এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > বিজেপি > তিন বছর বিজেপিতে ‘পদহীন’ মুকুলকে ‘সান্ত্বনা’ দিচ্ছেন নেতারা? জল্পনা বাড়িয়ে তৃণমূল সাংসদ!

তিন বছর বিজেপিতে ‘পদহীন’ মুকুলকে ‘সান্ত্বনা’ দিচ্ছেন নেতারা? জল্পনা বাড়িয়ে তৃণমূল সাংসদ!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – একটা সময় তৃণমূল দলের সেকেন্ড-ইন-কমান্ড ছিলেন তৃণমূল নেতা মুকুল রায়। পরবর্তীকালে তৃণমূল দলের সঙ্গে মতবিরোধের কারণে তিনি তৃণমূল দল ত্যাগ করেছেন ও যোগদান করেছেন বিজেপি দলে। গতকাল বিজেপির রাজ্য পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয় বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের প্রতি একাধিক প্রশংসা বাণী দান করলেন।

গতকাল শুক্রবার বিজেপির পক্ষ থেকে সারা রাজ্য জুড়ে ‘গণতন্ত্র বাঁচাও বাংলা বাঁচাও’ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছিল। এই কর্মসূচির সভামঞ্চ থেকেই বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা ও সেই সঙ্গে রাজ্য বিজেপির পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয় বিজেপি নেতা মুকুল রায়কে বাংলার রাজনীতির চাণক্য বলে সম্মানিত করলেন। সেই সঙ্গে তিনি জানালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে মুখ্যমন্ত্রী করেছিলে তিনিই, আর এবার তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলকে অপসারিত করে বিজেপিকে ক্ষমতা ভুক্ত করবেন।

এ প্রসঙ্গে কৈলাস বিজয়বর্গীয় আরো জানালেন যে, গত ২০০১ সালে পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক পট পরিবর্তনের মূল নায়ক ছিলেন মুকুল রায়ই। রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল মূলত তাঁর প্রচেষ্টা দ্বারাই বিগত ৩৪ বছর ব্যাপী বাম শাসনের অবসান ঘটাতে পেরেছিল। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তিনিই মুখ্যমন্ত্রী করেছিলেন, তিনিই আবার পরিবর্তন আনতে চলেছেন। এই পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে বাংলা শাসন ক্ষমতা দখল করতে চলেছে বিজেপি।

মুকুল রায়ের প্রতি কৈলাস বিজয়বর্গীয় জানান, মুকুল রায় তৃণমূল ছেড়ে যাবার পর তার বিরুদ্ধে অন্তত ৫০ টি মামলা দায়ের করা হয়েছে শাসক দলের পক্ষ থেকে। এ প্রসঙ্গে তিনি বললেন, ” মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভুলে যাচ্ছেন যিনি বানাতে পারেন, তিনি নামাতেও পারেন। মুকুল রায় বাংলার রাজনীতির চাণক্য, তিনিই মমতাকে মুখ্যমন্ত্রী নিয়েছিলেন।”

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এরপর গতকালের কৈলাস বিজয়বর্গীয়র মুকুল রায়ের প্রতি বিভিন্ন বক্তব্যের প্রত্যুত্তর করলেন তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়। মুকুল রায়ের প্রচেষ্টাতেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মুখ্যমন্ত্রী হতে পেরেছেন কৈলাস বিজয়বর্গীয় মন্তব্যকে তিনি বালখিল্য এবং হাস্যকর বলে মন্তব্য করলেন।

তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায় কৈলাস বিজয়বর্গীয় সম্পর্কে জানালেন, ” উনি উড়ে এসে জুড়ে বসেছেন, বাংলা নিয়ে কিছু জানেন না। ২০১১-তেও তিনি ছিলেন না, ২০১৬-তেও ছিলেন না। মুকুল রায় তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে গিয়ে তিন বছর কোনও পদ না পেয়ে হতাশ হয়ে পড়েছেন। তাই হতাশ মুকুলকে সান্ত্বনা দিতে ওই কথা বলছেন কৈলাশ।”

এ প্রসঙ্গে তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায় জানালেন যে, তৃণমূল থেকে সমস্ত কিছু লাভ করেছিলেন মুকুল রায়। সম্মান, পদমর্যাদা, মন্ত্রিত্ব কোন কিছুই তাঁর অধরা ছিল না। মুকুল রায়কে দলের উচ্চপদ প্রদানের পাশাপাশি রেলমন্ত্রী পর্যন্ত করা হয়েছিল। কিন্তু সেই দীর্ঘ তিন বছর ধরে বিজেপিতে থেকেও পদহীন। এ প্রসঙ্গে তার মন্তব্য, ” তিনবছর হয়ে গেল বিজেপিতে গিয়েছেন। কিন্তু কোনও পদই জোটেনি। তাই পদ দিতে না পেরে মর্যাদা দেওয়ার চেষ্টা করছেন। সবই ভোটের জন্য।”

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!