এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > কোন পথে আসবে কাঙ্খিত জয়? কর্মীদের সেই মন্ত্রই মুর্শিদাবাদে শিখিয়ে দিলেন শুভেন্দু অধিকারী

কোন পথে আসবে কাঙ্খিত জয়? কর্মীদের সেই মন্ত্রই মুর্শিদাবাদে শিখিয়ে দিলেন শুভেন্দু অধিকারী



অতীতে বারে বারে মুর্শিদাবাদের মাটিতে পা রেখে এখানকার কংগ্রেসের দাপুটে নেতা হিসেবে পরিচিত অধীর রঞ্জন চৌধুরী কে লোকসভা নির্বাচনে পরাস্ত করার জন্য চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিতে দেখা গিয়েছিল মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূলের পর্যবেক্ষক তথা মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীকে।

আর এবার নির্বাচনের দামামা বাজার পরই শুক্রবার মুর্শিদাবাদের দলীয় প্রার্থী আবু তাহের খানের সমর্থনে প্রচার সভায় জনকল্যাণ ময়দান থেকে ফের বিরোধীদের উদ্দেশ্যে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন রাজ্যের এই হেভিওয়েট মন্ত্রী। পাশাপাশি আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে কিভাবে দলীয় প্রার্থীর হয়ে জয় ছিনিয়ে আনতে হবে সেই বার্তাও এদিন দলীয় কর্মী সমর্থকদের দেন শুভেন্দুবাবু।

তিনি বলেন, “6 মাস আগে এখানে পঞ্চায়েত ভোট হয়েছে, দুবছর আগে ডোমকল পুরসভার ভোট হয়েছে। তাই ডোমকল থেকে আসন্ন লোকসভায় আমরা 50 হাজার ভোটের লিড আশা করছি। পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে বিরোধীরা অনেক সমালোচনা করেছে। কিন্তু মাথায় রাখবেন তৃণমূল মানুষের হৃদয়ে আছে। তাই যেখান থেকে যে পুলিশই আসুক না কেন, কোনো চিন্তা করবেন না। ইনশাস, এসএলআর, একে 47 – যাই নিয়ে আসুক, এই ভোট মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভোট। বিজেপিকে যদি কেউ রুখতে পারেন তার নাম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাই আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে মুর্শিদাবাদ লোকসভা কেন্দ্রে আমাদের প্রার্থী আবু তাহের খানকে ভোট দিন।”


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এদিকে এদিনের সভা থেকে মুর্শিদাবাদের কংগ্রেস প্রার্থী আবু হেনা এবং সিপিএম প্রার্থী বদরুদ্দোজা খানের সমালোচনা করে শুভেন্দু অধিকারী বলেন, “আবু হেনা দীর্ঘদিনের বিধায়ক ছিলেন। একটি ইটেও তার নাম নেই। ভোটের সময় শুধু তাকে দেখা যায়। আর সিপিএম প্রার্থী 5 বছর ধরে এখানকার সাংসদ, তাকে কোনদিনও সংসদে দেখা যায়নি। তাই এই জেলায় এবার আমি কংগ্রেসের বড় নেতাকে হারাবই। উনি বিজেপির এজেন্ট হয়ে কাজ করছে‌ন।”

রাজনৈতিক মহলের মতে, কংগ্রেসের বড় নেতা বলতে এখানে অধীর চৌধুরীকেই বুঝিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। অন্যদিকে এবারের নির্বাচনে জিতলে বাকি উন্নয়নমূলক কাজগুলো করার দায়িত্ব আমি নিজের কাঁধে তুলে নিলাম বলে জানান মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূলের পর্যবেক্ষক শুভেন্দুবাবু। আর জেলা পর্যবেক্ষকের মুখ থেকে এহেন কথা শুনে প্রবল উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়েন তৃনমূলের কর্মী-সমর্থকরা।

এদিকে এদিনই মুর্শিদাবাদের তৃণমূল প্রার্থী আবু তাহের খানের সমর্থনে করিমপুরের বাথানপাড়ায় কলাহাটের মাঠেও একটি জনসভা করে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে প্রবল ভাষায় তোপ দাগেন শুভেন্দু অধিকারী। যেখানে উপস্থিত ছিলেন নদীয়া জেলা তৃণমূলের সভাপতি গৌরীশঙ্কর দত্ত, কৃষ্ণনগর লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী মহুয়া মৈত্র সহ অন্যান্যরা।

সব মিলিয়ে এবার মুর্শিদাবাদে ঘাসফুল ফোটাবেন লোকসভা নির্বাচনের আগে দলীয় কর্মীদের উজ্জীবিত করতে একদিকে বিরোধীদের তুলোধোনা, আবার অন্যদিকে কিভাবে জিততে হবে সেই ফর্মুলা দিয়ে মাতিয়ে দিলেন মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূলের পর্যবেক্ষক তথা রাজ্যের মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!