এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > গ্রামে জনসংযোগ বাড়াতে এবার মাঠে নামলেন তৃণমূলের এই হেভিওয়েট নেতা ও মন্ত্রী

গ্রামে জনসংযোগ বাড়াতে এবার মাঠে নামলেন তৃণমূলের এই হেভিওয়েট নেতা ও মন্ত্রী



এবারের লোকসভা নির্বাচনে সারা রাজ্যের পাশাপাশি উত্তরবঙ্গে তৃণমূলের ভরাডুবি হয়েছে। আর ফলাফল পর্যালোচনা বৈঠকে উত্তরবঙ্গের গেরুয়া ঝড়কে রুখে ঘাসফুল ফোটানোর জন্য দলীয় সংগঠনে একাধিক পরিবর্তন করেছেন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ইতিমধ্যেই হেভিওয়েট নেতা মন্ত্রী, বিধায়কদের সাধারণ মানুষের সাথে যাতে তারা আরও বেশি করে শামিল হন, তার জন্য একাধিক কর্মসূচিতেও দলকে বেধে দিয়েছেন তিনি। আর তাই এবারে পর্যালোচনায় উঠে আসা দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ব্যবধানে হারা আলিপুরদুয়ার জেলায় দলীয় সংগঠনকে ঘুরিয়ে দাঁড় করাতে বেশ কয়েকদিন ধরে আলিপুরদুয়ারে পড়ে থাকার সিদ্ধান্ত নিলেন আলিপুরদুয়ারের দলীয় পর্যবেক্ষক তথা মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

জানা গেছে, আজ রাতে আলিপুরদুয়ারে আসছেন তিনি। আগামীকাল জেলায় একটি মিছিল করে আলিপুরদুয়ার থেকে ফিরে গেলেও ফের এই মাসের মধ্যবর্তী সময়ে তিনি জেলায় এসে বিভিন্ন ব্লকের নানা কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করবেন। এদিন এই প্রসঙ্গে অরূপ বিশ্বাস বলেন, “20 জুনের আগে আমার আলিপুরদুয়ারে যাওয়ার কথা রয়েছে। টানা কয়েকদিন আলিপুরদুয়ারে থেকে জেলার বিভিন্ন ব্লকে ঘুরব।”

এদিকে অরূপ বিশ্বাস জেলার বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে অবস্থা বোঝার চেষ্টা করায় আলিপুরদুয়ার জেলার তৃণমূল কর্মীরা তাতে স্বাগত জানালেও, ভোটের আগে এটা করলে অনেকটাই সুবিধা হত বলে মনে করছেন অনেকে। তবে রাজ্য নেতৃত্ব যখনই আসেন, তখনই বিভিন্ন ব্লকে গিয়ে কর্মীদের সঙ্গে আলাপ আলোচনা করেন বলে জানিয়ে দিয়েছে জেলা নেতৃত্বরা।

এদিকে এই প্রসঙ্গে আলিপুরদুয়ার জেলা তৃণমূলের সভাপতি মোহন শর্মা বলেন, “এটা বাস্তব যে আমরা লোকসভা নির্বাচনে হেরেছি। সেখান থেকে ঘুরে দাঁড়াতে হলে দলের কোথায় কি সমস্যা তা কর্মী-সমর্থকদের সঙ্গে কথা বলে সমাধান বের করতে হবে। সেই জন্যই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।” সব মিলিয়ে এবার দলীয় সংগঠনকে ঘুরে দাঁড় করানোর জন্য গ্রামে গ্রামে জনসংযোগ বাড়াতে পথে নামতে চলেছে তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা মন্ত্রীরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!