এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > ইউজিসির নির্দেশকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে ‘সার্জিক্যাল স্ট্রাইক দিবস’ পালন করবে না রাজ্য

ইউজিসির নির্দেশকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে ‘সার্জিক্যাল স্ট্রাইক দিবস’ পালন করবে না রাজ্য



এতদিন বিশ্ববিদ্যালয়ে উন্নতি দেখভালই ছিল বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন বা ইউজিসির প্রধান কাজ। কিন্তু কালের নিয়মে সেই গন্ডি ভেদ করে এবার বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাধীকারে হস্তক্ষেপের অভিযোগ উঠল সেই ইউজিসির বিরুদ্ধে। কিন্তু কেন? কী এমন ঘটল? প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, উরি হামলার পাল্টা হিসাবে গত 2016 র 29 সেপ্টেম্বর পাক অধিকৃত কাশ্মীরে প্রবেশ করে সেখানকার সাতটি জঙ্গি লঞ্চপ্যাড ধ্বংস করে ভারতীয় সেনা। এই ঘটনাকে “সার্জিকাল স্ট্রাইক” বলে আখ্যা দিয়ে দেশের জনগনের সামনে নিজেদের সরকারকে দেশরক্ষার কাজে ব্রতী বলে জাহির করে নরেন্দ্র মোদী নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রের বিজেপি সরকার।

এবছর সেই সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের দুবছর পূর্ন হতে চলেছে। আর তাই সেই ঘটনায় সেনাবাহিনীকে শ্রদ্ধা জানাতে এবার সেই সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের দ্বিতীয় বর্ষপূর্তি মহাসমারোহে পালন করতে সমগ্র বিশ্ববিদ্যালয়গুলিকে চিঠি পাঠাল ইউজিসি। সূত্রের খবর, গত বৃহস্পতিবার এই ব্যাপারে দেশের সমস্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যকে চিঠি পাঠিয়ে কিভাবে এই সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের দ্বিতীয় বর্ষ পালন করতে হবে তা জানিয়ে দেন ইউজিসির সেক্রেটারি রজনীশ জৈন। আর এই ঘটনায় এবার কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে বিরোধী দলগুলি।

এ প্রসঙ্গে এদিন কংগ্রেস নেতা কপিল সিব্বল বলেন, “এই সার্জিক্যাল স্ট্রাইক পালনের উদ্দেশ্য সেনাবাহিনীকে সম্মান জানানো নাকি বিজেপির রাজনৈতিক স্বার্থপূরন করা?” পাশাপাশি ইউজিসির এই নির্দেশিকা নিয়ে প্রশ্নও তোলেন তিনি। অন্যদিকে এই রাজ্যে কি পালন করা হবে এই ইউজিসির পাঠানো এই ফতোয়া? এদিন সেই প্রসঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, “সেনা নিয়ে রাজনীতি করে সেই রাজনৈতিক উদ্দেশ্যেই এই ইউজিসিকে ব্যাবহার করা হচ্ছে। আমরা এই নিয়ম মানব না।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এদিকে বাংলার সরকার কেন্দ্রের এই নিয়ম না মানলে সেই ব্যাপারে কি বলছে বিজেপি? এদিন কেন্দ্রের মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী প্রকাশ জাভরেকর বলেন, “এর মধ্যে কোনো রাজনীতি নেই। পড়ুয়াদের মধ্যে দেশভক্তি বাড়াতেই এই সার্জিক্যাল স্ট্রাইক দিবস পালন করা হচ্ছে। তবে কোনোও শিক্ষা প্রতিষ্টানকে এটি করতে বাধ্য করা হয়নি।” সব মিলিয়ে এবার ইউজিসির সার্জিক্যাল স্ট্রাইক নিয়ে পাঠানো নির্দেশিকায় “না” জানিয়ে দিল রাজ্য সরকার।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!