এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > উত্তরবঙ্গে পা রেখেই মমতার বিড়ম্বনা বাড়িয়ে দিলেন রাজ্যপাল, শোরগোল রাজ্যে!

উত্তরবঙ্গে পা রেখেই মমতার বিড়ম্বনা বাড়িয়ে দিলেন রাজ্যপাল, শোরগোল রাজ্যে!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –   যেমনটা মনে করা হয়েছিল, ঠিক তেমনটাই হল। উত্তরবঙ্গে পা রেখেই এবার রাজ্যের ভোটের ফলাফল পরবর্তী হিংসা নিয়ে সরব হলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকার। যেখানে বাগডোগরা বিমানবন্দর থেকে সরাসরি রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে দেখা গেল তাকে। বস্তুত, সম্প্রতি দিল্লি থেকে ফিরে এসেছেন রাজ্যপাল জাগদীপ ধনকার। আর তারপরেই উত্তরবঙ্গ সফরের কথা জানিয়ে দেন তিনি। স্বাভাবিক ভাবেই জল্পনা তৈরি হয়।

ইতিমধ্যেই বিরোধীদের তরফ থেকে একাধিকবার রাজ্যপালের কাছে গিয়ে ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে নানা অভিযোগ করা হয়েছে। যার পরিপ্রেক্ষিতে রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে বারবার সরব হয়েছেন বাংলার প্রশাসনিক প্রধান। পাল্টা তৃণমূলের পক্ষ থেকে রাজ্যপাল একটি নির্দিষ্ট দলের হয়ে কাজ করছে বলে অভিযোগ করা হয়েছে।

স্বাভাবিক ভাবেই এমত পরিস্থিতিতে রাজ্যপালের এই উত্তরবঙ্গ সফর নিয়ে নানা মহলে গুঞ্জন তৈরি হয়েছিল। অনেকেই বলতে শুরু করেছিলেন, ভোটের ফলাফল পরবর্তী হিংসার পরিপ্রেক্ষিতে উত্তরবঙ্গ পরিদর্শনে যাচ্ছেন বাংলার সাংবিধানিক প্রধান। আর সেই উত্তরবঙ্গে পা রেখেই বাগডোগরা বিমানবন্দর থেকে ভোট-পরবর্তী হিংসা প্রসঙ্গে “গণতন্ত্রের ওপর আঘাত” বলে মন্তব্য করলেন জাগদীপ ধনকার।

সূত্রের খবর, সোমবার উত্তরবঙ্গে যান রাজ্যপাল জাগদীপ ধনকার। যেখানে বাগডোগরা বিমানবন্দরে পা রাখার পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে রাজ্য প্রশাসনের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ করেন তিনি। পশ্চিমবঙ্গের সাংবিধানিক প্রধান বলেন, “ভোটের পর থেকে পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন এলাকায় লাগামছাড়া সন্ত্রাস তৈরি হয়েছে। নাগরিকদের মৌলিক অধিকার হরণ করা হচ্ছে। গণতন্ত্রের ওপর আঘাত আসছে। দেশের স্বাধীনতার পর থেকে এমন অশান্তি দেখা যায়নি।”

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

পাশাপাশি তপশিলি জাতি এবং উপজাতির মানুষদের উপর আক্রমণ হলেও, পুলিশ কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না বলেও অভিযোগ করতে দেখা গেছে রাজ্যপালকে। এছাড়াও মুখ্যমন্ত্রীর নিরাপত্তা নিয়েও প্রশ্ন তুলে দিয়েছেন তিনি। অর্থাৎ রাজভবন থেকে যেমন বিভিন্ন সময় রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে দেখা যেত জাগদীপ ধনকারকে, ঠিক একইভাবে উত্তরবঙ্গে পা রেখেও সেই একই অভিযোগ করে সরকারকে বিদ্ধ করলেন তিনি। যা অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

পর্যবেক্ষকদের মতে, তৃতীয়বার তৃণমূল সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই হিংসা নিয়ে সরব হয়েছেন রাজ্যপাল। বারবার রাজ্য প্রশাসনের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলতে দেখা গেছে তাকে। শুধু তাই নয়, বিরোধী দলের পক্ষ থেকে হিংসা নিয়ে অভিযোগ করার পর সরকারের দিকে আরও বেশি করে প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছেন বাংলার সাংবিধানিক প্রধান। যার পরিপ্রেক্ষিতে রাজ্যের শাসক দলের সঙ্গে রাজভবনের দূরত্ব আরও বৃদ্ধি পেয়েছে।

সম্প্রতি দিল্লিতে গিয়ে রাষ্ট্রপতি হিসেবে শুরু করে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করার পরেও, বাংলার আইনশৃঙ্খলা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে দেখা গেছে জাগদীপ ধনকারকে। আর দিল্লি থেকে ফেরার পর উত্তরবঙ্গে পা রেখেই আরও একবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের বিরুদ্ধে সরব হলেন বাংলার সাংবিধানিক প্রধান। যার ফলে তৃণমূল সরকারের অস্বস্তি আরও কিছুটা বৃদ্ধি পাবে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!