এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > ভোটের ঠিক আগে জল্পনা বাড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রীর নির্বাচনী কেন্দ্র থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা উদ্ধার

ভোটের ঠিক আগে জল্পনা বাড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রীর নির্বাচনী কেন্দ্র থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা উদ্ধার



কর্ণাটক বিধানসভা নির্বাচন হতে আর মাত্র ৪দিন বাকি। ঠিক এইসময়েই এক অপ্রত্যাশিত ঘটনার জেরে বেশ বিপাকে পড়লেন কর্ণাটকের বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী সিদ্দারমাইয়া। এদিন আয়কর দফতর তাঁর নির্বাচনী কেন্দ্র থেকেই ৩১ লক্ষ টাকা উদ্ধার করল। জানা গেছে যে মুখ্যমন্ত্রীর কেন্দ্র বদামির বিভিন্ন জায়গায় হানা দেয় আয়কর দফতর। বদামির একটি রিসর্ট থেকে উদ্ধার হয় নগদ ২০ লক্ষ টাকা। অন্যদিকে কর্ণাটকের প্রদেশ কংগ্রেসের জেনারেল সেক্রেটারির বাড়ি থেকেও ১১ লক্ষ টাকা উদ্ধার হয়। আয়কর দফতরের কাছে আগে থেকে আসা খবরের ভিত্তিতেই এই দুই জায়গায় হঠাৎ করে হানা দেয় বলে জানা গেছে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

রাজধানী বেঙ্গালুরুর তুমাকুরুতে একটি বাস থেকে উদ্ধার হয়েছে নগদ ৩ কোটি টাকা। এই টাকা ৫০০ ও ২০০০ টাকার নোটে ভাগ করে দুটি ব্যাগে রাখা ছিলো বলে উদ্ধারকারী পুলিশের বিশেষ স্কোয়াড সূত্রে জানা গিয়েছে। রাজ্যের বিরোধী দল বিজেপির কাছে এ যেন মেঘ না চাইতেই জল পাওয়ার মতো অবস্থা! পরিস্থিতির সদ্বব্যবহার করতে এরমধ্যেই টাকা উদ্ধারের ঘটনাকে ভিত্তি করে দাবি করেছে ভোট কিনতেই এতগুলো টাকা সরিয়ে রাখা হয়েছিলো। ভোটারদের ঘরে ঘরে টাকা বিলি করে মুখ্যমন্ত্রী ভোট কিনতে চাইছেন বলেও গেরুয়া শিবির দাবি করেছে । এমনকি এই বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের কাছেও অভিযোগ জানাতে উদ্যোগী হয়ে উঠেছে বিজেপি। উল্লেখ্য এর আগে গত মাসেই কর্ণাটকের বেলগাভি থেকে মোট ৭ কোটি জাল নোট উদ্ধার হয়। তারপরই হাই এলার্ট জারি করে টাকা লেনদেন রুখতে সক্রিয় হয়ে ওঠে কমিশন। সোমবার রাতে খোদ মুখ্যমন্ত্রীর নির্বাচনী কেন্দ্র থেকে এত টাকা নগদ অর্থ উদ্ধারের ঘটনায় এবারে স্বয়ং রাজ্য নির্বাচন কমিশনও অপ্রস্তুতে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!