এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > অনুব্রত গড়ে সহস্রাধিক কর্মী-সমর্থক বিজেপিতে নিয়ে বড়সড় ভাঙ্গন ধরালেন মুকুল রায়

অনুব্রত গড়ে সহস্রাধিক কর্মী-সমর্থক বিজেপিতে নিয়ে বড়সড় ভাঙ্গন ধরালেন মুকুল রায়



তৃণমূল কংগ্রেস ত্যাগ করে বিজেপিতে যোগ দিয়েই মুকুল রায় দাবি করেছিলেন তৃণমূলের সংগঠন আসলে ‘কসমেটিক’, ‘উইয়ের ঢিপি’ – একটু নাড়া দিলেই ঝুরঝুর করে খসে পড়বে। কিন্তু তাঁর হাত ধরে সেভাবে কেউ ‘বড় নামের’ নেতা আসেননি। আর তাই তাঁর ‘টার্গেট’ এখন তৃণমূলের নীচুতলার নেতা-কর্মী-সমর্থক। আর এই কাজে আজ তিনি বড়সড় সাফল্য এনে দিলেন রাজ্য বিজেপিকে। তাঁর হাত ধরে বীরভূম জেলার সহস্রাধিক নেতা-কর্মী আজ বিজেপি শিবিরে যোগ দিলেন। তার থেকেও বড় কথা, বিজেপি সূত্রে দাবি করা হচ্ছে, শুধু কর্মীরা নন আজ হাতে গেরুয়া পতাকা তুলে নিলেন বীরভূমের কড়েয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান প্রণব মণ্ডল ও নলহাটি পুর এলাকায় তৃণমূল যুব সভাপতি আবাউল্লা শেখ।
এছাড়াও বিজেপির তরফ থেকে আরো দাবি করা হচ্ছে, বীরভূমের আলিগড়, কালিপুর, কীর্নাহার, নলহাটি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকা থেকেও তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন সহস্রাধিক কর্মী। আর এই সব নেতা কর্মীরা বিজেপির পতাকা তুলে নেওয়ার পর, বিজেপি নেতা মুকুল রায় জানান, তৃণমূলের আমলে পঞ্চায়েত গুলিতে কোনও কাজই হয়নি। পঞ্চায়েতগুলিতে শুধু সিন্ডিকেটরাজ চলছে। সাধারণ মানুষ কোনও পরিষেবা পাচ্ছে না। সেই কারণেই প্রধান-উপপ্রধানরা দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন। এইভাবে তৃণমূল ফোঁপরা হয়ে যাবে। এখন কিছু বুঝতে পারছে না তৃণমূল। ভোটের ফলাফল প্রকাশের পরই বুঝবে তৃণমূল কত ধানে কত চাল।

আপনার মতামত জানান -

Top
Facebook Friends
error: Content is protected !!