এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > বিজেপি > শুভেন্দু দল ছাড়া শুধু সময়ের অপেক্ষা! – জল্পনা বাড়িয়ে দাবি বিজেপি নেতার

শুভেন্দু দল ছাড়া শুধু সময়ের অপেক্ষা! – জল্পনা বাড়িয়ে দাবি বিজেপি নেতার



আপনাদের সুবিধার্থে খবরের শেষে বিধানসভা ২০২১ উপলক্ষে আমাদের করা সর্বশেষ সমীক্ষার প্রতিটির লিঙ্ক দেওয়া আছে।

আপনার মতামত জানান -

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – বর্তমানে শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে ব্যাপক জল্পনা তৈরি হয়েছে গোটা রাজ্যজুড়ে। মনে করা হচ্ছে, তিনি তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করতে পারেন। তবে এখনও পর্যন্ত এই ব্যাপারে শুভেন্দু অধিকারীর তরফে কোনো স্পষ্ট বার্তা দেওয়া হয়নি। উল্টে রামনগরের সভা থেকে তিনি জানিয়ে দিয়েছিলেন, তিনি এখনও তৃণমূল কংগ্রেসে আছেন। স্বভাবতই তার এই বক্তব্যে কিছুটা হলেও জল্পনা কমতে শুরু করেছিল।

কিন্তু এবার বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়র শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে আরেকটি বক্তব্য নিঃসন্দেহে জল্পনা তৈরি করল গোটা বাংলা জুড়ে। সূত্রের খবর, শনিবার রামনগরে দাঁড়িয়ে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয় জানিয়ে দিলেন, শুভেন্দু অধিকারীর দল ছাড়া শুধুই সময়ের অপেক্ষা।

স্বাভাবিকভাবেই বিজেপির সর্বভারতীয় নেতার মুখ থেকে শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে এই ধরনের কথা প্রকাশ্যে আসায় এখন নতুন করে গুঞ্জন তৈরি হতে শুরু করেছে। তাহলে কি শুভেন্দুবাবু সম্পর্কে তাদের কাছে সুনির্দিষ্ট খবর রয়েছে! আর তাই এদিনের সভায় সেই ব্যাপারে মন্তব্য করলেন বিজেপির কেন্দ্রিয় পর্যবেক্ষক! তা নিয়ে তৈরি হয়েছে প্রশ্ন।

জানা যায়, এদিন রামনগরের রেলস্টেশন মাঠে বিজেপির পক্ষ থেকে একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। আর সেখানেই শুভেন্দু অধিকারী সম্পর্কে মন্তব্য করেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়। তিনি বলেন, “দিদি এখন আত্মবিশ্বাস হারিয়ে ফেলেছেন। দল পরিচালনার দায়িত্ব বহিরাগত সংস্থাকে দিয়েছেন। তৃনমূল এখন দিদির পার্টি নয়। তৃণমূল আর মুকুলদার নয়। তৃণমূল শুভেন্দু অধিকারীর নয়। শুভেন্দু এখন দলকে বিদায় জানাতে প্রস্তুত।”

আর রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রীকে নিয়ে যখন জল্পনা চরম আকার ধারণ করছে, তখন শুভেন্দু অধিকারী সম্পর্কে বিজেপির কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষকের এই ধরনের মন্তব্য বড়সড় সমীকরণের ইঙ্গিত বলেই মনে করা হচ্ছে। একাংশের প্রশ্ন, তাহলে কি বিজেপির কাছে খবর রয়েছে যে, শুভেন্দু অধিকারী তৃণমূল ত্যাগ করতে পারেন? আর তাই রামনগরের মাটি থেকে কিছুদিন আগে তিনি এখনও তৃণমূলে আছেন বলে জানিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী, সেই রামনগরের মাটি থেকেই পাল্টা নিজের বক্তব্যের মধ্য দিয়ে কৈলাস বিজয়বর্গীয় বুঝিয়ে দিতে চাইলেন যে, শুভেন্দু অধিকারী এবার কে করতে চলেছেন।

কিন্তু যদি কৈলাশ বিজয়বর্গীয়র এই মন্তব্য সত্যি হয়, তাহলে বিধানসভা নির্বাচনের আগেই শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিতে যোগদান করলে বিজেপি যে অনেকটাই শক্তি বৃদ্ধি হবে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। কেননা প্রায় সকলেই জানেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পর তৃণমূল কংগ্রেসে যদি কারও সবথেকে বেশি জনপ্রিয়তা থেকে থাকে, তাহলে তার নাম শুভেন্দু অধিকারী। তাই তাকে নিয়ে যখন জল্পনা ক্রমশ ঊর্ধ্বমুখী, তখন কৈলাশ বিজয়বর্গীয়র এই মন্তব্য ব্যাপক আলোড়ন ফেলে দিলো বলেই মনে করা হচ্ছে।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

বস্তুত, সাম্প্রতিককালে বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে একটি বিস্ফোরক মন্তব্য করেছিলেন। যেখানে তিনি জানিয়ে দিয়েছিলেন, বিজেপিতেই আসতে চলেছেন শুভেন্দু অধিকারী এবং যেদিন শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিতে যোগ দেবেন, সেদিন সরকার ভেঙে যাবে। আর তারপরই কৈলাস বিজয়বর্গীয়র এই ধরনের মন্তব্য শুভেন্দু অধিকারীর বিজেপিতে যোগদানের পথকে আরও প্রশস্ত করেছিল বলেই মনে করা হচ্ছে। তবে শুভেন্দু অধিকারী কোনোমতেই বিজেপিতে যোগ দেবেন না বলে দাবি করছে তৃণমূল কংগ্রেস।

এদিন এই প্রসঙ্গে এক তৃণমূল শীর্ষ নেতা বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে শুভেন্দুর কোনো ক্ষোভ নেই। দলের কিছু নেতার কাজে তিনি অসন্তুষ্ট‌। দিদি একবার ওনার সঙ্গে ভালোভাবে কথা বললেই শুভেন্দু দল ছাড়বে না। শুভেন্দু আমাদের দলের সম্পদ। আমরা তাকে যেতে দিতে পারি না। ওর প্রচুর জনসমর্থন। বিধানসভা ভোটের আগে ও দল ছাড়লে তৃণমূল সমস্যায় পড়বে।”

কিন্তু তৃণমূলের পক্ষ থেকে এই সহজ সত্যটা উপলব্ধি করা হলেও, যেভাবে শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে দাবি করতে শুরু করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি, তাতে গোটা পরিস্থিতি কার্যত ঘোরালো হয়ে উঠছে বলেই মনে করা হচ্ছে। যদি সত্যি সত্যিই শুভেন্দু অধিকারী বিজেপির কথামত দলত্যাগ করেন, তাহলে তার প্রভাব তৃণমূল কংগ্রেসে যে ব্যাপকভাবে পড়বে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। সব মিলিয়ে গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

 

একনজরে দেখে নিন আমাদের সর্বশেষ বিধানসভা ২০২১ ওপিনিয়ন পোল –

# মালদহ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# উত্তর দিনাজপুরে জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# জলপাইগুড়ি ও কালিম্পঙ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# আলিপুরদুয়ার ও দার্জিলিং জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# কুচবিহার জেলার ওপিনিয়ন পোল –

আপনার মতামত জানান -
আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!