এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > রাজ্যসভায় তৃণমূল প্রার্থী কারা? দলবদলু তৃণমূলী নাকি পুরানো তৃণমূলী? জোর জল্পনা

রাজ্যসভায় তৃণমূল প্রার্থী কারা? দলবদলু তৃণমূলী নাকি পুরানো তৃণমূলী? জোর জল্পনা



এবার রাজ্য রাজনীতিতে চরম জল্পনাময় মুহূর্ত তৈরি হল। ইতিমধ্যেই রাজ্যসভার ভোটের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হয়ে গিয়েছে। ফলে বাংলা থেকে রাজ্যসভার পাঁচটি আসনে তৃণমূলের তরফে কারা প্রার্থী হবে, তা নিয়ে চরমে উঠেছে জল্পনা। এতদিন এই রাজ্য থেকে তৃণমূলের তরফে চারজন রাজ্যসভার সাংসদ ছিলেন। তারা হলেন, মণীশ গুপ্ত, যোগেন চৌধুরী, কেডি সিং এবং আহমেদ হাসান ইমরান। কিন্তু এর মধ্যে মণীশ গুপ্ত বাদে বাকি তিনজনের এবার আর প্রার্থী হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই বলেই মনে করছে তৃণমূলের ঘনিষ্ঠ মহল।

অন্যদিকে এতদিন বাংলা থেকে বামেদের ভোটে জেতা ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায় এবার নির্দল হয়ে যাওয়ায়, তাকে তৃণমূল টিকিট দিয়ে রাজ্যসভায় পাঠাতে পারে বলে দাবি একাংশের। তবে ঋতব্রত বন্দ্যোপাধ্যায় ও মণীশ গুপ্ত যদি তৃণমূলের টিকিটে রাজ্যসভায় যান, তাহলে বাকি তিনটি আসনে তৃনমূল কাকে কাকে প্রার্থী করবে, এখন তা নিয়েই তৈরি হয়েছে চরম জল্পনা।

সূত্রের খবর, রাজ্যসভায় তৃণমূলের তরফে টিকিট পেতে পারেন লোকসভায় তৃণমূলের পরাজিত প্রার্থী তথা প্রাক্তন সাংসদ দীনেশ ত্রিবেদী। অন্যদিকে রত্না দে নাগ, মৌসম বেনজির নূর এবং অর্পিতা ঘোষও রাজ্যসভায় তৃণমূলের প্রতিনিধি হতে পারেন বলে মনে করা হচ্ছে। কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে এত মহিলা মুখকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যসভায় পাঠাবেন কিনা, তা নিয়ে তৈরি হয়েছে সংশয়। তবে রত্না দে নাগ, মৌসম বেনজির নূর এবং অর্পিতা ঘোষের মধ্যে একজন যে রাজ্যসভায় যাবেন, সেই ব্যাপারে নিশ্চিত তৃনমূলের ঘনিষ্ঠ মহল। তবে এর পাশাপাশি তৃণমূলের দুই প্রবীণ নেতা সুব্রত বক্সি এবং সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের নাম নিয়ে চর্চা চলছে।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

 

কেননা গত লোকসভা নির্বাচনে সুব্রত বক্সি তৃণমূলের টিকিটে লড়েননি। অন্যদিকে বাকুড়ায় দাঁড়িয়েও পরাজিত হয়েছেন তৃণমূলের সুব্রত মুখোপাধ্যায়। তাই এই দুই অভিজ্ঞ মুখের মধ্যে একজনকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যসভায় পাঠাতে পারেন বলে মনে করা হচ্ছে। এছাড়াও তৃণমূলের যুব প্রজন্মের মুখ কর্নেল দীপ্তাংশু রায়চৌধুরীকেও রাজ্যসভায় পাঠানো হতে পারে বলে ধারণা।

এদিন এই প্রসঙ্গে তৃণমূলের এক শীর্ষ নেতা বলেন, “সব ঠিক করবেন দলনেত্রী। এখনও অনেক সময় আছে।” বিশেষজ্ঞরা বলছেন, তৃণমূলে শেষ কথা যে বলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, তা জানেন প্রত্যেকেই। কিন্তু যে নামগুলো নিয়ে আগে থেকে চর্চা হয়, তার মধ্যেই কাউকে না-কাউকে শেষ পর্যন্ত প্রার্থী করে দেন তৃণমূল নেত্রী। তাই এখন এই চর্চা হওয়া নামগুলোর মধ্যে কার কার ভাগ্য খোলে! কে কে রাজ্যসভায় তৃণমূলের টিকিটে পা রাখেন, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!