এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > বিজেপি > ভোটের আগে রাজ্যের দায়িত্ব কাদের নেওয়া উচিত, জানিয়ে দিলেন মুকুল রায়!

ভোটের আগে রাজ্যের দায়িত্ব কাদের নেওয়া উচিত, জানিয়ে দিলেন মুকুল রায়!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – যত দিন যাচ্ছে, ততই নির্বাচনের সময় এগিয়ে আসছে। আর নির্বাচনের সময় যত এগিয়ে আসছে, ততই রাজনৈতিক উত্তেজনা বাড়তে শুরু করেছে গোটা বাংলা জুড়ে। অনেকেই বলছেন, খুব তাড়াতাড়ি নির্বাচনের দিন ঘোষণা হয়ে যাবে। আর সেই দিন ঘোষণা হয়ে গেলে প্রতিটা রাজনৈতিক দল যে আরও বেশি করে ভোটের প্রস্তুতির জন্য তৎপরতা অবলম্বন করবে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। তবে নির্বাচনের আগে থেকেই রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা সম্পূর্ণরূপে ভেঙে পড়েছে বলে অভিযোগ করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি।

তৃণমূল সরকারকে ক্রমাগত চাপের মুখে ফেলতে দেখা যাচ্ছে তাদের‌। আর এই পরিস্থিতিতে নির্বাচনের আগে কেন্দ্রীয় বাহিনীর পক্ষে সওয়াল করে রীতিমত শোরগোল তুলে দিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি মুকুল রায়। সূত্রের খবর, বুধবার হেস্টিংসে বিজেপির কার্যালয়ে একটি যোগদান কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে তৃণমূল, সিপিএম সহ বেশকিছু দলের নেতারা বিজেপিতে যোগদান করেন। আর সেখানেই রাজ্যের পুলিশ প্রশাসন আইন-শৃঙ্খলা সামলাতে সম্পূর্ণরূপে ব্যর্থ বলে দাবি করেন মুকুল রায়। পাশাপাশি কেন্দ্রীয় বাহিনী রাজ্যের মানুষের নিরাপত্তার দায়িত্ব নিলে ভালো হয় বলেও মন্তব্য করতে দেখা যায় তাকে।

স্বাভাবিকভাবেই তার এই মন্তব্যের মধ্যে একটা জিনিস পরিষ্কার যে, বিজেপির আর কোনোভাবেই রাজ্য পুলিশের ওপর আস্থা নেই। আর তাই এই মন্তব্য করে মুকুল রায় তৃণমূল সরকার এবং রাজ্যের পুলিশ প্রশাসনের ওপর চাপ আরও বাড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলেন বলেই দাবি একাংশের। এদিন এই প্রসঙ্গে মুকুল রায় বলেন, “বাংলার পুলিশ ব্যবস্থা সম্পর্কে রাজ্যের মানুষের অনীহা রয়েছে। বাংলার পুলিশ একটি রাজনৈতিক দলের পক্ষপাতিত্ব করে। স্বাভাবিকভাবেই যত তাড়াতাড়ি কেন্দ্রীয় বাহিনী রাজ্যের নিরাপত্তার দায়িত্ব নেবে, বাংলার মানুষ তত দ্রুত নিরাপত্তার আশ্বাস পাবে।”


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা বলছেন, এর আগেও বিগত বাম সরকারের আমলে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি এবং গণতন্ত্র নেই এই দাবি তুলে সরব হতে দেখা গিয়েছিল তৎকালীন বিরোধী দল তৃণমূল কংগ্রেসকে। আর এই দাবির পরিপ্রেক্ষিতে ভোটবাক্সে বামেদের বিপক্ষে রায় দিয়েছিলেন জনতা জনার্দন। যেখানে তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতা দখল করেছিল। তবে এবার সেই তৃণমূলের চাপ বাড়িয়ে সেই তৃণমূল কংগ্রেসেরই সেকেন্ড-ইন-কমান্ড তথা বর্তমান বিজেপি নেতা মুকুল রায় রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সম্পূর্ণরূপে ভেঙে পড়ার কথা জানিয়ে দিলেন।

পাশাপাশি রাজ্য পুলিশের ওপর আস্থা নেই বলে ভোটের আগে কেন্দ্রীয় বাহিনী যাতে রাজ্যের নিরাপত্তার দায়িত্ব নেয়, সেকথাও বলতে শোনা গেল তাকে। সব মিলিয়ে মুকুল রায়ের এই মন্তব্যের ফলে কেন্দ্রের পক্ষ থেকে রাজ্যের নিরাপত্তা প্রদানের ব্যাপারে নতুন কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয় কিনা, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!