এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > তৃণমূল মহাসচিবের কড়া নির্দেশ আসতেই এবার ‘চোখে পড়তে’ কাজ শুরু তৃণমূল নেতাদের!

তৃণমূল মহাসচিবের কড়া নির্দেশ আসতেই এবার ‘চোখে পড়তে’ কাজ শুরু তৃণমূল নেতাদের!



একেই করোনার প্রকোপ তার ওপর আমফানের তাণ্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত চতুর্দিক। কার্যত শনিবার ঝাড়গ্রাম রাজবাড়ি ট্যুরিস্ট কমপ্লেক্সে দলীয় বৈঠক করে তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় নির্দেশ দিয়েছেন মানুষের ‘চোখে পড়ার’ মতো কাজ করতে হবে দলকে। সূত্রের খবর অনুযায়ী এদিন ওই বৈঠকে হাজির ছিলেন দলের জেলা, শহর ও ৮টি ব্লক স্তরের নেতা-নেত্রী, দলীয় জনপ্রতিনিধি ও দলীয় শাখা সংগঠনের নেতা-নেত্রী প্রমুখরা।

দলীয় সূত্রে খবর এদিন পার্থ চট্টোপাধ্যায় দলীয় নেতা কর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন শুধু মাত্র ত্রাণ বিলি করলেই হবে না মানুষের পাশে এমনভাবে দাঁড়াতে হবে যাতে মানুষ উপলব্ধি করতে পারে যে তৃণমূলের কর্মীরা তাদের নিজেদের লোক।

সূত্রের খবর অনুযায়ী জানা গেছে এদিন দলীয় বৈঠকে নেতারা পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের কাছে পুরভোট সংঘটনের দিনক্ষণ নিয়ে প্রশ্ন করলে মহাসচিব জানান বিধানসভা ভোটের আগে পুরভোট হওয়ার কোন সম্ভাবনাই নেই। এছাড়া এদিন মহাসচিব আরো বলেন পুরভোট না হলেও বিধানসভা ভোট আসন্ন। সুতরাং মানুষের জন্য এমন কিছু কাজ করতে হবে যাতে মানুষের চোখে পড়ে চিরকাল মনে থাকে, এমনটাই সূত্র মারফত জানা গেছে।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

করোনা মোকাবিলায় এবং পরবর্তী পরিস্থিতিতে রাজ্য প্রশাসন যেভাবে কাজ করছে তাতে অবাঞ্চিত কোন দলের যাতে হস্তক্ষেপ না পরে সে বিষয়ে নজর রাখার নির্দেশ দলের নেতাকর্মীদের এদিন তিনি দিয়েছেন বলে জানা গেছে। সূত্রের খবর অনুযায়ী জানা গেছে এদিন তিনি নির্দেশ দিয়েছেন মানুষের ছোট ছোট চাহিদা পূরণ করলে ছোট ছোট সমস্যা সমাধান করলে তা রাজনৈতিক বিষয়ে যথেষ্ট সুফল আনতে সাহায্য করবে।

জানা যাচ্ছে এদিকে মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নির্দেশ আসার সাথে সাথেই রবিবার সকাল থেকে ঝারগ্রাম এলাকার রাস্তার আগাছা পরিষ্কার করার কাজে তৃণমূল নেতাকর্মীরা সম্পূর্ণভাবে লেগে পরেছেন। দলীয় সূত্রের খবর এদিন রাস্তার ধারের বিষাক্ত পার্থেনিয়াম আগাছা সাফ করার উদ্দেশ্যে ঝারগ্রাম এর রাস্তায় নামেন ঝারগ্রাম যুব তৃনমূলের সভাপতি অজিত মাহাতো এবং তৃণমূলের শহর- কোর কমিটির সদস্য রিংকা মুখোপাধ্যায় এবং শহরের যুব তৃণমূল কর্মীরা।

সূত্রের খবর অনুযায়ী এদিন রিংকা জানিয়েছেন, ‘‘মহাসচিব মানুষের সমস্যার সুরাহা করে মানুষের পাশে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন। তাই আমরা আগাছা সাফ করতে পথে নেমেছি।’’ অন্যদিকে জেলা তৃণমূলের সভানেত্রী বিরবাহা সরেনের কথায়, ‘‘এখন রাজনৈতিক কর্মসূচি অসম্ভব। তাই মানুষের সমস্যার সুরাহা করে তাঁদের পাশে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন মহাসচিব।’’ প্রসঙ্গত জানা গেছে ঝারগ্রাম এলাকার তৃণমূলের গ্রামীন ব্লক সভাপতি শেখ নজরুলের উদ্যোগে বেশ কিছু সংখ্যালঘু শিশুকে দোকানে নিয়ে গিয়ে ঈদের নতুন পোশাক কিনে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

দলীয় সূত্রের থেকে প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানা গেছে এদিন শেখ নজরুল বলেন তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক আর্য ঘোষের নির্দেশেই সংখ্যালঘু শিশুদের জন্য নতুন জামার ব্যবস্থা করা হয়েছে এমনকি তাদের পরিবারের জন্য চাল, ডাল, মশলা ইত্যাদির প্যাকেট হাতে তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে ঝারগ্রাম এর বিরোধীদের মধ্যে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের দেওয়া নির্দেশ নিয়ে ব্যাপক আলোচনার ঝড় উঠেছে বলে জানা গেছে।

প্রাপ্ত সূত্রের খবর থেকে জানা গেছে এদিন ঝারগ্রাম এর বিজেপি সাংসদ কুনার হেমব্রম শাসক দলের দিকে তোপ দেগে বলেছেন,‘‘রেশনের বিলি-বন্টন নিয়ে সমস্যা রয়েছে। পরিযায়ী শ্রমিকদের অনেকেই হেঁটে কিংবা সাইকেলে বাড়ি ফিরছেন। অনেকে গ্রামে ঢুকতে পারছেন না। আগাছা পরিষ্কার না-করে মানুষের চোখে পড়ার মতো এই কাজগুলি তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা করুন। তাতে মানুষের অনেক উপকার হবে।’’

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!