এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > নিষিদ্ধ সংগঠনের বক্তার তালিকায় তৃণমূল সাংসদের নাম, অস্বস্তি ঢাকতে করলেন মামলা!

নিষিদ্ধ সংগঠনের বক্তার তালিকায় তৃণমূল সাংসদের নাম, অস্বস্তি ঢাকতে করলেন মামলা!



 

নাগরিকত্ব সংশোধনী ইস্যু নিয়ে বর্তমানে উত্তপ্ত রাজ্য তথা জাতীয় রাজনীতি। আর এরই মাঝে সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশ সরকারের তরফ থেকে পিএফআই নামে একটা সংগঠনকে নিষিদ্ধ হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছিল। কিন্তু এরপর সেই সংগঠনের রাজ্য সম্মেলনের বক্তার তালিকায় তৃণমূল সাংসদ আবু তাহের না খানের নাম থাকায় তীব্র চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছিল।

তবে প্রথম থেকেই তাকে না জিজ্ঞেস করেই তার নাম বক্তার তালিকা ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে দাবি করেছিলেন এই তৃণমূল সাংসদ। কিন্তু তৃণমূল সাংসদ যে দাবিই করুন না কেন, পাল্টা এই সংগঠনের পক্ষ থেকে তাকে জিজ্ঞেস করেই তার নাম ঢোকানো হয়েছে বলে জানানো হয়েছিল। আর এই পরিস্থিতিতে নিষিদ্ধ সংগঠনের তালিকায় সাংসদের নাম থাকায় গোটা শাসকদল যে প্রবল অস্বস্তিতে পড়বে, তা বুঝতে বাকি ছিল না কারোরই।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

 

সূত্রের খবর, এবার অস্বস্তি ঢাকতে সেই সংগঠনের বিরুদ্ধে মামলা করতে দেখা গেল তৃণমূল সাংসদ আবু তাহের খানকে। জানা গেছে, শনিবার বহরমপুর থানায় তৃণমূল সাংসদ একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। আর তৃনমূল সাংসদের এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে এখন নানা মহলে তৈরি হয়েছে নানা জল্পনা।

অনেকে বলছেন, নিজের অস্বস্তি ঢাকতে এবং দলের অস্বস্তি ঢাকতেই সেই সংগঠনের বিরুদ্ধে মামলা করে, নিজেকে স্বচ্ছ বলে দাবি করার মরিয়া চেষ্টা করছেন আবু তাহের খান। এদিন তিনি বলেন, “আমার অনুমতি ছাড়া নাম ছাপিয়ে আমার ভাবমূর্তিকে কালিমালিপ্ত করার চেষ্টা হয়েছে। তাই থানায় অভিযোগ করেছি।”

এদিকে সাংসদের অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা করে তদন্ত শুরু হয়েছে বলে জানান মুর্শিদাবাদ জেলার পুলিশ সুপার অজিত সিংহ যাদব। তবে এই ব্যাপারে পিআইএফের রাজ্য সভাপতি হাসিবুল ইসলাম বলেন, “কি মামলা হয়েছে জানি না। আবু তাহেরের সঙ্গে দেখা করে তার অনুমতি নিয়েই বক্তা তালিকায় নাম রাখা হয়েছিল। খোঁজ নিয়ে এই বিষয়ে বিস্তারিত বলব।”

কিন্তু হাসিবুল ইসলাম এই কথা বললেও, অস্বস্তি ঢাকতেই যে তৃণমূল সাংসদ আবু তাহেরকে এই মামলা দায়ের করতে হল, সেই ব্যাপারে একপ্রকার নিশ্চিত বিশেষজ্ঞরা। এখন গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে মোড় নেয়! সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!