এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > দলীয় পতাকাকে সামনে রেখে অশ্লীলতা করা যাবে না: কড়া বার্তা টিএমসিপিতে

দলীয় পতাকাকে সামনে রেখে অশ্লীলতা করা যাবে না: কড়া বার্তা টিএমসিপিতে



দলীয় পতাকাকে সামনে রেখে কলেজ সোশ্যাল বা নবীন বরণের সময় বা অন্য কোনো জনসভায় অশালীন আচরণ দেখলেই প্রশাসনের শাস্তির মুখে পড়তে হবে। উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের এমন সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দিতে বলা হল তৃণমূল কংগ্রেস ছাত্র পরিষদের (টিএমসিপি) জেলা সভাপতিদের।

শুধু জানানো নয়,রীতিমতো হুঁসিয়ারী দিয়ে টিএমসিপি রাজ্য সভাপতি তৃণাঙ্কুর ভট্টাচার্যের-”দলীয় পতাকাকে সামনে রেখে অশ্লীলতা করা যাবে না। দলের বদনাম হয় এমন কোনও কাজ বরদাস্ত করা হবে না। ভালো কাজ করলে দল পুরস্কৃত করবে, খারাপ কাজে শাস্তি অনিবার্য।”

সাধারণত দেখা যায়,কলেজ স্যোশাল বা নবীন বরণের সময় দলীয় পতাকার সামনেই অসচেতনভাবে মাতাল অবস্থায় উদ্দাম,অশ্লীল নাচ করা হচ্ছে। বেশিরভাগ সময় কলেজের সংসদই এরকম ধরনের আচরণ করে সংবাদ শিরোনামে এসেছেন। এই ধরণের আচরণে লাগাম টানতেই এদিন উওর পঞ্চান্নগ্রামের দলীয় ভবনে সমস্ত জেলা সভাপতি এবং রাজ্য কমিটির সদস্যদের নিয়ে প্রশাসনের উদ্যোগে একটি বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছিল।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন তৃণমূল মহাসচিব তথা পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়, টিএমসিপি-র প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি বৈশ্বানর চট্টোপাধ্যায় ও টিএমসিপি-র নবনিযুক্ত রাজ্য সভাপতি তৃণাঙ্কুর ভট্টাচার্য। সেখানে জেলাস্তরের শীর্ষ নেতৃত্বকে সামনে রেখে তৃণাঙ্কুর ভট্টাচার্য তৃণমূল ছাত্র শাখার উদ্দেশ্যে এই সতর্কতার বার্তা দিলেন।

প্রসঙ্গত,সম্প্রতি তৃণাঙ্কুর ভট্টাচার্যকে সামনে রেখে ১৭ টি জেলায় পুরানো কমিটি ভেঙে নতুন করে ছাত্র শাখার জেলা ও রাজ্য স্তরের কমিটি গড়া হয়েছে। সেই নতুন রাজ্য ও জেলাস্তরের কমিটির সদস্যদের নিয়েই তৃণমূল ভবনে বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছিল। সেখানে যৌথ উদ্যোগে আলোচনার মাধ্যমে অনেকগুলি রাজনৈতিক বিষয় সামমে উঠে আসে।

সংগঠনের শক্তি বৃদ্ধি করার পরামর্শ দেন ছাত্র রাজনীতির অভিজ্ঞ ব্যক্তিত্ব বৈশ্বানর চট্টোপাধ্যায়। আলোচনায় উঠে আসে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছাত্র রাজনীতির অভিজ্ঞতার প্রসঙ্গও। এদিন বৈঠকে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ও ছাত্র সংসদের প্রতিনিধিদের রাজনীতির পাঠ পড়ান। বলেন,ছাত্র রাজনীতি করতে হলে আচরণটাও ছাত্রসুলভ হতে হবে। ছাত্র রাজনীতি সম্পূর্ণটাই আলাদা জিনিস। মূল স্রোতের রাজনীতি থেকে একদমই আলাদা। কোনোভাবেই সেই রাজনীতির স্রোতে নিজেকে মিশে গেলে চলবে না।

এদিনের বৈঠকে ‘চয়েস বেসড ক্রেডিট সিস্টেম’ নিয়েও আলোচনা হয়। অর্থাৎ হিউম্যানিটিজের বিষয় নিয়ে অনার্স নির্বাচন করে সোশ্যাল সায়েন্স হিসাবে মৌলিক বিজ্ঞানের বিষয় পাশ কোর্সে নিতে পারবে। এ ব্যাপারে পাঠ পড়াতে বিশেষজ্ঞদের দিয়ে বিশেষ প্রশিক্ষণ ব্যবস্থাও করার ব্যাপারে আলোচনা হয়েছে। তাঁর বক্তব্য,বহুদিন এ ব্যাপারে আলোচনা করা হলেও পরিকাঠামোর অভাবে সেটি এতোদিন বাস্তবে প্রয়োগ করা যায়নি। আগামী দিনে যাতে উচ্চ শিক্ষার্থীরা পছন্দমতো বিষয় বেছে নিতে পারেন,সেদিকে গুরুত্ব দিতে চাইছে প্রশাসন।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

বৈঠকের পাশাপাশি তৃণমূল কংগ্রেস ছাত্র পরিষদের জেলা সভাপতিদের হাতে হাজারটি করে ছাত্রশাখার পতাকা এবং ফ্লেক্স তুলে দেওয়া হয়। এইসব পতাকা এবং ফ্লেক্স কলেজে টিএমসিপি-র জনপ্রিয়তা বাড়ানোর কাজে লাগানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে প্রশাসনের তরফ থেকে। এখন প্রশাসনিক নির্দেশ মতো কাজ হয় কিনা সেটাই দেখার!

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!