এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > খুনের মামলায় অভিযুক্ত হয়ে ফেরার তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি পঞ্চায়েতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী

খুনের মামলায় অভিযুক্ত হয়ে ফেরার তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি পঞ্চায়েতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী



খুনের মামলায় অভিযুক্ত হয়ে পুলিশের খাতায় প্রায় এক বছর  ফেরার হবার পরেও গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে হলফনামা জমা দিয়ে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ীও হয়েছেন তিনি। আর এইসবই চলছিল গোপনে। সম্প্রতি রাতের অন্ধকারে পুলিশ সুপার ও জেলাশাসকের অফিসের সামনে টাঙিয়ে দেওয়া দুটি ফ্লেক্সে এমনই সব তথ্য প্রকাশ্যে আসায় তীব্র চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে কোচবিহার জেলাজুড়ে।

জানা গেছে, যাকে নিয়ে এত বিতর্ক সেই তৃনমূল  নেতা মির মহিরুদ্দিন কোচবিহার শহর সংলগ্ন টাকাগছ অঞ্চলের শাসকদলের সভাপতি। খুনের মামলায় তিনি বছরখানেক ধরে ফেরার হওয়া সত্তেও কিভাবে তিনি পঞ্চায়েতে হলফনামা জমা দিলেন তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সম্প্রতি কোচবিহারে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান কলেজ ছাত্র মাজিদ আনসারি। আর এই খুনে অভিযুক্তদের ছবি দিয়ে ফ্লেক্স তৈরি করে গোটা শহরে সাঁটিয়ে দেওয়া হয়। সেই সময়ই সাগর দিঘি পাড়ে মহিরুদ্দিনের ছবি সহ ফ্লেক্স টাঙিয়ে ওই অভিযোগ তোলা হয়। অভিযোগ, মাজিদ খুনে ষড়যন্ত্রের অভিযোগে ধৃত মূন্না খানের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে মীর মহিরুদ্দিনের।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে।

অনেকে মনে করছেন, তৃনমূলেরই একটি গোষ্টী ওই ফ্লেক্স টাঙিয়েছে। এদিকে ফেরার হয়েও কিভাবে পঞ্চায়েতে হলফনামা জমা দিলেন! সেই প্রসঙ্গে এদিন কোচবিহারের জেলাশাসক কৌশিক সাহা বলেন, “কেউ তথ্য গোপন করে হলফনামা জমা দিলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার আইন রয়েছে।” অপরদিকে এব্যাপারে কোচবিহারের পুলিশ সুপার ভোলানাথ পাণ্ডে বলেন, “মহিরুদ্দিন ফেরার। তল্লাশি চলছে। তার পরেও কীভাবে তিনি হলফনামা জমা দিলেন তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।” এদিকে এমন ঘটনা প্রকাশ্যে আসায় অস্বস্তিতে শাসকদল তৃনমূল কংগ্রেসও।

কোচবিহার জেলা তৃনমূল সভাপতি তথা রাজ্যের উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ বলেন, “মামলার বিষয়ে কিছু বলতে চাই না। পুলিশ তদন্ত করে দেখছে।” সব মিলিয়ে মাংস বিক্রেতা রফিকুল ইসলামকে খুনের পর একবছর ধরে ফেরার হলেও কোচবিহারের শাসকদলের নেতা শেখ মহিরুদ্দিন পঞ্চায়েত ভোটে হলফনামা দাখিল ও জয়ী হওয়ায় সর্ষের ভেতরেই ভূত দেখছেন অনেকে।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!