এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > নদীয়াতে বিস্ফোরক অভিযোগে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে সদলবলে যোগ শীর্ষনেতার

নদীয়াতে বিস্ফোরক অভিযোগে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে সদলবলে যোগ শীর্ষনেতার



আসন্ন পঞ্চায়েতের আগেই বড়সড় রদবদল নদীয়া জেলার রাজনীতিতে। গতকাল, নদীয়ার তেহট্ট ২ নম্বর ব্লকের প্রাক্তন তৃণমূল সভাপতি বিশ্বনাথ ঘোষ ঘাসফুল শিবির ছেড়ে যোগ দিলেন গেরুয়া শিবিরে। বিজেপিতে যোগ দিয়ে বিশ্বনাথবাবু বিস্ফোরকভাবে জানান, ঝামেলা মিটিয়ে দিতে দলের শীর্ষ নেতৃত্বের কাছে আবেদন জানিয়েছিলাম। শীর্ষ নেতৃত্ব কথাও দিয়েছিল, কিন্তু আদতে কোনও কাজ হয়নি। দলে আমাকে কার্যত একঘরে করে রাখা হয়েছিল। তাই বাধ্য হয়েই বিজেপিতে যোগ দিলাম। এই পঞ্চায়েতে তৃণমূলকে উচিত শিক্ষা দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

কিন্তু কিসের ঝামেলা? স্থানীয় সূত্রের খবর, স্থানীয় বিধায়ক তাপস সাহার সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরেই বনিবনা নেই বিশ্বনাথবাবুর। দুজনের ফাটা সম্পর্ক জোড়া লাগেনি পঞ্চায়েত নির্বাচনের অবহেও, এমনকি বিশ্বনাথবাবুকে সম্পূর্ণ অন্ধকারে রেখেই দলের কাজ শুরু হয়েছিল আসন্ন পঞ্চায়েত-যুদ্ধে। ফলে তাপসবাবুদের নাকি ‘উচিত শিক্ষা’ দিতেই পঞ্চায়েতের মুখে নিজের অনুগামীদের নিয়ে একেবারে মোক্ষম সময়ে দল ছাড়লেন বিশ্বনাথবাবু। অন্যদিকে, বিধায়ক তাপস সাহার বক্তব্য, ‘বিশ্বনাথবাবুর দলত্যাগে বাঁচল তৃণমূল। উনি দীর্ঘদিন ধরে বিজেপির সঙ্গ যোগাযোগ রেখে চলছিলেন। দলের সমস্ত খবর বিজেপিতে সরবরাহ করছিলেন। এই অভিযোগ যে নেহাতেই অভিযোগ নয়, সত্যিই তিনি বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলতেন, তা পরিষ্কার হয়ে গেল এদিন।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!