এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > উত্তরবঙ্গের দুই নেতাকে নিয়ে বড় সিদ্ধান্ত তৃণমূলের! বাড়ছে জল্পনা

উত্তরবঙ্গের দুই নেতাকে নিয়ে বড় সিদ্ধান্ত তৃণমূলের! বাড়ছে জল্পনা



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – গত লোকসভা নির্বাচনে উত্তরবঙ্গে তৃণমূলের ফলাফল খুব একটা ভালো হয়নি। আটটি আসনের মধ্যে সাতটি আসনে ফুটে গিয়েছে পদ্মফুল। অন্যদিকে একটি আসন দখল করেছে কংগ্রেস। সেদিক থেকে উত্তরবঙ্গের একটি আসনও নিজেদের দখলে রাখতে পারেনি ঘাসফুল শিবির। আর এই পরিস্থিতিতে সামনের বিধানসভা নির্বাচনে উত্তরবঙ্গে যাতে ভালো ফল করা যায়, তার জন্য নানা রাজনৈতিক কর্মসূচি হাতে নিতে শুরু করেছে তৃণমূল কংগ্রেস।

পাশাপাশি উত্তরবঙ্গের জেলাগুলোতে সংগঠনে ব্যাপক বদল আনা হচ্ছে। তবে এবার উত্তরবঙ্গের আরও গুরুত্ব দিতে রাজ্য স্তরের সংগঠনে সিদ্ধান্ত নিল তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্ব। সূত্রের খবর, আজ রবিবার তৃণমূলের পক্ষ থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করা হয়। যেখানে জানিয়ে দেওয়া হয়, দলের সহ সভাপতি করা হয়েছে মালদহের মোয়াজ্জেম হোসেন এবং দক্ষিণ দিনাজপুরের শংকর চক্রবর্তীকে। এছাড়াও তৃণমূল সাংসদ শতাব্দী রায়কেও দেওয়া হয়েছে দলের সহ-সভাপতির দায়িত্ব।

আর তিন হেভিওয়েট নেতা নেত্রীকে তৃণমূল রাজ্য কমিটিতে জায়গা দেওয়ায় নতুন করে জল্পনা তৈরি হয়েছে। যেখানে উত্তরবঙ্গের দুই নেতাকে তৃণমূল যেভাবে রাজ্যের সহ-সভাপতির দায়িত্ব দিল, তাতে জল্পনা ক্রমশ বাড়তে শুরু করেছে। অনেকেই বলছেন, আসলে উত্তরবঙ্গের নেতাদের রাজ্যস্তরে নিয়ে এসে তৃণমূল উত্তরবঙ্গকে বাড়তি গুরুত্ব দেওয়ার চেষ্টা করল।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এক্ষেত্রে উত্তরবঙ্গের সংগঠনের যেমন জোয়ার আনার চেষ্টা করল শাসকদল, ঠিক তেমনই বুঝিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করল, উত্তরবঙ্গকে তারা যথেষ্ট গুরুত্ব দিচ্ছে। শুধু তাই নয়, মালদহের মোয়াজ্জেম হোসেন এবং দক্ষিণ দিনাজপুরের শংকর চক্রবর্তীকে রাজ্যের সহ-সভাপতি করে বিজেপির সাথে আরও বেশি করে মোকাবিলা করার রাস্তা বেছে নিল তৃণমূল কংগ্রেস।

তবে তৃণমূল দক্ষিণ দিনাজপুর এবং মালদহ জেলা থেকে দুই হেভিওয়েট নেতাকে নিজেদের রাজ্যস্তরে নিয়ে গেলেও, এর পেছনে অন্য কারণ দেখছে একাংশ। অনেকে বলছেন, এই মালদহ এবং দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব চরম আকার ধারণ করেছিল। তাই এই পরিস্থিতিতে জেলার অভিজ্ঞ ব্যক্তিদের জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের চেয়ারম্যান করে এতদিন চেয়ারম্যান থাকা মালদহের মোয়াজ্জেম হোসেন এবং দক্ষিণ দিনাজপুরের শংকর চক্রবর্তীকে রাজ্য কমিটিতে নিয়ে যাওয়া হল।

অর্থাৎ গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব আটকাতেই যে তৃণমূলের এই পদক্ষেপ, সেই ব্যাপারে নিশ্চিত পর্যবেক্ষকদের অনেকে। তবে যেভাবে গত লোকসভা নির্বাচনের সময় থেকে উত্তরবঙ্গে বিজেপির দাপট লক্ষ্য করা গেছে, তাতে তৃণমূল এই পদক্ষেপ নিলেও, শেষ পর্যন্ত বিজেপিকে তারা কতটা পর্যুদস্ত করতে পারে, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!