এখন পড়ছেন
হোম > অন্যান্য > অ্যাজমা থেকে আলসার! সামান্য আমলকীই আপনার কিভাবে পরম বন্ধু হয়ে উঠতে পারে জানলে চমকে যাবেন!

অ্যাজমা থেকে আলসার! সামান্য আমলকীই আপনার কিভাবে পরম বন্ধু হয়ে উঠতে পারে জানলে চমকে যাবেন!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – করোনা আবহে সুস্থ থাকতে আমরা সকলেই নানা উপায় অবলম্বন করে চলেছি। কিন্তু আমাদের চেনা এমন একটি ফল যা কিনা ভিটামিন সি তে ভরপুর? জানেন না? কথা হচ্ছে আমলকীর। হ্যাঁ, ছোট সবুজ এই ফলটিকে কিন্তু দেখে বোঝার উপায় নেই যে ছোট হলেও এর মধ্যে রয়েছে এত গুণ। তবে ডাক্তারদের কথায় প্রতিদিন আপনার খাবারে এটি রাখলে মিলতে পারে অনেক রোগের থেকে উপকার। এমনকি করোনা রোগেও। জেনে নিন—

* আমলকিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টঅক্সিডেন্ট। যা আপনার শরীর থেকে টক্সিন বের করে দিতে সাহায্য করে।
* উচ্চরক্তচাপ কমাতে এর উপকারিতা লক্ষ করা যায়।
* নিয়মিত এটি খেলে লিভারের সমস্যা যেমন আলসার, বদহজম থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।
* সর্দি কাশির সমস্যা, অ্যাজমা, ব্রঙ্কাইটিসের মত সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে আমলকীর জুডি মেলা ভার।
* বয়স্ক মানুষদের দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে, দেহে রক্তসঞ্চালন স্বাভাবিক রাখতে, হার্ট ভালো রাখতেও আমলকী খাবার নিদান দেওয়া হয়।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

 এছাড়াও আরও একটি বিশেষ গুণের জন্য আমলকী খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সেটি হলো –

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে:– করোনা আবহে নিজেদেরকে রক্ষা করতে ডাক্তারদের মতে সবার আগে প্রয়োজন নিজেদের শরীরের প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানো। ভিটামিন সি এমন একটি উপাদান যা কিনা আমাদের সেই কাজে সাহায্য করে। আর সেই করতে গিয়ে আমরা ট্যাবলেট থেকে শুরু করে কি না খাচ্ছি। তবে জানেন কি আমলকী তে আছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি। যা কিনা লেবু, আপেল, আম এগুলোর চেয়ে অনেক বেশি। তবে খাবেন কি করে?

পদ্ধতি:- সেক্ষেত্রে অনেকে আমলকী জলে ফুটিয়ে খান। তবে এটিকে কাঁচা খাবারই নিদান দেন ডাক্তাররা। কারণ ফোটালে এর ভিটামিন অনেকটাই নষ্ট হয়ে যায়। সেক্ষেত্রে ছোট টুকরো করে চিবিয়ে খেতে পারেন। বা আচার কিংবা স্যালাড করেও খেতে পারেন। তবে দাঁতের সমস্যা রয়েছে যাদের, তারা রস করেও খেতে পারেন। সেক্ষেত্রে প্রথমে ছোট টুকরো করে নিন। মিক্সি তে পিষে নিন। এবার একটি আলাদা পাত্রে রস ছেঁকে নিন। টক লাগলে জল মিশিয়েও খেতে পারেন।

তাই দেরিনা করে আপনিও ট্রাই করে দেখতে পারেন। অনেকে একেত্রে উপকার পেয়েছেন। কি বলা যায়, আপনিও পেতে পারেন সুফল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!