এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > জোট তৈরিতে তৃণমূলের সাহায্য জরুরি,মানলেন কেন্দ্রের বিরোধীরা

জোট তৈরিতে তৃণমূলের সাহায্য জরুরি,মানলেন কেন্দ্রের বিরোধীরা



মোদি বিরোধী জোট তৈরিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের থাকা আবশ্যক, এমনই মনে করেন সোনিয়া গান্ধী। সুত্রের খবর আগামী ১ এবং ৯ ফেব্রুয়ারি খোদ কংগ্রেস দলনেত্রী সোনিয়া গান্ধী তৃণমূল নেত্রীকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। শুধু মাত্র সভাপতি রাহুল গান্ধীর ওপর ভরসা না পেয়ে সোনিয়া গান্ধী‌ নিজেই ময়দানে নেমেছেন। দলীয় সুত্রের খবর আগামী ১ ফেব্রুয়ারি কেন্দ্রীয় বাজেট পেশ হবে। আর সেই‌ দিনেই বিরোধী দল‌গুলি কে বৈঠকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে কংগ্রেস এবং ৯ ফেব্রুয়ারি অর্থাৎ বাজেট অধিবেশনের শেষ দিন কংগ্রেস সুপ্রিমোর তরফে একটি নৈশভোজের আয়োজন করা হয়েছে। আর এই‌ দুই আমন্ত্রণই পেয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে তৃণমূল তরফে জানানো হয় কর্ম ব্যস্ততার জন্য মুখ্যমন্ত্রী নিজে উপস্থিত না থাকতে পারলে তৃণমূলের প্রতিনিধিরা ওই বৈঠকে যাবেন।

আমাদের ফেইসবুক পেজে নতুন নিউস পোস্ট করতে খুব অসুবিধা হচ্ছে। সব পোস্ট করাও যাচ্ছে না। তাই দয়া করে নতুন নিউস পড়তে চোখ রাখুন আমাদের ওয়েব পেজ এ http://bengali.priyobandhu.com

তৃণমূল ছাড়া যে জোট অসম্ভব ত মেনে নিয়েছে সব বিরোধী দল। যার জেরে গত ২৬ জানুয়ারী ‘সংবিধান বাঁচাও’ পদযাত্রায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে উপস্থিত করতে তৎপর ছিলেন এনসিপি সুপ্রিমো শারদ পাওয়ার। সম্প্রতি আবার উল্টো দিকে মত প্রকাশ করলেন দেশের প্রাক্তন অর্থ ও‌ বিদেশ‌মন্ত্রী যশবন্ত সিনহাও। বর্তমানে নানা কারনে তিনি বিজেপির বিরুদ্ধে নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। গত ডিসেম্বরে তিনি এক মোদী বিরোধী মঞ্চ তৈরি করবেন বলে তিন দিন ধরে আন্দোলন চালান। আবার আজ তিনি ঘোষনা করেন যে রাজধানীতে রাষ্ট্রীয় মঞ্চ বা ন্যাশনাল‌ ফোরাম নামে একটি মঞ্চ বানাবেন। এই ‌অনুষ্ঠানে দেখা গেল দীনেশ ত্রিবেদিকে বিশেষ গুরুত্ব দিতে। এদিন দীনেশ ত্রিবেদি জানান, ” যাঁরা অবাধে কথা বলতে চান, রাষ্ট্র মঞ্চ তাঁদের জন্য। দেশের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে যাঁরা উদ্বিগ্ন, এই মঞ্চ তাঁদের প্রত্যেকের জন্য।”

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!