এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > তৃণমূল বিজেপির লড়াই বদলে যাচ্ছে তৃণমূল শুভেন্দুতে, টানটান উত্তেজনা রাজনৈতিক মহলে

তৃণমূল বিজেপির লড়াই বদলে যাচ্ছে তৃণমূল শুভেন্দুতে, টানটান উত্তেজনা রাজনৈতিক মহলে



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – শুভেন্দু অধিকারী গেরুয়া শিবিরে যোগ দেওয়ার পর থেকেই তৃণমূল থেকে তাঁকে সুবিধাবাদী আখ্যা দেওয়া শুরু হয়েছে। দীর্ঘ টালবাহানার পর অবশেষে শুভেন্দু অধিকারী দল ছেড়ে গেরুয়া শিবিরে প্রবেশ করেন। সম্প্রতি বিজেপিতে যোগ দিয়েই তিনি একের পর এক আক্রমণ শানিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এবং ঘাসফুল শিবিরের প্রতি। গতকাল তৃণমূল মেদিনীপুরে এক ব্যাপক মিছিল করেছিল। যেখানে শুভেন্দু অধিকারীকে বিশ্বাসঘাতক বলে আক্রমণ করেছিলেন সৌগত রায়। আর এবার সৌগত রায়কে পাল্টা জবাব দিলেন এদিন শুভেন্দু অধিকারী।

প্রসঙ্গত, শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে দূরত্ব মেটাতে উদ্যোগী হয়েছিলেন এই সৌগত রায়। তাঁর মতে, শুভেন্দু অধিকারী বৈঠকে বসলেও শেষ পর্যন্ত অবশ্য ফল কিছুই ফলেনি। এদিন শুভেন্দু অধিকারী সৌগত রায়কে পাল্টা আক্রমণ করে বলেন, সৌগত রায় নির্বাচনে রিগিং করেছিলেন এবং তাঁকে নির্বাচনে জেতাতেই শুভেন্দু অধিকারীকে এলাকায় যেতে হয়েছিল। কিন্তু শুভেন্দু অধিকারী যখন নির্বাচনে দাঁড়িয়ে ছিলেন এবং জিতেছিলেন, তখন সৌগত রায়কে আসতে হয়নি। গতকালই সৌগত রায় শুভেন্দু অধিকারীকে বিশ্বাসঘাতক বলেছিলেন। বলেছিলেন, শুভেন্দু তাঁর নৈতিকতা হারিয়েছে। আর এদিন পাল্টা শুভেন্দু অধিকারী জবাব দিয়ে বলেন, তৃণমূল কংগ্রেসের নেতাদের কোনো রকম নৈতিকতা নেই।

পাল্টা শুভেন্দু অধিকারী এদিন চ্যালেঞ্জ ছোঁড়েন তৃণমূলের দিকে। তিনি বলেন 1998 সালে কাঁথিতে যেরকম তৃণমূল দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেছিল এবারের বিধানসভা নির্বাচনেও সেই একই ছবি উঠে আসবে। অধিকারী পরিবার যে তৃণমূল কংগ্রেসকে প্রথম স্থানে তুলে এনেছিল কাঁথিতে তা বোঝার সময় হয়ে এসেছে। আপাতত রাজ্যজুড়ে তৃণমূল এবং বিজেপির চলছে মারকাটারি রেষারেষি। গতকাল তৃণমূল কংগ্রেসের সভার পাল্টা মিছিল করে শুভেন্দু অধিকারী এদিন টানটান উত্তেজনা জিইয়ে রাখেন। সূত্রের খবর, আজকের শুভেন্দুর রোড শো চলেছে প্রায় আড়াই ঘন্টার মতন। এবং এই রোডশো থেকেই শুভেন্দু অধিকারী একের পর এক চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছেন তৃণমূলকে।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

পাশাপাশি শুভেন্দু দাবি করেন একুশের বিধানসভা নির্বাচনে 200 রও বেশি আসন পাবে বিজেপি। 2020 শেষ প্রান্তে এসে এক বাক্যে বলা যায় এই মুহূর্তে রাজ্য রাজনীতিতে অন্যতম উল্লেখযোগ্য নাম হল শুভেন্দু অধিকারী। দল থেকে বেরিয়ে গিয়ে এক ধাক্কায় নিজেকে পরিবর্তন করে তিনি যেভাবে তৃণমূলকে আক্রমণ করতে শুরু করেছেন, তা যথেষ্ট উল্লেখযোগ্য বলে মনে করা হচ্ছে। বিশেষজ্ঞরা আগেই বলেছিলেন, শুভেন্দু যদি তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যায় তাহলে অবশ্যই বিজেপির শক্তি বাড়বে।

ঠিক সেই ছবি এখন বিজেপিতে প্রকাশ পাচ্ছে। শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় শুভেন্দুকে নিয়ে ইতিমধ্যেই বিজেপি নেতারা প্রচারে যেতে শুরু করেছেন। এবং শুভেন্দু বেশ কিছু এলাকায় দলীয় কার্যবিধিও শুরু করে দিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। ফলস্বরূপ একুশের বিধানসভা নির্বাচনের লড়াই কিন্তু তৃণমূল, বিজেপি না হয়ে তৃণমূল বনাম শুভেন্দু হতে চলেছে বলে মনে করা হচ্ছে। আপাতত আগামী দিনের রাজনৈতিক যুদ্ধ যে দিনদিন জমে উঠছে, তা বলাইবাহুল্য।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!