এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > মৃত্যুভয়ে নিজের মূর্তি গড়ে তুললেন তৃণমূল বিধায়ক, জোর শোরগোল !

মৃত্যুভয়ে নিজের মূর্তি গড়ে তুললেন তৃণমূল বিধায়ক, জোর শোরগোল !



এমন ঘটনা রাজ্যে আগে ঘটেছে কিনা, তা কেউ মনে করতে পারছেন না। নিজে মরে যেতে পারেন, খুন হয়ে যেতে পারেন, তাই সেই আশঙ্কাতেই এখন বেঁচে থাকতে রীতিমত খরচ করে নিজের মূর্তি তৈরী করে ফেললেন গোসাবার তৃণমূল বিধায়ক জয়ন্ত নস্কর। জানা গেছে, নিজের দু’টি পূর্ণাবয়ব মূর্তি এবং একটি আবক্ষ ফাইবারের মূর্তি তৈরি করতে দিয়েছেন এই তৃণমূল বিধায়ক। সম্প্রতি তিনটি মূর্তি নিজের বাড়িতে নিয়ে আসেন তিনি। কিন্তু এখনও পর্যন্ত তা প্রতিষ্ঠা করেননি। তবে রাজ্যের শাসকদলের বিধায়কের এহেন ইচ্ছা কেন!

এদিন এই প্রসঙ্গে আজব তত্ত্ব খাড়া করেন গোসাবার সেই তৃণমূল বিধায়ক। তিনি বলেন, “কোথাও প্রতিষ্ঠা করার ইচ্ছা নিয়ে আমি মূর্তি বানাইনি। আমার মৃত্যুর পরে যাতে আমায় আত্মীয়-পরিজন, অনুগামীরা আমার স্মৃতির উদ্দেশ্যে কোথাও মূর্তি বসাতে চায়, সেই জন্যই বানিয়েছি। গোসাবা, বাসন্তীর মতো জায়গায় যারা রাজনীতি করেন, তাদের জীবনের মূল্য নেই। যেকোনো দিন রাজনৈতিক শত্রুর হাতে মুক্ত হতে পারে। যদি দুষ্কৃতীদের গুলিতে মরি, তাহলে কি হবে! তাই আমার মৃত্যুর পরেও যাতে নিজের লোকের অভাব বোধ না করেন, তার জন্যই এই ব্যবস্থা করেছি।”

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এদিকে তৃণমূল বিধায়কের মৃত্যু ভয়ে নিজের মূর্তি তৈরি করার এই ব্যাপারে তাকে কটাক্ষ করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। এদিন এই প্রসঙ্গে বিজেপি রাজ্য কমিটির সদস্য সুনীপ দাস বলেন, “ব্যাপারটি অমূলক নয়। তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দলের জেরে নিজের দলের সদস্যদের হাতে খুন হতে পারেন। তবে আমরা ওনার দীর্ঘায়ু কামনা করি। কারণ গোসাবা তথা বাংলা থেকে তৃণমূলের বিদায় যেন উনি নিজের চোখে দেখে যেতে পারেন।”

তবে এই ব্যাপারটি নিয়ে যতই বিজেপি কটাক্ষ করুক না কেন, সকলের কাছে এটা অত্যন্ত মুখরোচক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে যে, মৃত্যুভয়ে এখন তৃণমূল বিধায়ক নিজেই নিজের মূর্তি তৈরী করে ফেললেন‌। যা সত্যিই রাজ্য রাজনীতিতে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ এবং মুখরোচক ঘটনা হিসেবেই পরিচিত হল বলে মত ওয়াকিবহাল মহলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!