এখন পড়ছেন
হোম > অন্যান্য > সুপ্রীম কোর্টের বাতিল হওয়া ধারা এই রাজ্যে এখনও বর্তমান, মামলার জেরে বিপাকে অধ্যাপক

সুপ্রীম কোর্টের বাতিল হওয়া ধারা এই রাজ্যে এখনও বর্তমান, মামলার জেরে বিপাকে অধ্যাপক



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – বাতিল হওয়া আইনের হাত ধরে এখনো পর্যন্ত বিপর্যস্ত হতে হচ্ছে ভূতপূর্ব মামলার বিচারাধীনকে। আর এই নিয়ে শুরু হয়েছে সমালোচনা। কার্যত দেশে তথ্যপ্রযুক্তি আইনের 66 এ ধারাটি বিলুপ্ত হয়ে গিয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ, এই ধারায় আর কাউকে গ্রেপ্তার করা যাবেনা। দেশের সমস্ত রাজ্যের, সমস্ত থানায় এই সংক্রান্ত চিঠি পাঠানো হয়েছে। কিন্তু তা সত্বেও জানা যাচ্ছে, এ রাজ্যে এখনো 66 এ ধারায় অন্তত 37 টি মামলা বিচারাধীন অবস্থায় রয়েছে। যার মধ্যে অম্বিকেশ মহাপাত্রর বিরুদ্ধে কার্টুন মামলা অন্যতম। 2012 সালে একটি কার্টুন এঁকে তৃণমূল সরকারের রোষানলে পড়ে ছিলেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন অধ্যাপক অম্বিকেশ মহাপাত্র।

সে সময় তাঁর বিরুদ্ধে এই 66 এ ধারায় মামলা করা হয়। এবং অম্বিকেশ মহাপাত্র ও তাঁর এক বন্ধু সুব্রত সেনগুপ্তকে ভারতীয় দণ্ডবিধির 114, 500 এবং 509 ধারার 66 এ সহ গ্রেফতার করা হয়। অম্বিকেশ মহাপাত্রের বিরুদ্ধে ওঠা বেশিরভাগ অভিযোগ খারিজ হয়ে গেলেও এই মামলাটি এখনো পর্যন্ত নিষ্পত্তি হয়নি। ইতিমধ্যেই বিচারপতিদের একটি বেঞ্চ ‘‌পিপলস ইউনিয়ন ফর সিভিল লিবার্টিজ’‌ নামে একটি এনজিও জনস্বার্থ মামলার পরিপ্রেক্ষিতে কেন্দ্রে নোটিশ জারি করে। ওই জনস্বার্থ মামলার আইনজীবী আদালতে জানিয়েছিলেন, বাতিল হয়ে গেলেও এখনও এই ধারায় বেশকিছু মামলা নথিভুক্ত রয়েছে।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

পনেরোই জুলাই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের পক্ষ থেকে সমস্ত রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে তথ্যপ্রযুক্তি আইনের 66 এ ধারার অধীনে নথিভূক্ত মামলাগুলি প্রত্যাহারের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। অম্বিকেশ মহাপাত্রর বিরুদ্ধে পুলিশ আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেওয়ার পর তাঁর সমস্ত অভিযোগ খারিজ হয়ে যায়। রয়ে যায় শুধুমাত্র এই 66 এ ধারার মামলাটি। দীর্ঘ টালবাহানার পর সুপ্রিম কোর্টের রায় অনুসারে মামলাটি খারিজ করা যায় কিনা তা নিয়ে একটি আবেদন করা হয়েছিল। কিন্তু সেই আবেদনেও নিম্ন আদালত কোনো সাড়া দেয়নি। ইতিমধ্যে অন্য আরেকজন বিচারাধীন অম্বিকেশ মহাপাত্রর বন্ধু সুব্রত সেনগুপ্ত মারা গিয়েছেন অসুস্থতার কারণে। সুতরাং তাঁর মামলাটি উচ্চ আদালত খারিজ করে দিয়েছে।

কিন্তু অম্বিকেশ মহাপাত্রর মামলাটি এখনো পর্যন্ত চলছে। যদিও কোনো শুনানি হয়নি কলকাতার নিম্ন আদালতে। এই অবস্থায় অম্বিকেশ মহাপাত্র জানিয়ে দিয়েছেন, তিনি কোন অন্যায় করেননি এবং মামলা তুলে নেওয়ার জন্য তিনি কারো কাছে কোন ক্ষমা চাইবেননা। প্রসঙ্গত, মামলার ধারা খারিজ হয়ে যাবার পর কিভাবে মামলা এখনো বর্তমান রয়েছে, তা নিয়ে বিভিন্ন মহলে প্রশ্ন উঠছে। পাশাপাশি এর পেছনে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য কাজ করছে কিনা তা নিয়েও গুঞ্জন শুরু হয়েছে। অন্যদিকে এই ঘটনা নিয়ে এবার বড় কোনো পদক্ষেপ গৃহীত হয় কিনা সেটাই দেখার।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!