এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ‘আমি’ হল সর্বনাশের মূল! প্রকাশ্যে নিজের গড়েই শুভেন্দু অধিকারীর বিবৃতি নিয়ে রাজ্য জুড়ে ঝড়!

‘আমি’ হল সর্বনাশের মূল! প্রকাশ্যে নিজের গড়েই শুভেন্দু অধিকারীর বিবৃতি নিয়ে রাজ্য জুড়ে ঝড়!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –কথায় আছে, শব্দ ব্রহ্ম। আর রাজনীতিতে সেই শব্দ যে ব্রহ্মের থেকেও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে, তা বলাই বাহুল্য। এমনিতেই তাকে নিয়ে ব্যাপক জল্পনা তৈরি করেছে। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের উত্থান ঘটলেও, তার মত দক্ষ সাংগঠনিক ব্যক্তিত্বকে কেন ভালো জায়গা দিল না তৃনমূল, তা নিয়ে নানা মহলে তৈরি হয়েছে প্রশ্ন। আর জল্পনা বানিয়ে শুভেন্দু অধিকারীকে সেভাবে দল কিংবা সরকারের কোনো কর্মসূচিতে উপস্থিত থাকতে দেখা যাচ্ছে না।

অনেকে বলছেন, তিনি নতুন দল গঠন করতে পারেন। আবার অনেকে বলছেন, তিনি বিজেপিতে যোগদান করতে পারেন। আর এই পরিস্থিতিতে শুভেন্দু অধিকারীর একটি মন্তব্য নিঃসন্দেহে ঝড় তুলে দিল বঙ্গ রাজনীতিতে। এদিন “আমি আমি করা সর্বনাশের মূল” বলে একটি মন্তব্য করেন রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী। স্বাভাবিকভাবেই বর্তমান পরিস্থিতিতে যখন তিনি দল কিংবা সরকারের কোনো কর্মসূচিতে উপস্থিত হচ্ছেন না, তখন তার এই ধরনের মন্তব্য ব্যাপক গুঞ্জন সৃষ্টি করেছে গোটা বাংলা জুড়ে।

সূত্রের খবর, এদিন নিউ দীঘা মহিলা কল্যান প্রতিষ্ঠান ভগিনী নিবেদিতার 153 তম জন্মতিথি উদযাপনের আয়োজন করা হয়েছিল। আর সেখানেই উপস্থিত হয়ে বক্তব্য রাখেন রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। সেখানে তিনি বলেন, “কেন আমি আপনাদের সকলকে অভিনন্দন জানাচ্ছি! তার কারণ কেউ একক শক্তিতে কোনো কাজ করতে পারে না। এটা স্বামী বিবেকানন্দ বলে গিয়েছিলেন। তিনি বলে গিয়েছিলেন, “আমি আমি হল সর্বনাশের মূল। আমরা আমরা যারা করে, তারাই টিকে থাকে।”


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

আর বর্তমান পরিস্থিতিতে শুভেন্দু অধিকারীর এই ধরনের মন্তব্য কাকে উদ্দেশ্য করে, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না বলেই মনে করছেন একাংশ। অনেকে বলেছেন, নন্দীগ্রামে আন্দোলনের মধ্য দিয়ে উত্থান ঘটেছিল এই শুভেন্দুবাবুর। তার পরবর্তীতে তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় আসার পর যেখানে যেখানে শাসকদল বিপদে পড়েছে, সেখানে মুশকিল আসানের কাজ করেছেন শুভেন্দু অধিকারী। অনেকে বলেন, তৃণমূলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পর যার জনপ্রিয়তা তৈরি হয়ে থাকে, তাহলে তিনি শুভেন্দু অধিকারী।

কিন্তু সেই শুভেন্দু অধিকারী তৃণমূলে খুব একটা গুরুত্বপূর্ণ জায়গা পাননি। আর তারপর থেকেই তার রাজনৈতিক পদক্ষেপ নিয়ে তৈরি হয়েছিল জল্পনা। আর এমত পরিস্থিতিতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় তৃণমূলের অলিখিত সেকেন্ড-ইন-কমান্ড হলেও, শুভেন্দু অধিকারীর গুরুত্ব কমে আসায় তার অনুগামীরা অনেকটাই ক্ষুব্ধ বলে মনে করা হচ্ছে। স্বাভাবিকভাবেই এমন অবস্থায় সেই শুভেন্দু অধিকারী “আমি আমি” ত্যাগ করার কথা বলে তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্বের দিকেই কি প্রশ্ন ছুড়ে দিলেন! এখন সেই নিয়ে জল্পনা তৈরি হয়েছে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মধ্যে।

বিশ্লেষকদের একাংশ বলেছেন, যদি শুভেন্দু অধিকারী এই ধরনের মন্তব্য তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্বকে বার্তা দেওয়ার জন্য করে থাকেন, তাহলে তা আগামীদিনে তৃণমূলের কাছে বড় চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়াবে। কেননা এমনিতেই শুভেন্দুবাবু ভবিষ্যতে কি করবেন, তা নিয়ে ব্যাপক সংশয় তৈরি হয়েছে। বিভিন্ন জেলাতে “আমরা দাদার অনুগামী” বলে তার ছবি এবং নাম দিয়ে পোস্টার ছাপা হচ্ছে। সেদিক থেকে সেই পোস্টারে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তৃণমূল কংগ্রেসের কোনো প্রতীক নেই।

তাই এমত পরিস্থিতিতে শুভেন্দু অধিকারী একটি অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে যেভাবে “আমি আমি সর্বনাশের মূল” বলে দাবি করলেন, তাতে তিনি এই মন্তব্য তৃণমূলের একাংশকে উদ্দেশ্য করেই করেছেন বলে দাবি করছেন সমালোচক মহল। সব মিলিয়ে শুভেন্দু অধিকারীর এই মন্তব্যকে কেন্দ্র করে এবার রাজনীতিতে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। এখন গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!