এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > অবশেষে বোধোদয়! বাম পার্টি অফিস ভেঙে তৃণমূলী করায় নিন্দায় সরব তৃণমূলেরই বিধায়ক

অবশেষে বোধোদয়! বাম পার্টি অফিস ভেঙে তৃণমূলী করায় নিন্দায় সরব তৃণমূলেরই বিধায়ক



রাজ্যে ক্ষমতায় আসার পরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দলীয় কর্মীদের নির্দেশ দিয়েছিলেন অন্যের পার্টি অফিস দখল না করে নিজের পার্টি অফিসের রবীন্দ্র-নজরুলের ছবিটা নিয়ে রাজনৈতিক কর্মসূচি সারতে। কিন্তু দিন যত বদলেছে ততই দলনেত্রীর সেই নির্দেশকে উপেক্ষা করে বিরোধীদের পার্টি অফিস দখল করার অভিযোগ উঠেছে শাসকদলের কর্মীদের বিরুদ্ধে।এবার ফরওয়ার্ড ব্লকের দলীয় কার্যালয় দখলের অভিযোগ উঠেছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। আর যে ঘটনায় তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়েছে কোচবিহারে।

সূত্রের খবর, গত মঙ্গলবার গভীর রাতে কোচবিহারের এক নম্বর ওয়ার্ডে ফরওয়ার্ড ব্লকের অফিসে হামলা চালায় তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী সমর্থকরা। অভিযোগ, তাদের কার্যালয়ে থাকা টেলিভিশন, আলমারি, চেয়ার-টেবিল ইত্যাদি ভাঙচুর করার পাশাপাশি সেখানে তৃণমূলের দলীয় পতাকা ও স্থানীয় বিধায়ক মিহির গোস্বামীর ছবি সম্বলিত ফ্লেক্স ঝুলিয়ে দেওয়া হয়। আর এই ঘটনাকে ঘিরে ফের উত্তপ্ত হতে শুরু করে জেলার রাজনীতি। রাতের অন্ধকারে এইভাবে দলীয় অফিস দখল করায় কোতোয়ালি থানায় অভিযোগ জানিয়ে অভিযুক্তদের গ্রেফতার করার দাবিতে সরব হয়েছে অন্যান্য বামদলগুলি।

এদিন এ প্রসঙ্গে ফরওয়ার্ড ব্লক নেতা দেবাশীষ বণিক বলেন,”তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা এলাকায় অশান্তি সৃষ্টি করার জন্য এই কাজ করেছে।” কিন্তু বিরোধী দলের পার্টি অফিস দখল করে এইভাবে তার ছবি টাঙিয়ে দেওয়া আদতে তো দলনেত্রীর আদর্শেরই বিরোধিতা? এদিন এ প্রসঙ্গে তৃণমূল বিধায়ক মিহির মিহির গোস্বামী বলেন ,”এ ঘটনা নিন্দনীয়।আমি পুলিশকে বলেছি দোষীদের খুঁজে বার করে উপযুক্ত ব্যবস্থা নিতে। আসলে তৃণমূল কংগ্রেসকে কলুষিত করতেই কেউ বা কারা পরিকল্পনামাফিক এই ঘটনা ঘটানো হয়েছে।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

পাশাপাশি এই ঘটনা জানার সাথে সাথে পরে সেই ফরওয়ার্ড ব্লকের কার্যালয় থেকে তৃণমূলের পতাকা খুলে ফেলারও নির্দেশ দিয়েছেন মিহির গোস্বামী। রাজনৈতিক মহলের মতে, ক্ষমতায় আসার পরেরাজ্যের বিভিন্ন অঞ্চলের শাসক দলের তরফে বিরোধীদের পার্টি অফিস দখল হলেও নেতারা কোন পদক্ষেপ নেননি, কিন্তু কোচবিহারে সেই বিরোধী ফরওয়ার্ড ব্লকের দলীয় অফিস দখলের অভিযোগ আসতেই তা মুক্ত করে এ যেন রাজনৈতিক সৌজন্যতারই পরিচয় দিলেন তৃণমূল বিধায়ক মিহির গোস্বামী।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!