এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই দলবদল কর্মসূচীর অভিযোগ শাকদলের বিরুদ্ধে, প্রতিবাদে মুখর বিরোধীরা

স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই দলবদল কর্মসূচীর অভিযোগ শাকদলের বিরুদ্ধে, প্রতিবাদে মুখর বিরোধীরা



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – করোনা আবহের মধ্যেই বর্তমানে দেখা যাচ্ছে, শাসক শিবিরে দলবদলের ঢল নেমেছে। রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় একের পর এক দলবদলের ঘটনা শোনা যাচ্ছে। বোঝাই যাচ্ছে, একুশের আগে রাজ্যে শাসকদলের শক্তি অনেকটাই বেড়ে উঠছে। অন্যদিকে বিরোধীরা অভিযোগ তুলছে, রাজ্যের শাসক শিবির তাঁদের মিটিং মিছিল করতে করোনা পরিস্থিতিতে বাধা দিলেও নিজেরা কিন্তু বহাল তবিয়তে মিটিং মিছিল করে বিভিন্ন জায়গায় জমায়েত করছে। আর এই নিয়েই বর্তমানে কাজিয়া চলছে শাসক ও বিরোধী দলের।

সম্প্রতি চাকুলিয়ার সমসপুরে তৃণমূল জমায়েত করে দলবদল কর্মসূচি পালন করেছে বলে অভিযোগ করছে বিরোধী শিবির। এই নিয়েই ফরওয়ার্ড ব্লক বিধায়ক আলি ইমরান রমজ যাকে সবাই একডাকে চেনে ভিক্টর বলে, তিনি এবার অভিযোগ করলেন, করোনা আবহের মধ্যে সরকারি নির্দেশিকা উড়িয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় না রেখে তৃণমূল শিবির বহাল তবিয়তে জমায়েত করে যোগদান কর্মসূচি চালাচ্ছে। যদিও তৃণমূলের পক্ষ থেকে এই অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে পুরোপুরি।

অন্যদিকে শাসক দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, রবিবার চাকুলিয়া এলাকায় সিপিএম, ফরওয়ার্ড ব্লক, বিজেপি এবং কংগ্রেস থেকে প্রায় 2 হাজার নেতা, কর্মী ও সমর্থক তৃণমূল শিবিরে যোগদান করেছেন। এই যোগদান কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রী গোলাম রব্বানী ও জেলা তৃণমূল সভাপতি কানাইয়ালাল আগরওয়াল। অন্যদিকে তৃণমূল জানিয়েছে, এদিন দলবদল করে তৃণমূলে যোগ দিলেন চাকুলিয়ার সিপিএম নেতা তথা এরিয়া সম্পাদক আব্দুস সামাদ কাদরী তাঁর একঝাঁক অনুগামীসহ। তবে জানা গেছে, কাদরী এই মুহূর্তে করোনায় আক্রান্ত।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

যদিও তিনি ভিডিও কলের মাধ্যমে দলে যোগ দিয়েছেন বলে জানানো হয়েছে তৃণমূলের পক্ষ থেকে। তৃণমূল অবশ্য যাই বলুক না কেন, বিরোধীদের পক্ষ থেকে গুরুতর অভিযোগ উঠেছে। এদিন ফরওয়ার্ড ব্লক বিধায়ক ভিক্টর জানান, দলে যোগ দেওয়ার কথা বলার জন্য কাদরির বাড়িতে গিয়েছিলেন গোলাম রাব্বানী এবং কানাইলাল আগরওয়াল। এমনকি ওই কর্মসূচিতে কাদরির পরিবারের লোকজনও ছিলেন বলে জানা যাচ্ছে। এবং সেখানেই বিরোধীদের পক্ষ থেকে অভিযোগ উঠেছে, দুই নেতা কিভাবে এইরকম দায়িত্বজ্ঞানহীনতার পরিচয় দিলেন? অন্যদিকে অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে তৃণমূলের চাকুলিয়া ব্লক সভাপতি আমিনুর আরফিন আজাদ জানিয়েছেন, সমস্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে এদিন দলের কর্মসূচি পালন হয়েছে।

সবার হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে মাস্ক এই কর্মসূচিতে। এমনকি অসুস্থ মানুষের সঙ্গে দেখা করলেও স্বাস্থ্যবিধি মেনে গোলাম রাব্বানী এবং কানাইলাল আগরওয়াল দূর থেকে কথা বলেছেন। তবে এ প্রসঙ্গে বিশেষজ্ঞদের মতে, যেকোন কারণেই হোকনা কেন, করোনা বিধি যদি না মানা হয়, তাহলে কিন্তু রোগ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা অনেক বেড়ে যাবে। এক্ষেত্রে অবশ্যই শাসকদলের দিকেই অভিযোগের আঙুল উঠবে। অন্যদিকে রাজনৈতিক মহলের একাংশের দাবি, একুশের বিধানসভা নির্বাচনের আগে যেভাবে তৃণমূলে দলবদল হচ্ছে, তা আটকাতেই বিরোধীদের এই অভিযোগ। আপাতত রাজ্যজুড়ে শাসক-বিরোধী তরজা তুঙ্গে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!