এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরে মার খেলেন স্বয়ং তৃণমূলের মহিলা বিধায়ক – তীব্র উত্তেজনা এলাকায়

গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরে মার খেলেন স্বয়ং তৃণমূলের মহিলা বিধায়ক – তীব্র উত্তেজনা এলাকায়



উন্নয়নে এরাজ্য বর্তমানে দেশের শীর্ষস্থানে রয়েছে। কিন্তু রাজ্যের সাধারন মানুষের উন্নতিতে যখন একগুচ্ছ সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঠিক তখনই তাঁর দল তৃনমূল কংগ্রেসের গোষ্টীদ্বন্দ্বেই সবথেকে বেগ পেতে হচ্ছে তাঁকে। ইতিমধ্যেই জেলায় জেলায় পঞ্চায়েতে বোর্ড গঠন ঘিরে দলের কে প্রধান হবেন তা নিয়ে তীব্র সংঘর্ষে জড়িয়েছে শাসকদলেরই একাধিক গোষ্টী।

এতদিন কর্মীদের মধ্যে সেই সংঘর্ষ সীমাবদ্ধ থাকলেও এবার তা বিধায়কের কাছেও পৌছে গেল। সূত্রের খবর, এবার গন্ডগোলের সূত্রপাত দেগঙ্গার চৌরাশি এবং আমুলিয়া পঞ্চায়েতে।  জানা যায়, 16 আসনবিশিষ্ট চৌরাশি পঞ্চায়েতে তৃনমূল 13 টি, এবং সিপিএম, ফরওয়ার্ড ব্লক ও নির্দল একটি করে আসন পায়। বোর্ড তৃনমূল গড়লেও কোন গোষ্টীর হাতে প্রধান ও উপপ্রধান থাকবে তা নিয়ে গত রবিবার রাতে এই চৌরাশির জীবনপুর এলাকায় শাসকদলের দুটি গোষ্টীর মধ্যে ব্যাপক বোমাবাজিও হয় বলে খবর। সোমবার বোর্ড গঠনে দুপক্ষের মধ্যে ফের সংঘর্ষ বাঁধলে পুলিশ গোটা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এদিকে চৌরাশিতে যখন এহেন গন্ডগোল চলছে ঠিক তখনই 14 আসনবিশিষ্ট আমুলিয়া পঞ্চায়েতে 14 টি আসন শাসকদল দখল করলেও কে প্রধান বা উপপ্রধান হবেন তা নিয়ে ছিল টানটান উত্তেজনা। জানা যায়, তৃনমূলের 14 জনের মধ্যে 7 জন একটি গোষ্টী এবং অপর 7 জন আর একটি গোষ্টীতে বিভক্ত ছিল।  গত সোমবার এই পঞ্চায়েতে বোর্ড গঠনের সময় শাসকদলের বিধায়ক রহিমা মন্ডল সেখানে এলে তাঁর ওপর হামলা করে তৃনমূলেরই একটি গোষ্টী বলে অভিযোগ। পরে অবশ্য ভোটাভুটি হলে এই প্রধান পদে 8-8 হয়ে যায়। ফলে পরে টস করলে বিধায়ক রহিমা মন্ডলেরই ঘনিষ্ট সদস্যরাই এই আমুলিয়া পঞ্চায়েতের প্রধান বা উপপ্রধান পদে নির্বাচিত হন। এদিকে তাঁর ওপর হামলা প্রসঙ্গে তৃনমূল বিধায়িকা রহিমা মন্ডল বলেন, “দলেরই এক নেতা বাইরে থেকে দলবল এনে আমার ওপর হামলা করেছে। এমনকী আমার গাড়িও ভাঙচুর করেছে।” সব মিলিয়ে প্রধান-উপপ্রধান নির্বাচনে শাসকদলের হাতে দলেরই বিধায়ক আক্রান্ত হওয়ার ঘটনায় সরগরম রাজনীতি।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!