ নেতা এটা চাইলেও তাতে করে মুকুল বাবুর সাংগঠনিক দক্ষতা বাংলার বুকে সম্পূর্ণ ব্যবহার করা নাও যেতে পারে বলে কিছু নেতা মনে করছেন

আর তাই সবং উপনির্বাচন মিটলেই উপরের যেকোন একটি ভূমিকায় মুকুল রায়কে দেখতে পাওয়ার সম্ভাবনা ক্রমেই উজ্জ্বল হচ্ছে। আর তার উপরে যদি তাঁর হাত ধরে সবংয়ে পদ্মফুল ফোটে তাহলে ১ নম্বর সম্ভাবনায় সিলমোহর পড়তে চতুর্দিক দিক থেকে চাপ যেতে পারে অমিত শাহের কাছে বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!