এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > আসন সংরক্ষণ নিয়ে চরম কোন্দল তৃনমূলে, অস্বস্তিতে তৃণমূল!

আসন সংরক্ষণ নিয়ে চরম কোন্দল তৃনমূলে, অস্বস্তিতে তৃণমূল!



কিছুদিন আগেই রাজ্যের পৌরসভাগুলোর ওয়ার্ড সংরক্ষণের খসড়া তালিকা প্রকাশ হয়েছিল। আর সেই খসড়া তালিকা প্রকাশের পর দেখা গিয়েছিল, অনেক ওয়ার্ডেই তৃণমূলের অনেক বর্তমান কাউন্সিলর দাঁড়াতে পারবে না। কেননা সেই সমস্ত ওয়ার্ড সংরক্ষণের আওতায় পড়ে গিয়েছে। যার ফলে সেই সমস্ত কাউন্সিলরদের ভবিষ্যৎ নিয়ে তৈরি হয়েছিল সংশয়। এমনকি অনেক কাউন্সিলার সেই ওয়ার্ডে দাঁড়াতে না পারায়, তাদের মনেও ব্যাপক আতঙ্ক গ্রাস করে। যার ফলে যে সমস্ত ওয়ার্ড সংরক্ষণের আওতায় পড়েনি, সেই সমস্ত ওয়ার্ডে এগিয়ে অন্যান্য কাউন্সিলর দাঁড়ানোর জন্য চিন্তা ভাবনা পর্যন্ত করে নেন। আর এবার ওয়ার্ড সংরক্ষণ নিয়ে প্রকাশ্যে এল তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দল।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি মালদহ জেলার ইংলিশবাজার পৌরসভার আসন সংরক্ষণের খসড়া তালিকা প্রকাশিত হয়েছে। যেখানে অনেক কাউন্সিলরই সংশয়ে পড়ে গিয়েছেন যে, তারা নিজের ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবেন কিনা! আর এই ঘটনাতেই এবার সরাসরি দলের একাংশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তুললেন ইংরেজবাজার পৌরসভার প্রাক্তন চেয়ারম্যান তথা 22 নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর নরেন্দ্রনাথ তিওয়ারি। যা নিয়ে তৃণমূলের ভেতরকার দ্বন্দ্ব ক্রমশ প্রকাশ্য চলে আসল বলেই মত রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের।

জানা গেছে, এই খসড়া তালিকায় 22 এবং 26 নম্বর ওয়ার্ড দুটি তপশিলি জাতির জন্য সংরক্ষণের তালিকায় পড়েছে। আর এই 28 নম্বর ওয়ার্ড গত 2015 সালে জয়লাভ করেছিলেন নরেন্দ্রনাথ তিওয়ারি। অন্যদিকে তার স্ত্রী অঞ্জু তিওয়ারি 26 নম্বর ওয়ার্ড থেকে জয়লাভ করেন। আর এই দুটি ওয়ার্ড সংরক্ষণের তালিকায় পড়ে যাওয়ায় রীতিমতো ক্ষিপ্ত হয়েছেন নরেন্দ্রনাথবাবু। ইতিমধ্যেই এই ব্যাপারে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন এই তৃণমূল কাউন্সিলর।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

শুধু তাই নয়, দলের একাংশের বিরুদ্ধে সরব হয়ে রীতিমতো পৌরসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দলও বাড়িয়ে দিয়েছেন নরেন্দ্রনাথবাবু বলে মত বিশেষজ্ঞদের। তবে নরেন্দ্রনাথবাবু এই ব্যাপারে দলের একাংশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করার অভিযোগ তুললেও, তা সম্পূর্ণরূপে মানতে নারাজ ইংরেজবাজার পৌরসভার চেয়ারম্যান তথা তৃণমূল নেতা নীহার রঞ্জন ঘোষ। এদিন তিনি বলেন, “আইন মেনেই সংরক্ষণের তালিকা তৈরি করা হয়েছে।”

একইভাবে আসন সংরক্ষণের তালিকা নিয়ে দলে কোন গোষ্ঠী কোন্দল নেই বলে জানিয়েছেন মালদহ জেলা তৃণমূলের সভানেত্রী মৌসম বেনজির নূর। তবে যে যাই বলুক না কেন, যেভাবে এই সংরক্ষণের তালিকায় তিনি এবং তার স্ত্রী বাদ পড়েছেন, তাতে তিনি যে বেজায় ক্ষুব্ধ এবং দলের একাংশের বিরুদ্ধে যেভাবে তিনি সরব হয়েছেন, তাতে পৌরসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূল ইংরেজবাজারে বড়সড় অস্বস্তিতে পড়বে বলেই দাবি রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের। এখন গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!