এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > করোনা ভ্যাকসিন ট্রায়ালে বাধা দিচ্ছে রাজ্য অভিযোগ দিলীপের,পাল্টা তৃণমূল

করোনা ভ্যাকসিন ট্রায়ালে বাধা দিচ্ছে রাজ্য অভিযোগ দিলীপের,পাল্টা তৃণমূল



আপনাদের সুবিধার্থে খবরের শেষে বিধানসভা ২০২১ উপলক্ষে আমাদের করা সর্বশেষ সমীক্ষার প্রতিটির লিঙ্ক দেওয়া আছে।

আপনার মতামত জানান -

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – রুশ-ভারত দ্বিপাক্ষিক সুসম্পর্কের পরিপ্রেক্ষিতে রাশিয়ার তৈরি করোনা প্রতিষেধকের যে ১০০টি ডোজ পরীক্ষামূলক প্রয়োগের জন্য ভারতে পাঠানো হয়েছে, তাদের মধ্যে ভারতে ভ্যাকসিনের ট্রায়ালের জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে কিছু ইনস্টিটিউটকে। আর সেখানে যে সমস্ত ইনস্টিটিউটগুলিকে বেছে নেওয়া হয়েছিল, তাদের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের সাগর দত্ত মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ছিল বলে জানা গিয়েছিল।

সেখানে বলা হয়েছিল ‘স্পুটনিক’ ফাইভ এর দ্বিতীয় পর্যায়ের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের জন্য সাগর দত্ত মেডিকেল কলেজ হাসপাতালকে বেছে নেওয়া হয়েছে। আর সেক্ষেত্রে এই হাসপাতালের ১২ জন স্বেচ্ছাসেবকের শরীরে রাশিয়ার তৈরি ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের দ্বিতীয় পর্ব শুরু করা হবে বলে জানা যায়।

তবে এক্ষেত্রে এখনো ডিজিসিআই, এথিক্স কমিটির অনুমোদন পাওয়া প্রয়োজন বলেও জানান হয়। তাই এদের অনুমোদন না পেলে নভেম্বর মাসের মধ্যে এর ট্রায়াল পর্ব শুরু করা যাবে না বলেও জানান হয়েছিল। তবে এক্ষেত্রে এরই সঙ্গে রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের অনুমোদনেরও প্রয়োজন পড়বে বলে জানান হয়।

আর যদি এক্ষেত্রে সাগর দত্ত মেডিকেল কলেজের ওই ১২ জন স্বেচ্ছাসেবকের শরীরে এই ভ্যাকসিন কাজ করে, তবে এর ভিত্তিতে কলকাতার আরো দুই হাসপাতালেও এর তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল শুরু করা হবে বলে জানা যায়। সেক্ষেত্রে পিয়ারলেস এবং মেডিকা সুপারস্পেস্যালিটি হাসপাতালের নাম উঠে আসে। তবে সম্প্রতি তৃণমূল এই কাজ করতে কেন্দ্র সরকারকে বাঁধা দিচ্ছে বলেই দাবি করতে দেখা গেছে দিলীপ ঘোষকে।


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এদিন তিনি জানান, আমাদের রাজ্যে করোনাতে সবথেকে বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। আর সেটাকে স্বাভাবিক করার জন্য যে স্ফুটনিক ভ্যাকসিনের ট্রায়াল করার কথা ছিল তা রাজ্যের সরকার করতে দিচ্ছে না। সমস্ত রাজ্যে এর ট্রায়াল চলছে, কিন্তু সাগর দত্ত মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যেখানে এই ভ্যাকসিনের ট্রায়ালের জন্য নাম নেওয়ার কথা ছিল মানুষের, সেখানে একটা নামও জমা পড়েনি বলেই অভিযোগ করেছেন তিনি।

সেই সঙ্গে তাঁর কথায়, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের মানুষকে যেভাবে আয়ুষ্মান স্বাস্থ্য যোজনা থেকে বঞ্চিত করেছেন, যেভাবে কৃষক সম্মান নিধি থেকে মানুষকে বঞ্চিত করা হয়েছে, ঠিক তেমন ভাবেই এই ভ্যাকসিনের ট্রায়াল থেকেও মানুষকে বঞ্চিত করা হয়েছে বলেই জানিয়েছেন তিনি।

তাঁর কথায়, এই রাজ্যের মানুষদের কি বেঁচে থাকার অধিকার নেই? এমন প্রশ্নই উঠে এসেছে। অন্যদিকে, পাল্টা বিজেপিকে নাটক করছে বলে কটাক্ষ করতে দেখা গেছে মুখ্যমন্ত্রীকে। এদিন তিনি বলেন, নাটক করছে কেন্দ্র সরকার। তাঁর কথায়, এখন বলবে ইনজেকশন দেব, আসতে আসতে ছমাস আটমাস হয়ে যাবে।

তিনি জানান, একটা করোনা কেসে যদি দেড় দু লক্ষ টাকা সরকার খরচা করতে পারে তবে ইনজেকশন তারাই কিনতে পারবেন। এক্ষেত্রে কেন্দ্রের সাহায্যের দরকার নেই বলেই জানিয়েছেন তিনি। অন্যদিকে, তিনি বলেন, ইনজেকশন কেনার জন্য তাঁরাই আছেন। কেন্দ্র শুধু ইনস্ট্রাকশন দিলেই হবে।

আর সেখানে কোথা থেকে কি নিতে হবে সেটা শুধু বলে দিলেই হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। তাঁর মতে রাজ্য সব দিক থেকেই তৈরি আছে। যদিও এর কোনো প্রতিক্রিয়া এখনো পাওয়া যায়নি, তবে বিরোধীরা এই কথার কি জবাব দেন, এখন সেটাই দেখার অপেক্ষা।

একনজরে দেখে নিন আমাদের সর্বশেষ বিধানসভা ২০২১ ওপিনিয়ন পোল –

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – দ্বিতীয় পর্ব – 

# মুর্শিদাবাদ জেলার ওপিনিয়ন পোল – প্রথম পর্ব – 

# মালদহ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# উত্তর দিনাজপুরে জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# জলপাইগুড়ি ও কালিম্পঙ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# আলিপুরদুয়ার ও দার্জিলিং জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# কুচবিহার জেলার ওপিনিয়ন পোল –

আপনার মতামত জানান -
আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!