এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > হেভিওয়েট তৃণমূল বিধায়কের গলায় শুভেন্দুর ভূয়সী প্রশংসা! জল্পনা তীব্র হচ্ছে ঘাসফুল শিবিরে!

হেভিওয়েট তৃণমূল বিধায়কের গলায় শুভেন্দুর ভূয়সী প্রশংসা! জল্পনা তীব্র হচ্ছে ঘাসফুল শিবিরে!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – দলের কোর কমিটি এবং জেলা তৃণমূলের মুখপাত্র পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন। কিন্তু এখনও পর্যন্ত দল ছাড়ার কথা ঘোষণা করেননি তিনি। বর্তমান সময় পর্যন্ত তিনি উত্তরপাড়া বিধানসভা কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক। ভবিষ্যতে তিনি কী করবেন, তা এখনই কেউ বলতে পারছে না। আর এই পরিস্থিতিতে জল্পনা বাড়িয়ে দলীয় পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে বিজেপিতে চলে যাওয়া শুভেন্দু অধিকারী এবং কিছুদিন আগেই মন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা দেওয়া ডোমজুড়ের তৃণমূল বিধায়ক রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে “ভালো ছেলে” বলে সম্বোধন করলেন বিদ্রোহী তৃণমূল বিধায়ক প্রবীর ঘোষাল।

স্বাভাবিকভাবেই প্রবীরবাবুর এই ধরনের মন্তব্য এখন রীতিমত অস্বস্তিতে ফেলে দিয়েছে তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্বকে। সূত্রের খবর, আজ একটি সাংবাদিক বৈঠক করেন উত্তরপাড়ার তৃণমূল বিধায়ক প্রবীর ঘোষাল। আর সেখানেই দলের সমস্ত পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার কথা জানিয়ে দেন তিনি। তবে দলের সঙ্গে তিনি যে এখনই সম্পর্ক ছিন্ন করছেন না, তাও বুঝিয়ে দিয়েছেন প্রবীরবাবু। আর তারপরই সদ্য বিজেপিতে যাওয়া শুভেন্দু অধিকারী এবং সদ্য মন্ত্রীপদ থেকে ইস্তফা দেওয়া রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশংসা করতে শোনা যায় প্রবীর ঘোষালকে।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তিনি বলেন, “ক্ষোভ-বিক্ষোভ রয়েছে। শুভেন্দু একজন বড় সংগঠন। একথা অস্বীকার করা যায় না। রাজীব ভালো ছেলে। বৈশালী দলের সমালোচনা করেছিলেন। দল বিরোধী কিছু করেননি। সেজন্য তাকে বহিষ্কার করতে হবে?” একাংশ বলছেন, শুভেন্দু অধিকারী থেকে শুরু করে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় এবং বৈশালী ডালমিয়ার বিরুদ্ধে তৃণমূলের রীতিমত কড়া অবস্থান নিয়েছে। কিন্তু বেছে বেছে সাংবাদিক বৈঠক থেকে এই সমস্ত নেতা-নেত্রী সম্পর্কে মন্তব্য করে তাদের পক্ষ অবলম্বন করে কি শীর্ষ নেতৃত্বকে বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করলেন এই তৃণমূল বিধায়ক?

তাহলে কি এই সমস্ত নেতা-নেত্রী সম্পর্কে “ভালো” বলে তৃণমূলের সঙ্গে ভবিষ্যতে সম্পর্ক ছিন্ন করার বার্তায় এখন থেকেই দিয়ে দিলেন প্রবীর ঘোষাল? বিশ্লেষকরা বলছেন, প্রবীর ঘোষালের এই বক্তব্য থেকেই স্পষ্ট যে, তিনি ভবিষ্যতে বড় কোনো সিদ্ধান্ত নিতে চলেছেন। অর্থাৎ শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিতে চলে গেলেও যখন তাকে কার্যত আক্রমণ করছে তৃণমূলের সকল স্তরের নেতাকর্মীরা, তখন তাকেই “ভালো সংগঠক” বলে রীতিমত দলের বিড়ম্বনা বাড়িয়ে দিলেন প্রবির ঘোষাল।

পাশাপাশি বৈশালী ডালমিয়াকে দল থেকে বহিষ্কার করা হলেও সেটা যে উচিত হয়নি, তাও নিজের বক্তব্যের মধ্যে দিয়ে বুঝিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলেন এই তৃণমূল বিধায়ক। যার ফলে একাংশ আশঙ্কা করছেন, এখন বেসুরো মন্তব্য করা নেতাদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে শুরু করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। তাহলে কি এবার প্রবীর ঘোষালের এই সমস্ত মন্তব্যের জন্য তার বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার কথা জানিয়ে দেবে তৃণমূল নেতৃত্ব? কোনদিকে এগোয় গোটা পরিস্থিতি, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!