এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > আরও নড়বড়ে রাজ্য সরকার? ভোটের আগেই বড়সড় সিদ্ধান্ত নিচ্ছে জোটসঙ্গী? ঘুম উড়ছে মুখ্যমন্ত্রীর?

আরও নড়বড়ে রাজ্য সরকার? ভোটের আগেই বড়সড় সিদ্ধান্ত নিচ্ছে জোটসঙ্গী? ঘুম উড়ছে মুখ্যমন্ত্রীর?



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – বিহারে বিধানসভা নির্বাচনে নিজেদের হারকে লজ্জাজনক বলেই মনে করেছিলেন কংগ্রেসের অনেক রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বরা। আর সেক্ষেত্রে তাঁদের নতুন করে চিন্তা ভাবনা করতে হবে বলেও জানিয়েছেন কেউ কেউ। সেক্ষেত্রে তার নতুন পদক্ষেপ ইতিমধ্যেই তারা নিয়ে ফেলেছেন বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। কারণ শিব সেনার সঙ্গে আর জোট করতে রাজি নয় কংগ্রেস।

জানা গেছে, বিশ্বের সবচেয়ে ধনী পুরনিগমের নির্বাচনে একলা লড়ার কথা ভাবছে কংগ্রেস। বৃহস্পতিবার মুম্বইয়ের এক কংগ্রেস নেতার কথায়, তেমনটাই জানা গেছে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বছরখানেক আগে বিজেপিকে ক্ষমতাচ্যুত করতে হিন্দুত্ববাদী শক্তি শিব সেনার সঙ্গে জোট করেছিল কংগ্রেস-এনসিপি। মহারাষ্ট্রে এরপর মুখ্যমন্ত্রী হন উদ্ধব ঠাকরে।

যদিও প্রথমে মতাদর্শগতভাবে ভিন্ন মেরুতে অবস্থানকারী এই জোট বেশ সুচারুভাবেই চলছিল এবং উদ্ধব ঠাকরে বুদ্ধিমত্তার সঙ্গেই হিন্দুত্ববাদ থেকে নিজের দলকে কিছুটা দূরে সরিয়ে রাখার চেষ্টা করছিলেন। কিন্তু ভিন্ন মতাদর্শের এই দলগুলির জোটে যে কোনও সময় ছন্দপতন হতে পারে বলেই আশঙ্কা করেছিলেন অনেক বিশেষজ্ঞই।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

আর ২০২২ সালের বৃহন্মুম্বই পুরনিগমের নির্বাচনের আগে তেমনটাই প্রকাশ পেল। এদিন মুম্বই কংগ্রেসের প্রভাবশালী ব্যক্তিত্ব রবি রাজা বলেন যে, তাঁরা আসন্ন বৃহন্মুম্বই পুরনিগমের নির্বাচনে শিব সেনার সঙ্গে জোট চাননা। তাঁর কথায়, মুম্বইয়ের প্রতিটি ওয়ার্ডে কংগ্রেসের সংঠন একাই শক্তিশালী।

অন্যদিকে, বিশ্লেষকদের মতে, বৃহন্মুম্বই পুরনিগমে দীর্ঘদিন ধরে শিব সেনা ক্ষমতায় আছে। তার কারণ বিজেপির সঙ্গে জোট গঠন করা হয়। সেক্ষেত্রে দেখতে গেলে ২০১৭ সালের নির্বাচনের আগে পর্যন্ত শিব সেনা-বিজেপি জোট বনাম কংগ্রেস-এনসিপি জোটের মধ্যেই মূল লড়াই ছিল। তবে এরই মধ্যে অনেকের ধারণা এনসিপি বা বিজেপির তেমন প্রভাব না থাকায় আসল লড়াইটা শিব সেনা এবং কংগ্রেসের মধ্যে ছিল।

কিন্তু ২০১৭ সালে চার দলই আলাদা আলাদাভাবে লড়াই করে। আর তাতে মূল লড়াই হয় বিজেপি আর শিব সেনার মধ্যে। কংগ্রেস মূলত তৃতীয় শক্তিতে পরিণত হয়। সেখানে গত নির্বাচনে ২২৭ আসনের বৃহন্মুম্বই পুরনিগমে শিব সেনা পায় ৮৬টি আসন, বিজেপি পায় ৮২টি আসন। আর কংগ্রেস সেখানে পায় মাত্র ৩০টি আসন এবং এনসিপি পায় ৯টি আসন।

পরে মহারাষ্ট্র নবনির্মাণ সেনার ৬ কাউন্সিলর শিব সেনায় যোগ দেন। বিশ্লেষকদের মতে, সম্ভবত এখানেই সমস্যা হয়। বস্তুত, দীর্ঘদিনের বিরোধী দুই শক্তি জোট করে লড়লে আসন রফায় সমস্যা হবে, সেটা বুঝতে পেরেই তাই কংগ্রেস মুম্বই শহরে ফের নিজেদের আধিপত্য প্রতিষ্ঠা করতে একা লড়াই করার কথা ভাবতে চাইছে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। তবে চুড়ান্ত সিদ্ধান্তের জন্য অবশ্য হাই কম্যান্ডের উপরই নির্ভর করা হয়েছে বলেও জানা গেছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!