এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > তৃণমূলের তৃণমূল স্তরে রদবদলে আখেরে হিতে-বিপরীত হবে? আঁতকে উঠছেন মাটির কাছাকাছি থাকা নেতারা?

তৃণমূলের তৃণমূল স্তরে রদবদলে আখেরে হিতে-বিপরীত হবে? আঁতকে উঠছেন মাটির কাছাকাছি থাকা নেতারা?



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – সম্প্রতি বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে নানা জেলায় সাংগঠনিক রদবদল করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিকে জেলাস্তরে রদবদলের পরেই নীচুতলায় সংগঠনের রদবদল করতে দলের পক্ষ থেকে বিভিন্ন জেলা নেতৃত্বকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ বিভিন্ন জায়গায় ব্লক এবং টাউন নেতৃত্বে রদবদল করে আগামী দিনে নিচুতলার সংগঠনকে চাঙ্গা করাই যে তৃণমূলের কাছে এখন প্রধান লক্ষ্য, তা কার্যত স্পষ্ট হয়ে গেছে। সামনেই বিধানসভা নির্বাচন।

তার আগে নিচুতলার নেতাদের ভাবমূর্তি স্বচ্ছ করতেই এবার স্বচ্ছ ভাবমূর্তির লোকেদের ব্লক এবং টাউন সভাপতি পদে বসানোর জন্য জেলা নেতাদের নির্দেশ দিয়েছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এবং প্রশান্ত কিশোর। জানা গেছে, ইতিমধ্যেই প্রশান্ত কিশোর এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের পক্ষ থেকে 341 টি ব্লক এবং টাউন সভাপতি বদলের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যেখানে স্পষ্ট ভাষায় বলা বলে দেওয়া হয়েছে, জেলা নেতৃত্ব নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে স্বচ্ছ ভাবমূর্তির লোকেদেরই টাউন এবং ব্লক সভাপতির জন্য নির্বাচিত করবে।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

সূত্রের খবর, গত শুক্রবার উত্তর 24 পরগনা জেলা তৃণমূলের পক্ষ থেকে বিধাননগরে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। আর সেখানেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ও প্রশান্ত কিশোরের নির্দেশ মোতাবেক নেতাদের কাছে সভাপতি পদের প্রস্তাব দিয়েছিলেন জেলা তৃণমূলের সভাপতি তথা মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। তবে কর্মীরা অনেকেই যে বিধানসভা নির্বাচনের আগেই রদবদল করলে অনেকটাই প্রভাব পড়তে পারে দলের সংগঠনে, তা স্পষ্ট করে দিয়েছিলেন জেলা তৃণমূলের সভাপতির কাছে। এদিন এই প্রসঙ্গে তৃণমূল বিধায়ক বলেন, “যার নির্দেশেই ব্লক সভাপতি বদলের কথা হোক, তারা নিচুতলার বাস্তবতা বোঝেন না। কারণ রাজ্য, জেলা সাংগঠনিক পর্যায়ে রদবদল এক জিনিস নয়।

এতে সাংগঠনিক সমীকরণ বদল হয়ে যাবে। ফলস্বরুপ 2021 সালের নির্বাচনে নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে।” রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, তৃণমূলের পক্ষ থেকে সাংগঠনিক রদবদল শীর্ষস্তরে করা হলেও, বিধানসভা নির্বাচনের আগেই যদি নিচুতলায় ব্লক এবং টাউন স্তরে রদবদল অনুষ্ঠিত হয়, তাহলে বর্তমানে যারা দায়িত্বে রয়েছেন, তারা যদি সরতে শুরু করেন, তাহলে তারা পৃথক গোষ্ঠী নিয়ে নতুন করে বিড়ম্বনা তৈরি করতে পারে‌।

ফলে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব আবার আগামী বিধানসভা নির্বাচনে যদি মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে, তাহলে তাদের পক্ষে খুব একটা সুখকর হবে না। তাই প্রশান্ত কিশোর এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের পক্ষ থেকে নিচুতলায় সংগঠনের কথা বলা হলেও, তা অনেকের কাছেই পছন্দের বিষয় হচ্ছে না। ফলে গোটা বিষয় নিয়ে এবার তৃণমূলের অন্দরে টালমাটাল পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। এখন গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!