এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > ভ্যাকসিন নিলেন তৃণমূলের বেশকিছু বিধায়ক, প্রয়োজনের তুলনায় কম ভ্যাকসিন এসেছে বলে অভিযোগ মুখ্যমন্ত্রীর

ভ্যাকসিন নিলেন তৃণমূলের বেশকিছু বিধায়ক, প্রয়োজনের তুলনায় কম ভ্যাকসিন এসেছে বলে অভিযোগ মুখ্যমন্ত্রীর



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –  আজ থেকে দেশজুড়ে শুরু হল করোনার ভ্যাকসিনেশন। প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে করোনার ভ্যাকসিনেশনের উদ্বোধন করলেন। প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, যারা চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী অথবা সামনের সারিতে থাকা করোনার যোদ্ধা, তাঁরাই প্রথম করোনার ভ্যাকসিন লাভ করবেন। কারণ এই ধরনের মানুষেরা নিজেদের জীবনকে বাজি রেখে করোনার মত মাড়ন ব্যাধির সঙ্গে সরাসরি লড়াই করছেন। তবে প্রধানমন্ত্রীর এই ঘোষণার পরেও বেশ কিছু তৃণমূল বিধায়ককে ভ্যাকসিন নিতে দেখা গেল। তাদের নাম কিভাবে এলো টিকা প্রাপকদের তালিকাতে? তা নিয়ে শুরু হলো বিতর্ক।

স্বাস্থ্যকর্মী না হয়েও করোনার টিকা নিতে দেখা গেল কাটোয়ার বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায়কে। আলিপুরদুয়ারের তৃণমূল বিধায়ক সৌরভ চক্রবর্তীর নামও টিকা প্রাপকদের তালিকা উঠে এসেছিল। তবে এ নিয়ে বিতর্ক ওঠায়, শেষ পর্যন্ত টিকা নেন নি তিনি। আজ, কাটোয়ার মহকুমা হাসপাতালে করোনার ভ্যাকসিন নিয়েছেন চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা। এরপর, এই হাসপাতালে গিয়ে করোনার ভ্যাকসিন নিলেন কাটোয়ার তৃণমূল বিধায়ক ও পুর প্রশাসক রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায়। এক্ষেত্রে, কোভিড বিধি মানা হয়নি বলে অভিযোগ তোলা হয়েছে। তবে, তৃণমূল নেতৃত্ব এ বিষয়ে এখনো কোনো বক্তব্য রাখে নি।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায় জানালেন যে, কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালের রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান তিনি। তালিকায় তাঁর নাম ছিল বলেই টিকা নিয়েছেন তিনি। অন্যদিকে, আজ ভাতারের স্টেট জেনারেল হাসপাতাল থেকে করোনার টিকা নিয়েছেন ভাতারের তৃণমূল বিধায়ক সুভাষ মন্ডল, প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ক বনমালী হাজরা। এঁরা দুজনেই এই হাসপাতালের রোগী কল্যাণ সমিতির সদস্য হবার কারণে টিকা নিয়েছেন বলে জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক জানালেন।

তবে তৃণমূল বিধায়কের টিকাকরণ নিয়ে যথেষ্ট বিতর্ক ছড়িয়েছে। আলিপুরদুয়ারে তৃণমূল বিধায়ক সৌরভ চক্রবর্তী প্রসঙ্গে তাপস রায় জানালেন যে, বিধায়ক জানিয়েছেন যে তিনি টিকা নেবেন না। তবে, ভুল করে নাম তাঁর ওঠা নিয়ে বিতর্ক করা হচ্ছে কেন? অন্যদিকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অভিযোগ করেছেন যে, প্রয়োজনের তুলনায় রাজ্যে করোনার ভ্যাকসিন কম পাঠিয়েছে কেন্দ্র সরকার। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন রাজ্যের সকলকে বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে। প্রয়োজনে ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারক সংস্থার কাছ থেকে কিনে আনা হবে ভ্যাকসিন।

মুখ্যমন্ত্রী জানালেন যে, যাঁরা করোনার ভ্যাকসিন নিচ্ছেন, তাঁদের স্বাস্থ্যের দিকে নজর রাখতে। আজ মুখ্যমন্ত্রী নবান্নে মুখ্যসচিব, স্বাস্থ্য সচিব, জেলা শাসকদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। ২১২ টি কেন্দ্রের স্বাস্থ্য আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। করোনার প্রথম দফার টিকাকরণের দ্বিতীয় পর্যায় হবে আগামী সোমবার। এখন সপ্তাহে চারদিন করে করোনার ভ্যাকসিন দেয়া হবে। সোমবার, মঙ্গলবার, শুক্রবার ও শনিবার দেয়া হবে করোনার ভ্যাকসিন।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!