এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > এবার তৃণমূল নেতার ছেলের বিরুদ্ধেই তরুণীর শ্লীলতাহানীর অভিযোগ, অস্বস্তিতে শাসকদল

এবার তৃণমূল নেতার ছেলের বিরুদ্ধেই তরুণীর শ্লীলতাহানীর অভিযোগ, অস্বস্তিতে শাসকদল



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –তৃণমূল নেতাদের বিরুদ্ধে এতদিন দুর্নীতি, স্বজনপোষনের নানা অভিযোগ উঠতে দেখা যাচ্ছিল। কিন্তু এবার এক তরুণীর শ্লীলতাহানীর অভিযোগ উঠল তৃণমূলের পঞ্চায়েত সদস্যের ছেলের বিরুদ্ধে। যে ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ল হাওড়ার বাঁকড়া এলাকায়। জানা গেছে, বাঁকুড়ার পশ্চিম পাড়ার বাসিন্দা 22 বছরের এক তরুণী প্রতিদিনের মত গতকাল রাতে তার কাছ থেকে বাড়ি ফিরছিলেন।

 

অভিযোগ, সেই সময় বাঁকড়া পঞ্চায়েতের তৃণমূলের সদস্য জাইদা আনসারীর ছেলে রাস্তার উপর তার শ্লীলতাহানি করে। তার জামাকাপড় টেনে ছেড়ে দেয়। পরবর্তীতে সেই তরুণী বাড়িতে ঢুকে গেলে তার বাড়িতে গিয়ে দলবল মিলে হামলা চালায় সেই তৃণমূল নেতার ছেলে। এমনকি তার পরিবারকে মেরে ফেলারও হুমকি পর্যন্ত দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। স্বাভাবিকভাবেই এই ঘটনার পরেই এলাকার মহিলারা বাঁকড়া 2 নম্বর পঞ্চায়েত অফিস ঘেরাও করে তাদের বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। যার ফলে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়।

 

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

 

সামনেই বিধানসভা নির্বাচন। তার আগে যদি তৃণমূলের পঞ্চায়েত সদস্য ছেলের বিরুদ্ধে এই রকম অভিযোগ উঠতে শুরু করে, তাহলে তো শাসকদলের আরও অস্বস্তিতে পড়বে! তাহলে কি সত্যিই তিনি এই ধরনের ঘটনার সঙ্গে যুক্ত? এদিন এই প্রসঙ্গে সেই তরুণী বলেন, “রাস্তার উপরে আমার জামা কাপড় ধরে টানাটানি করে ও ছেড়ে দেয়। ভয় পেয়ে দৌড়ে বাড়ির ভেতরে ঢুকে পড়ি আমি। এরপর দলবল নিয়ে আমার বাড়িতে ঢুকে আমার মা ও ভাইকে মারধর করে। অভিযুক্ত যুবক রাস্তায় বেরোলেই আমাকে উত্তপ্ত করে। তার ইচ্ছেতে সাড়া না দেওয়াতেই এই ঘটনা ঘটেছে।” ইতিমধ্যেই এই ঘটনায় সেই তরুণীর পরিবার থানায় লিখিতভাবে অভিযোগ করেছে বলে খবর।

 

কিন্তু কেন তিনি এই রকম ঘটনা ঘটালেন? এর ফলে তো শাসকদলের ভাবমূর্তি অনেকটাই ক্ষুন্ন হল! এদিন এই প্রসঙ্গে সেই অভিযোগ সম্পূর্ণরূপে অস্বীকার করেছেন অভিযুক্ত যুবকের বাবা তথা পঞ্চায়েত সদস্যের স্বামী মানজার আনসারী। তিনি বলেন, “মেয়েটি মিথ্যা কথা বলে আমার ছেলেকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে। শাসকদলের সদস্য হওয়ার পরেও আমরা কোনোভাবে পুলিশকে ব্যবহার করছি না।” তবে যে যাই বলুন না কেন, এই গোটা ঘটনায় শাসকদল যে এলাকায় অনেকটাই চাপে রয়েছে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এখন এই ব্যাপারে অভিযোগ জানানোর পর প্রশাসন কি পদক্ষেপ গ্রহণ করে, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!