এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > উত্তরবঙ্গে গুলিবিদ্ধ হয়ে তৃণমূল কর্মীর মৃত্যু, দুষ্কৃতী না যুব-তৃণমূল নেতা – তাই নিয়ে বিতর্ক

উত্তরবঙ্গে গুলিবিদ্ধ হয়ে তৃণমূল কর্মীর মৃত্যু, দুষ্কৃতী না যুব-তৃণমূল নেতা – তাই নিয়ে বিতর্ক



এক কুখ্যাত সমাজবিরোধী তার শ্বশুরবাড়িতে এসেছে এই খবর পেয়েই, সেই বাড়ি ঘিরে ধরেন স্থানীয় গ্রামবাসীরা। আর অবস্থা বেগতিক দেখে, সেই কুখ্যাত সমাজবিরোধী অর্জুন মন্ডল এলোপাথাড়ি গুলি ছুড়তে থাকে। তার ছোঁড়া গুলিতে ঘটনাস্থলেই মারা যান মুজিবর মিয়া বলে এক স্থানীয় তৃণমূল কর্মী। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরবঙ্গের সিতাইয়ে।

গতকাল রাত ১০ টা নাগাদ এই ঘটনা ঘটে। দিনহাটার পেটলার অর্জুন মন্ডল তার শ্বশুরবাড়ির গ্রামে এলে গ্রামবাসীরা তার শ্বশুরবাড়ি ঘিরে ধরে। তবে, অর্জুন মন্ডলের পরিচয় নিয়ে স্থানীয় স্তরে শুরু হয়েছে তীব্র রাজনৈতিক বিতর্ক। স্থানীয় তৃণমূল নেতাদেরই একাংশের দাবি, অভিযুক্ত আসলে যুব-তৃণমূল কর্মী। আর তাই, তার ছোঁড়া গুলিতে গ্রামের একজন খুন হয়ে গেলেও সে পলাতক হয়ে যেতে পারে!

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এই ঘটনার প্রতিক্রিয়ায়, মৃতের ভাই মজরুল হক মিয়া জানিয়েছে, আমি ঘটনার সময় ছিলাম না, তবে গ্রামবাসীরা একটি বাড়ি যখন ঘেরাও করে – মুজিবর সেই সময় জানালা দিয়ে উঁকি মারলে অভিযুক্ত তাকে গুলি করে ,ঘটনাস্থলেই ভাই মারা মারা যায়। মৃতের অপর ভাই আবুল ছামাদ মিয়া বলেন, আমি ঘুমিয়ে ছিলাম, গুলিবিদ্ধ হওয়ার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যাই। ঘটনাস্থলে গিয়ে – অর্জুন মন্ডল যুব তৃণমূল কর্মী বলে জানতে পারি, তার গুলিতেই মুজিবর মিয়ার মিত্যু হয়।

স্বাভাবিকভাবেই, এই ঘটনার পর তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে সিটে জুড়ে। পরিস্থিতি সামাল দিতে এলাকায় বিশাল পুলিশবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। আজ ঘটনস্থল পরিদর্শনে যান উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ, এলাকার বিধায়ক জগদীশ বসুনিয়া সহ শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের অন্যান্য শীর্ষনেতারা। এই ঘটনায় মূল অভিযুক্ত অর্জুন মন্ডল এখনো অধরা থাকলেও, সিটে থানার পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বলে জানা গেছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!