এখন পড়ছেন
হোম > অন্যান্য > জানেন কি নিয়ম না জেনে ‘ভুল’ উপহার দিলেও তছনছ হয়ে যেতে পারে সম্পর্ক? হতে পারে চরম ক্ষতি?

জানেন কি নিয়ম না জেনে ‘ভুল’ উপহার দিলেও তছনছ হয়ে যেতে পারে সম্পর্ক? হতে পারে চরম ক্ষতি?



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – ভালোবাসার মানুষকে উপহার দেওয়ার রীতি প্রাচীনকাল থেকেই চলে আসছে। আপনার ভালবাসার মানুষকে তার পছন্দের উপহার দেবার পর, খুশিতে ঝলমল করে ওঠা সেই মানুষটির মুখটিকে দেখার সেই মুহূর্তের আনন্দ উপলব্ধি করেছেন নিশ্চয়ই অনেকে।।সেই সঙ্গে এমন উপলব্ধি ভবিষ্যতেও করতে চান নিশ্চয়ই।

তবে এক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে একটা জরুরী কথা। বাস্তু মতে, আমাদের জীবনে নিজেদের অপরিকল্পিত অনেক কাজের ফলে সম্পর্কে ভাঙ্গন ধরে। যদিও সে সময় বোঝা যায় না আদৌ সমস্যা ঠিক কোনখানে, কিন্তু বস্তুত নিজেদের অসাবধানতাবশত কিন্তু ভাই-বোনের মধ্যে সম্পর্কে ভাঙন লাগে।

বস্তুত, জীবনে প্রতিটা সম্পর্কের যেমন একটি আলাদা স্থান আছে, তেমনই ভাইবোনের সঙ্গে মানুষের আত্মিক সম্পর্কের যে টান তা অনুভব করেন অনেকেই। তবে কেবলমাত্র সবসময় যে এই টান রক্তের সম্পর্কের ক্ষেত্রেই গড়ে ওঠে তা নয়, বরঞ্চ রক্তের সম্পর্কের বাইরে গিয়েও এমন অনেক মানুষের সঙ্গেই ভাই বোনের সম্পর্ক গড়ে উঠতে দেখা যায়।

সেক্ষেত্রে তাদের গুরুত্ব কোনভাবেই রক্তের সম্পর্কের ভাই বোনের থেকে কোন অংশে কম হয় না। সেই সঙ্গে পারস্পরিক অনুভূতির আদানপ্রদান, ঝগড়া, খুনসুটি সবকিছুই চলতে থাকে। তবে এতকিছুর মধ্যেও আত্মীয়তার কমতি হয় না কোন অংশে। তবে এমন ভাই বোনকে উপহার দেবার ক্ষেত্রে বাস্তুমতে জেনে নেওয়া দরকার কিছু নিয়ম।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

অনেক সময় আমরা উপহার দেওয়ার ক্ষেত্রে আমরা কোন ঠাকুরের ছবি বা মূর্তি উপহার দিয়ে থাকি সেক্ষেত্রে আমরা ভাবি ঈশ্বর তাদের মঙ্গল করবে, তাদের সঙ্গে সব সময় থাকবে। কিন্তু এক্ষেত্রে ব্যাপারটা কিন্তু কিছুটা অন্যরকম বলে মনে করা হয়। কারণ, বাস্তুমতে আপনি যে ঠাকুরের ছবি বা মূর্তি উপহার দিচ্ছেন, যাকে দিচ্ছেন, তিনি যদি সেই মূর্তি বা ছবিটিকে যথাযথভাবে পূজার্চনা না করেন, তবে উভয় ক্ষেত্রেই অমঙ্গল আসতে পারে বলে মনে করা হয়। তাই এমন উপহার দেওয়ার থেকে একটু দূরে থাকাই ভালো বলে মনে করা হয়।

সেইসঙ্গে ভাই-বোনকে কখনো ধারালো কোন জিনিস উপহার দেওয়া উচিত নয়। হতেই পারে আপনার ভাই বা বোনটি রান্নায় খুব পারদর্শী অথবা যেকোন নিপুণতার কাজে পারদর্শী। সে ক্ষেত্রে তার সরঞ্জাম হিসাবে আপনি হয়তো কোন ছুরি বা কাজের সামগ্রী উপহার দিয়ে থাকতেই পারেন। তবে সেক্ষেত্রে সেই উপহার নেতিবাচক শক্তি সঞ্চার করে বলেই মনে করা হয়।

অন্যদিকে অনেকেই মাছ পছন্দ করেন। বাড়িতে অ্যাকরিয়াম না ফিস বোলে ছোট ছোট মাছ সাজিয়ে রাখেন। অনেকে সে ক্ষেত্রে ভাই-বোনকে পছন্দের মাছ বা ফিশ বোল গিফট করার আগে একবার ভেবে দেখবেন। কারণ এতে আপনাদের অমলিন সম্পর্কে চিড় ধরতে পারে বলেই মনে করা হয়। অন্যদিকে প্রতিটা মানুষেরই নিজস্ব কিছু গুণাবলী থাকে। কেউ গান গাইতে পছন্দ করেন, কেউ কবিতা লিখতে, ছবি আঁকতে। সেক্ষেত্রে তাদেরকে কখনোই পেন উপহার দেওয়া উচিত নয়।

এতে তাদের দক্ষতার অবনমন ঘটে বলেও মনে করেন অনেকে। এছাড়া ভালোবাসার মানুষকে রুমাল বা তোয়ালে, এমনকি চাবি রিং দেওয়া উচিত নয় বলেও মনে করা হয়। এগুলি উপহার দেবার ফলেও আপনাদের সম্পর্কে ভাঙ্গন ধরতে পারে বলে মনে করা হয়। তাই উপহার দেওয়ার আগে সতর্ক থাকুন। আপনাদের সম্পর্ক সুন্দর হোক অটুট থাকুক এটাই কামনা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!