এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ছাড় নেই কারোর! ভিন রাজ্য থেকে ফিরতেই কোয়ারেন্টাইনে প্রভাবশালী তৃণমূল নেত্রীর স্বামীও!

ছাড় নেই কারোর! ভিন রাজ্য থেকে ফিরতেই কোয়ারেন্টাইনে প্রভাবশালী তৃণমূল নেত্রীর স্বামীও!



আইন সকলের জন্য সমান। করোনা ভাইরাস আটকাতে লকডাউন হয়েছে অনেকদিন আগে। তবে বাইরে থেকে আসা মানুষরা যাতে গৃহবন্দী থাকেন, তার জন্য সরকারের পক্ষ থেকে বার্তা দেওয়া হয়েছে। যারা সেই নিয়ম মানছে না, অনেক ক্ষেত্রে পুলিশ প্রশাসন তাদেরকে সতর্ক করে দিচ্ছেন। তবে পশ্চিমবঙ্গের বিরোধী দল বিজেপির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হচ্ছে যে, তৃণমূলের নেতা-নেত্রীদের ক্ষেত্রে আইন সবসময় ফিকে হয়ে যাচ্ছে। কিন্তু বিজেপির নেতা নেত্রীরা জনপ্রতিনিধিরা মানুষকে সাহায্য করতে গেলেই তাদের কোয়ারেন্টাইনে ঢুকিয়ে দেওয়া হচ্ছে। যার ফলে তারা কাজ করতে পারছেন না। তবে বিরোধী দলের পক্ষ থেকে এরুপ অভিযোগ করা হলেও, এবার তৃণমূল নেত্রীর স্বামী বাইরে থেকে বাড়িতে ফিরতেই তাকেও কোয়ারেন্টাইনে রাখার উদ্যোগ নেওয়া হল।

সূত্রের খবর, টানা 29 দিন মহারাষ্ট্র থেকে রাস্তা হেটে বাড়ি ফিরেছেন ময়ূরহাট 2 নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের বেনালি এলাকার পঞ্চায়েতের সদস্যা তৃণমূলের খুকুমণি বৈদ্যরায়ের স্বামী নারায়ন বৈদ্য। কলকাতা পর্যন্ত প্রায় অনেকটা রাস্তা হেঁটে এসেছেন তিনি। তবে ওড়িষ্যা বর্ডার এলাকায় একটি লরিতে কিছুক্ষণের জন্য উঠতে পেরেছিলেন তৃণমূল নেত্রীর স্বামী। তারপর কলকাতায় ফিরে এক সংস্থার উদ্যোগে তাঁকে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করানো হয়।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

পরবর্তীতে তার লালা রস সংগ্রহ করে তা পাঠিয়ে দেওয়া হয় পরীক্ষার জন্য। তবে তৃণমূল নেত্রী স্বামী হওয়ায় তিনি অবাধে বিচরণ করবেন বলে সমালোচক মহলের তরফে দাবি করা হয়েছিল। কিন্তু আইন যে সকলের জন্য সমান, তা প্রমাণ হয়ে গেল। জানা গেছে, বর্তমানে তৃণমূল নেত্রীর স্বামী নারায়ন বৈদ্য হাঁসখালির দক্ষিণপাড়ায় কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে রয়েছেন। প্রাথমিকভাবে নারায়নবাবুর কোনো উপসর্গ না থাকলেও, যেহেতু বাইরে থেকে আসলে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হয়, সেহেতু তিনি এই নির্দেশ মেনে চলছেন। আর এই ঘটনাকে সাধুবাদ জানাচ্ছেন অনেকেই। একাংশ বলছেন, তৃণমূল নেত্রীর স্বামী হওয়ায় তিনি নিজের ক্ষমতার অপব্যবহার করে দাপটের সঙ্গে বাইরে ঘুরতেই পারতেন।

কিন্তু এই কাজ তিনি করেননি। উল্টে সরকারের নির্দেশিকাকে মান্যতা দিয়ে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে থেকেছেন। যা সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে। এদিন এই প্রসঙ্গে নারায়নবাবুর স্ত্রী তথা পঞ্চায়েত সদস্যা খুকুমণিদেবী বলেন, “প্রশাসন ও দিদিকে বলোতে জানিয়েছিলাম। ট্রেনের টিকিট পায়নি। হেঁটে ফিরতে বারণ করেছিলাম। কিন্তু তা না শুনে চলে এসেছে।” সব মিলিয়ে এবার ভিন রাজ্য থেকে এসে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে থেকে আইন যে সবার জন্য সমান, তা প্রমাণ করে দিলেন তৃণমূল নেত্রীর স্বামী বলে মত বিশ্লেষকদের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!