এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বর্ধমান > ভর্তির নামে টাকা নেওয়ায় বাধা দিয়ে অধ্যক্ষ হেনস্থায় আবার নাম জড়ালো ‘তৃণমূল ছাত্রনেতার’

ভর্তির নামে টাকা নেওয়ায় বাধা দিয়ে অধ্যক্ষ হেনস্থায় আবার নাম জড়ালো ‘তৃণমূল ছাত্রনেতার’

Priyo Bandhu Media


দলীয় নির্দেশই সার। ফের তৃণমূল ছাত্র পরিষদের বিরুদ্ধে ভর্তির নামে অবৈধভাবে টাকা তোলার অভিযোগ উঠল আসানসোলের ধাদকা পলিটেকনিক কলেজে। অভিযোগ, বেশ ক’দিন ধরেই তৃণমূল ছাত্র পরিষদের নাম করে এখানে কজন ছাত্র ছাত্রী ছাত্রদের কাছ থেকে টাকা তুলছিল। আর তা নিয়ে কলেজ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বহুবার তাদের বিবাদও হতে দেখা যায়। সোমবার কলেজ খোলার সাথে সাথেই ফের এই চাঁদা তোলার প্রক্রিয়া শুরু হয় আর সেখানেই প্রতিবাদ করতে গিয়ে কলেজের অধ্যক্ষ অভিজিৎ দত্ত কে রিতীমত ধাক্কাধাক্কি করে তৃণমূল ছাত্র পরিষদ বলে পরিচয় দেওয়া কিছু যুবকেরা।পরে অবশ্য ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিজেদের নিয়ন্ত্রনে নিয়ে আসে। কলেজ অধ্যক্ষ অভিজিৎ দত্ত বলেন, “অভিযুক্ত ছাত্ররা মত্ত অবস্থায় কলেজ গেটে দাঁড়িয়ে ছিল।

 

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

ভর্তির সময় গেটের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা উচিত না।আমি এর প্রতিবাদ করাতেই ওরা আমাকে হেনস্থা করে।” অপরদিকে অধ্যক্ষের করা এই সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন অভিযুক্ত অলোক সিংহ। তিনি বলেন, “কলেজের এক কর্মী অবৈধভাবে ছাত্রভর্তি করছিল।আর তার প্রতিবাদ করাতেই আমাদেরকে রুমে ঢুকিয়ে মারধর করা হয়। অনেকেরই প্রশ্ন, দলীয় নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নির্দেশ সত্ত্বেও কেন এইভাবে কলেজগুলিতে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সমর্থকদের দ্বারা টাকা তোলার অভিযোগ আসছে? এ প্রসঙ্গে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের জেলা সভাপতি কৌশিক মণ্ডল বলেন, “ওই পলিটেকনিক কলেজে আমাদের সংগঠনই নেই। তারপরেও টিএমসিপির নাম করে যারা এসব করছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেয়া হবে।” দলীয় নেতৃত্ব যাই বলুক না কেন! আসানসোলের ধাদকা পলিটেকনিক কলেজে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের বিরুদ্ধে ছাত্র ছাত্রীদের কাছ থেকে অবৈধ টাকা নেওয়ার অভিযোগে যে তারা এই জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদ চরম অস্বস্তিতে তা বোঝাই যাচ্ছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!