এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > নিজের নীতিতেই কি ফাঁসছে দল? অভ্যন্তরীণ রিপোর্টে চোখ কপালে শাসকদলের

নিজের নীতিতেই কি ফাঁসছে দল? অভ্যন্তরীণ রিপোর্টে চোখ কপালে শাসকদলের



“বিধানসভা, পৌরসভা বা পঞ্চায়েত সর্বত্র শাসকদল তৃনমূল দল ভাঙ্গাতে শুরু করেছে।” দীর্ঘদিন ধরেই রাজ্যের বিরোধীদের তরফ থেকে এই অভিযোগ উঠে আসছিল রাজ্যের শাসকদলের বিরুদ্ধে। তৃনমূল সূত্রের খবর, বিরোধীদের এই অভিযোগকে সত্যি করে সম্প্রতি পঞ্চায়েত নির্বাচনেও যেভাবে বিরোধীশূন্য করার ডাক দেওয়া হয়েছিল তাতে যে জনমানসে খুব একটা ভালো প্রভাব পড়েনি তা বেশ বুঝতে পেরেছেন দলের নেতারা।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

 

আর তাই বিভিন্ন জেলা থেকে পঞ্চায়েত ভোটের ফলাফলের রিপোর্টে সেই আশঙ্কা দেখা দিতেই আরও বেশি করে প্রতিটি জেলার নেতাদের জনসংযোগের নির্দেশ দিয়েছে তপসিয়ার তৃনমূল ভবন। দলের অনেকে এও মনে করছেন, এবারের পঞ্চায়েতে 70% আসনে নিজেদের আধিপত্য বজায় রেখেছিল তারা। তবে দুই 24 পরগনা, পূর্ব মেদিনীপুর ও পশ্চিম বর্ধমানে সরকারের বিপুল উন্নয়নে জয় নিশ্চিত হলেও শুধুমাত্র বিরোধী দলের প্রতি “চমকানো” মনোভাবের জন্যই এই জেলাগুলিতে ঘাসফুল কিছুটা হলেও দুর্বল হয়েছে। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, গায়ের জোরে নয়, এবার জনসংযোগকে হাতিয়ার করেই পরবর্তী নির্বাচনগুলিতে জিততে হবে শাসকদলকে। ইতিমধ্যেই জেলাস্তরে সেই নির্দেশও পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে দলের তরফে। সব মিলিয়ে পঞ্চায়েতের ফলাফল সম্পর্কে বিভিন্ন জেলার রিপোর্ট পাওয়ার পর নিজেদের জনমোহিনী ভাবমূর্তিকেই কাজে লাগাতে চাইছে তৃনমূল কংগ্রেস।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!