এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > তৃণমূলের দুর্দিনের সৈনিককে ব্ল্যাকমেইল করার হয়েছে বলে অভিযোগ হেভিওয়েট নেতার, জোর চাঞ্চল্য !

তৃণমূলের দুর্দিনের সৈনিককে ব্ল্যাকমেইল করার হয়েছে বলে অভিযোগ হেভিওয়েট নেতার, জোর চাঞ্চল্য !



জঙ্গলমহলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের খুঁটি শক্তিশালী করার পেছনে মূল কারিগর ছিলেন ছত্রধর মাহাতো। বিগত বাম সরকারের আমলে এই ছত্রধর মাহাতোই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার অনেকটা কাছাকাছি নিয়ে গিয়েছিল। তবে গত 2009 সালে শ্রীঘরে বন্দী হয়েছিলেন ছত্রধর মাহাতো।

অবশেষে সম্প্রতি জেল থেকে ছাড়া পেয়েছেন তিনি। আর ছত্রধরবাবু জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর, তার রাজনৈতিক ভবিষ্যত কী হবে, তা নিয়ে নানা মহলে শুরু হয়েছে জল্পনা। ইতিমধ্যেই পার্থ চট্টোপাধ্যায় তাঁর সঙ্গে দেখা করে তাকে তৃণমূলের ফেরার আহ্বান জানিয়েছেন বলে খবর। আর এই পরিস্থিতিতে এবার ছত্রধর মাহাতোকে ব্ল্যাকমেইল করা হয়েছে বলে আক্রমণ করলেন বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু।


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

সূত্রের খবর, রবিবার ঝাড়গ্রাম এলাকার মেইন রোডের ধারে চায়ের দোকানে চা খাওয়ার সময় জনসংযোগ করেন রাজ্য বিজেপির এই হেভিওয়েট নেতা। এদিন তিনি বলেন, “ছত্রধর বিজেপিতে যোগ দিতে গেলে ওকে আবার জেলে ভরে দেবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূলে যোগ দিলে বেল হবে। যোগ না দিলে জেল হবে। ছত্রধর ও তার পরিবারকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ব্ল্যাকমেইল করছেন।”

অন্যদিকে ছত্রধর মাহাতোকে তৃণমূলে নেওয়া হবে কিনা, তা নিয়ে তৃণমূলে প্রবল গন্ডগোল চলছে বলেও দাবি করেন এই হেভিওয়েট বিজেপি নেতা। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, ছত্রধর মাহাতো যদি তৃণমূলের হয়ে সক্রিয় কাজ শুরু করেন, তাহলে বিজেপিকে কিছুটা হলেও জঙ্গলমহলে ব্যাকফুটে চলে যেতে হবে‌। তাই এই পরিস্থিতিতে বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু ছত্রধর মাহাতোকে নিয়ে তৃণমূলের ভেতরকার দ্বন্দ্ব উস্কে দিয়ে তৃণমূলকে কোণঠাসা করার চেষ্টা করলেন বলেন মত রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!