এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > তৃনমূল বিজেপি সংঘর্ষে আহত ৮

তৃনমূল বিজেপি সংঘর্ষে আহত ৮



তৃনমূলের সঙ্গে বিজেপির গোষ্ঠী সংঘর্ষে উত্তপ্ত সারেঙ্গা। ঘটনাটি ঘটে সারেঙ্গার সুখডালি এলাকায় । বিজেপি সূত্রে অভিযোগ করা হয়েছে, শনিবার রাতে সারেঙ্গা ১মণ্ডলের সভাপতি বিষ্ণু গড়াই সহ আট জন কর্মী দলীয় কার্যালয় বন্ধ করে বাড়ি ফেরার পথে, সুখডালি বাজারে তৃনমূলের একদল কর্মী-সমর্থক ঘেরাও করে তাঁদের। এরপর, রড, লাঠি দিয়ে চলে বেধড়ক মারধর। ঘটনায় আহত হয়েছেন বিজেপির ওই ৮ কর্মী। তার মধ্যে সুদাম গড়াই,দেবাশিস মন্ডল,ও রোমেন গড়াইয়ের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাঁদের বাঁকুড়া মেডিক্যাল কলেজে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। বাকিদের সারেঙ্গা খ্রিস্টীয় সেবানিকেতনে চিকিৎসাধীন।

যদিও এই ঘটনার কথা অস্বীকার করেছে স্থানীয় তৃনমূল। তাঁদের পাল্টা অভিযোগ বিজেপি কর্মীরা ওই রাতে তৃনমূল সমর্থকদের ওপর চড়াও হয়। ধস্তাধস্তির জেরে আহত হয়েছে কয়েকজন। এ বিষয়ে সারেঙ্গা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি ধীরেন্দ্রনাথ ঘোষ জানান, এ অভিযোগ সম্পুর্ন ভিত্তিহীন। উল্টে সুখডালি বিজেপি পার্টি অফিসের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় তৃনমূলের এক কর্মীকে হেনস্থা করা হয়। তাঁকে জোর করে বিজেপির পতাকা লাগাতে বাধ্য করা হয়। পাশাপাশি তিনি দাবি করেছেন, এই ঘটনাকে ঘিরে বিজেপি- তৃনমূল দুই গোষ্ঠীর বচসা শুরু হয়। দুপক্ষের ঠেলাঠেলিতে লোকজন চোট পেয়েছেন।
যদিও এই বক্তব্যের পাল্টা প্রক্রিয়া এসেছে বিজেপির তরফে। বিজেপির বাঁকুড়া সংগঠনিক জেলার সভাপতি বিবেকানন্দ পাত্র জানিয়েছেন, স্থানীয় তৃনমূল নেতাদের নেতৃত্বে পরিকল্পিত ভাবে আমাদের কর্মীদের উপরে হামলা হয়েছে। এলাকায় বিজেপির ভিত মজবুত হচ্ছে বলে বিজেপির কর্মীদের ছত্রভঙ্গ করতে চাইছে শাসকদল।বিজেপির কর্মীদের ওপর হামলা হচ্ছে পার্টি অফিস ভাঙচুর আগুন লাগিয়ে দেওয়া হচ্ছে। সবই শাসকদলের কারসাজি।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!