এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বর্ধমান > তৃণমূল নেতাকে মেরে জলে ফেলে দিয়ে গ্রেপ্তার দলীয় সমর্থক, কারণ নিয়ে ধোঁয়াশা

তৃণমূল নেতাকে মেরে জলে ফেলে দিয়ে গ্রেপ্তার দলীয় সমর্থক, কারণ নিয়ে ধোঁয়াশা



নেতা নেত্রীদের নির্দেশ দলীয় সংহতি বজায় রাখা হলেও গোষ্ঠীদ্বন্দ সব রাজনৈতিক দলের চিরকালীন সমস্যা। এবার গোষ্ঠীদ্বন্দ তৃণমূলে। নিজেরই দলের নেতাকে খুনের হুমকি ও ঠেলে জলে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ উঠল দলীয় কর্মীর বিরুদ্ধে। অভিযুক্তের নাম শেখ লিলন। বর্ধমান থানার বাজেপ্রতাপপুরের ডাঙাপাড়ার বাসিন্দা শেখ লিলন তৃণমূলেরই কর্মী বলে জানা গিয়েছে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

বৃহস্পতিবার রাত ১০টা নাগাদ দেওয়ানদিঘি থানার ক্ষেতিয়া অঞ্চলের তৃণমূল নেতা অশোককুমার দত্ত বাইকে চেপে বর্ধমান থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। তেঁতরাল থেকে ক্ষেতিয়া যাওয়ার রাস্তায় ১-বিসি ক্যানেল ব্রিজে কয়েকজন তাঁর পথ আটকায়।

বাইক থেকে নামিয়ে তাঁকে মারধর করে। তাঁকে খুনের হুমকি দেওয়া হয়। ব্রিজের উপর থেকে তাঁকে ঠেলে দেওয়া হয়। তিনি ১০-১২ ফুট নীচে পড়ে যান। সংজ্ঞাহীন অবস্থায় উদ্ধার করে তাঁকে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসে পুলিস। তাঁর মানিব্যাগে থাকা ৪০০০ টাকা নিয়ে নেওয়া হয় বলে পুলিসের কাছে অভিযোগ জানিয়েছেন অশোকবাবু।

এই ঘটনার পরেই শনিবার রাতে বাড়ি থেকে পুলিস শেখ লিলনকে গ্রেপ্তার করে। রবিবার ধৃতকে বর্ধমান আদালতে পেশ করা হয়। বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠিয়ে মঙ্গলবার ধৃতকে ফের আদালতে পেশ করার নির্দেশ দেন ভারপ্রাপ্ত সিজেএম। পুলিশ জানিয়েছে গোটা ঘটনার তদন্ত করেও এহেন কাজের কোন কারণ জানা যায়নি। কেন হটাত নিজের দলের নেতার বিরুদ্ধেই এই আক্রমণ তার উত্তর খুঁজছে পুলিশ।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!