এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > স্বাস্থ্যসাথী নিয়ে নবান্নের নির্দেশে ঘুম উড়ছে বেসরকারি হাসপাতাল ও নার্সিংহোমের

স্বাস্থ্যসাথী নিয়ে নবান্নের নির্দেশে ঘুম উড়ছে বেসরকারি হাসপাতাল ও নার্সিংহোমের



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – নির্বাচনের প্রাক্কালে স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পকে জনপ্রিয় করে জনতা জনার্দনের মনজয়ে সচেষ্ট হয়েছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল। গত নভেম্বর মাসে মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেছিলেন যে, রাজ্যের সমস্ত মানুষকে স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের আওতাভুক্ত করা হবে। এরপর দুয়ারে সরকার প্রকল্পের মাধ্যমে স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড বিতরণ শুরু হয়ে গেছে। কিন্তু স্বাস্থ্যসাথী কার্ড থাকা সত্বেও চিকিৎসা পরিষেবার না পাওয়ার অভিযোগ উঠেছে একাধিক বেসরকারি হাসপাতাল ও নার্সিং হোম থেকে। এবার এ বিষয়ে এক বড়োসড়ো হুঁশিয়ারি দিল রাজ্য সরকার। রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পে রোগীকে ফিরিয়ে দিলে, লাইসেন্স বাতিল করে দেয়া হবে সংশ্লিষ্ট হাসপাতাল বা নার্সিং হোমের।

কিছুদিন ধরেই রাজ্যের বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতাল ও নার্সিং হোম থেকে স্বাস্থ্যসাথী কার্ড থাকার পরেও রোগী ফিরিয়ে দেওয়ার অভিযোগ একাধিকবার উঠে আসছিল। অভিযোগ উঠেছে, স্বাস্থ্যসাথীর বৈধ কার্ড থাকা সত্ত্বেও চিকিৎসা পরিষেবা থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে মানুষকে। বারবার এই ধরণের অভিযোগ শোনার পর, এ বিষয়ে পদক্ষেপ নেয় প্রশাসন। এরপর বিভিন্ন হাসপাতাল, নার্সিংহোমের মালিকপক্ষের সঙ্গে প্রশাসনের শীর্ষ কর্তাদের বৈঠক বসে। এরপর আজ এ বিষয়ে এক বিশেষ নির্দেশিকা জারি করা হলো নবান্ন থেকে।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

আজ রাজ্যের স্বাস্থ্য অধিকর্তা এক বিজ্ঞপ্তি জারি করেছেন। যেখানে তিনি স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছেন যে, এবার থেকে যে সমস্ত হাসপাতাল বা নার্সিংহোম স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের রোগীকে ফিরিয়ে দেবে, তাদের লাইসেন্স বাতিল করে দেয়া হবে। এই বিজ্ঞপ্তিতে পরিষ্কার ভাবে জানানো হয়েছে যে, কোনো উপযুক্ত কারণ ছাড়া যদি স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের আওতাধীন রোগীদের হাসপাতালে ভর্তি করা না হয়, তাহলে এই অভিযোগ আসার পর, তার তদন্ত করা হবে। তদন্ত করে লাইসেন্স বাতিল করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেবে রাজ্য সরকার।

প্রসঙ্গত কিছুদিন আগেই স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পে বরাদ্দ বাড়িয়ে দিয়েছে রাজ্য সরকার। কারণ, কিছু বেসরকারি হাসপাতালের অভিযোগ ছিল, স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পে যে অর্থ বরাদ্দ করা হয়েছে, বেশকিছু চিকিৎসার ক্ষেত্রে তা যথেষ্ট নয়। কিন্তু অর্থ বরাদ্দ বাড়িয়ে দেবার পর, মুখ্যমন্ত্রীর বারবার হুঁশিয়ারি দেবার পরও বেশ কিছু বেসরকারি হাসপাতাল, নার্সিংহোম থেকে রোগী ফিরিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিল। তাই এবার এ বিষয়ে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করল রাজ্য সরকার।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!