এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > সভাপতি বদলেও লাভ হলো না , ভাঙ্গন অব্যাহত দিনাজপুরে

সভাপতি বদলেও লাভ হলো না , ভাঙ্গন অব্যাহত দিনাজপুরে



উত্তরবঙ্গের তৃণমূলের সেফসিট হিসেবে পরিচিত বালুরঘাট লোকসভা আসনে এবার পরাজয় স্বীকার করে নিতে হয়েছে সেখানকার তৃণমূল প্রার্থী অর্পিতা ঘোষকে। আর হেরে যাবার পরই বালুরঘাটের প্রার্থী অর্পিতা ঘোষের এই হারের পেছনে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা তৃণমূল সভাপতি বিপ্লব মিত্র ও তার অনুগামীদের একাংশের হাত রয়েছে বলে দাবি করতে থাকেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের অনেকেই।

আর তার পরেই রাজ্যের সমস্ত জেলার নেতৃত্বদের নিয়ে বৈঠকে সেই দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা তৃণমূলের সভাপতি বিপ্লব মিত্রের ডানা ছেটে দিয়ে তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিপ্লব মিত্রের কাছ থেকে জেলা সভাপতির দায়িত্ব কেড়ে নিয়ে বালুরঘাটের পরাজিত তৃণমূল প্রার্থী অর্পিতা ঘোষের উপর সেই দায়িত্ব দিয়েছিলেন।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

কিন্তু তাতেও শেষ রক্ষা হলো না সেই দক্ষিণ দিনাজপুরের এবার থাবা বসলো বিজেপি। দিল্লিতে এদিন যোগ দিলেন বীরভূমের লাভপুরের বিধায়ক মনিরুল ইসলাম এবং বীরভূমের নানুরের প্রাক্তন বিধায়ক গদাধর হাজরা। পাশাপাশি দক্ষিণ দিনাজপুরে কয়েক’শ কর্মী যোগ দিলেন বিজেপিতে।

দক্ষিণ দিনাজপুরের পতিরাম এলাকায় বোয়ালদার পঞ্চায়েতের তৃণমূল প্রধান মৌসুমী রায় ও বোল্লা এলাকার সিপিআইএম-এর প্রাক্তন প্রধান বেহুলা বর্মণ ও তাঁদের প্রায় ২০০ জন কর্মী যোগ দিলেন বিজেপিতে। জানা যাচ্ছে তাদের হাতে পতিরামের শিবমন্দির এলাকায় তাঁদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন বিজেপির দুই জেলা নেতা গৌতম চক্রবর্তী ও বাপি সরকার। এদিন যোগদানকাররা বিজেপির পতাকা হাতে নিয়ে জয় শ্রীরাম ধ্বনি তোলেন বলেও জানা গেছে। তবে এই দলবদল নিয়ে এখনো মুখ খোলেন নি তৃণমূল নেতৃত্ব।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!