এখন পড়ছেন
হোম > অন্যান্য > ব্যবহারকারীদের আস্থা অর্জন করতে এবার অভিনব পন্থা নিল হোয়াটস অ্যাপ

ব্যবহারকারীদের আস্থা অর্জন করতে এবার অভিনব পন্থা নিল হোয়াটস অ্যাপ



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – সকালে উঠে সোশ্যাল মিডিয়ায় উঁকিঝুঁকি দেওয়া আমাদের সকলেরই অভ্যেস। সেখানে আজ সকাল থেকেই হোয়াটস অ্যাপ খুললেই দেখা যাচ্ছে সংস্থার তরফে ব্যবহারকারীদের জন্য পাঠানো হয়েছে কয়েকটি স্ট্যাটাস। সেখানে প্রত্যেক ব্যবহারকারীর তথ্য সংক্রান্ত নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে বলেই জানান হয়েছে। সেইসঙ্গে তথ্যের এন্ড-টু-এন্ড ইনক্রিপশন থেকে শুরু করে হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজের ক্ষেত্রে সংস্থা ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত মেসেজ পড়তে বা শুনতে পায় না বলেই আশ্বস্ত করা হয়েছে।

সেইসঙ্গে তারা জানায় ব্যবহারকারীর শেয়ার করা লোকেশনও হোয়াটসঅ্যাপ দেখতে পায় না। সেইসঙ্গে ব্যবহারকারীর কনট্যাক্টসও হোয়াটসঅ্যাপ কখনই ফেসবুককে জানায় না বলেও জানান তাঁরা। সম্প্রতি হোয়াটসঅ্যাপ ঘোষণা করেছে যে তারা তাদের নতুন প্রাইভেসি পলিসি পরিবর্তন করতে চলেছে। সেক্ষেত্রে আগামী তিন মাসের মধ্যে কোনো অ্যাকাউন্ট ডিলিট হওয়ার সম্ভাবনা নেই বলেও জানান হয়। সেইসঙ্গে সংস্থার তরফে জানানো হয় যে, হোয়াটসঅ্যাপে গোপনীয়তা এবং সুরক্ষা কীভাবে কাজ করে সে সম্পর্কে মানুষের ভুল ধারণা পরিবর্তন করার জন্য আরও অনেক কাজ করার পরিকল্পনা করছেন তাঁরা।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, কিছুদিন আগে হোয়াটসঅ্যাপ যে প্রাইভেসি পলিসি আপডেট করেছে তাতে সেই পলিসি ধীরে ধীরে সমস্ত ব্যবহারকারীদের কাছে ফেব্রুয়ারি মাসের মধ্যে আনা হবে বলে জানান হয়। ব্যবহারকারীদের ক্ষেত্রে এই নতুন নীতি ফেব্রুয়ারীর ৮ তারিখের পর থেকে গ্রহণ না করলে যেকোনো সময় আপনার অ্যাকাউন্ট ডিলিট হতে পারে বলেও জানান হয়। অন্যদিকে নতুন পলিসিতে যে নতুন গোপনীয়তা নীতি সম্পর্কে ব্যবহারকারীদের সতর্ক করা হয়, তাতে বলা হয় যে হোয়াটসঅ্যাপ তার মূল সংস্থা ফেসবুকের সাথে ব্যবহারকারীর ডেটা ভাগ করবে।

ব্যবহারকারীরা আগে যেখানে একটি নট নাউ এর অপশন পেতেন, এখন সেটা উপলব্ধ হবে না। আর এই পলিসিরই বিরুদ্ধে মুখ খুল দেখা যায় সিএআইটি কে। সেক্ষেত্রে তাঁরা দাবি করেন যে, হোয়াটস অ্যাপের এন্ড টু এন্ড এনক্রিপটেড পলিসি কার্যকরী হবে না। সেক্ষেত্রে মানুষের শুধু ব্যক্তিগত তথ্যই নয়, দেশের সুরক্ষা ব্যবস্থার জন্যও মারাত্মক হতে পারে বলেই দাবি করেছিলেন তাঁরা। আর তাই এই নতুন পলিসির প্রতিবাদ করে ব্যবসায়ীদের সংগঠন সিএআইটি তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রী রবি শঙ্কর প্রসাদকে চিঠি লিখে ভারতে এই মেসেজিং অ্যাপ এবং তার মূল সংস্থা ফেসবুকের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের দাবি করে। আর তারপরই আজ সকালে ব্যবহারকারীদের এভাবেই আশ্বস্ত করতে দেখা গেল হোয়াটস অ্যাপকে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!