এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > এবার কার্ল মার্কস, ফ্রেডরিক এঞ্জেলস নিয়ে লড়াই লাগলো তৃণমূল,সিপিআইএম -এ

এবার কার্ল মার্কস, ফ্রেডরিক এঞ্জেলস নিয়ে লড়াই লাগলো তৃণমূল,সিপিআইএম -এ

Priyo Bandhu Media


বেশ কয়েকদিন বাক যুদ্ধ বিরতির পরে আবার ও নতুন উদ্যোমে বাম শিবির এবং রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের মধ্যে রাজনৈতিক তরজা শুরু হলো। এদিন কোচবিহার, আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়ি জেলার লাইব্রেরিগুলির বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে রিভিউ মিটিংয়ের আয়োজন করা হয়েছিলো। এই আলোচনা সভায় অংশ গ্রহণ করেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ, গ্রন্থাগার মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী এবং ঐ তিন জেলার প্রশাসনিক কর্তা ব্যক্তিরা। এই আলোচনায় সভায় বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন রাজ্যের মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। তিনি বললেন, ” রাজ্যের বিভিন্ন লাইব্রেরি থেকে কার্ল মার্কস, ফ্রেডরিক এঞ্জেলসের বই সরানো উচিত। এমনকী, ওঁদের নামাঙ্কিত লাইব্রেরির নামও পরিবর্তন করা উচিত।”

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এদিনের আলোচনায় সভায় উপস্থিত হয়ে রাজ্যের গ্রন্থাগার মন্ত্রী এই তিন জেলায় গ্রন্থাগারের সমস্যা নিয়ে বিশদে আলোচনা করলেন। নিজের ব্যক্তিগত ভাবনা চিন্তার বহিঃপ্রকাশ করে তিনি বললেন, “মানুষকে লাইব্রেরিমুখী করে তুলতে হবে। কোনও লাইব্রেরি যাতে বন্ধ না হয় তা দেখতে হবে। প্রত্যেক জেলায় ভ্যাকান্সি আছে। তা সত্ত্বেও লাইব্রেরিকে সচল করার চেষ্টা করছি।” এরপরে আবারও গ্রন্থাগারে কী কী বই রাখা হবে , বর্তমান যুব সমাজের চাহিদা কী সেই বিষয়ে বিস্তারিত ব্যাখ্যা করে বললেন, “মার্কস, এঞ্জেলসদের বই এখনকার যুগের ছেলেমেয়েরা পড়তে চাইছে না। শুধু আলমারিটা ভরতি হয়ে রয়েছে। নতুন নতুন গবেষণার ক্ষেত্রে বিভিন্ন প্রকাশনী অনেক ভালো বই বের করছে। নবপ্রজন্মের মানুষকে সেই সমস্ত বই আরও বেশি করে পড়াতে হবে। নতুন প্রযুক্তি, কীভাবে কৃষিকাজ কম পয়সায় করা যায় এই ধরনের বইয়ের ক্ষেত্রে মানুষের চাহিদা আছে।” একই সাথে গ্রন্থাগার গুলির নাম পরিবর্তন প্রসঙ্গে রাজ্যের মন্ত্রী ভারতবর্ষের মণীষীদের নামে গ্রন্থাগার গুলির নাম পরিবর্তনের প্রস্তাব দিয়ে বললেন, “বিবেকানন্দ, বিদ্যাসাগর, নজ়রুলের নামে মানুষ লাইব্রেরি চায়। মার্কস-এঞ্জেলসের নামে কেউ লাইব্রেরি চাইছে না। তাই, নাম বদলের প্রস্তাব দিচ্ছি।” সিদ্দিকুল্লা সাহেব এই প্রস্তাব শুনে বললেন , “বিবেচনা করা হবে।”

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এদিকে গোটা বিষয় সম্পর্কে অবগত হওয়ার পরে সিপিএম’র জেলা সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্য মহানন্দ সাহা রাজ্যের মন্ত্রীর বক্তব্য প্রসঙ্গে ব্যক্তিগত ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ করে বললেন, “উনি বোধহয় জানেন না এই মুহূর্তে কার্ল মার্কসের দাস ক্যাপিটাল বইটি বিক্রির ক্ষেত্রে রেকর্ড গড়েছে। কার্ল মার্কস শ্রমজীবী মানুষের মননে আছেন। উনি কী বললেন না বললেন তাতে মানুষের কিছু যায় আসে না।”

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!