এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > গ্রাম পঞ্চায়েতে কর্মী নিয়োগ নিয়ে বড় ঘোষণা সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের ,বাড়ছে জল্পনা

গ্রাম পঞ্চায়েতে কর্মী নিয়োগ নিয়ে বড় ঘোষণা সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের ,বাড়ছে জল্পনা



রাজ্যের বিভিন্ন জেলার বিভিন্ন গ্রাম পঞ্চায়েতে প্রচুর শূন্যপদ রয়েছে। সেইসব শূন্যপদে কর্মী নিয়োগ নিয়ে এবার বড়সড় ঘোষণা করলেন পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়। শুক্রবার রায়গঞ্জে প্রশাসনিক বৈঠকের পর তিনি জানান, এবার থেকে গ্রাম পঞ্চায়েতে নিয়োগ গুলি জেলাশাসক এর নেতৃত্বে এক বিশেষ কমিটির তত্ত্বাবধানে হবে। ইতিমধ্যে অনেক জেলাতেই এইভাবে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে।

দুই দিনাজপুরেও এরপর তা হবে। শুক্রবার রায়গঞ্জ কর্ণজোড়ায়জেলা পরিষদে বিবেকানন্দ সভাকক্ষে উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার প্রশাসনিক আধিকারিক জেলা পরিষদের সভাধিপতি সহ অন্যান্য বিশিষ্ট আধিকারিকদের নিয়ে বৈঠক করেন পঞ্চায়েতমন্ত্রী। দুই জেলার কাজকর্ম দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেন তিনি। মহম্মদ ওয়ালা দপ্তরের পাইলট প্রকল্পগুলির কাজে আরও বেশি করে জোর দিতে বলেছেন আধিকারিকদের।পাশাপাশি গত বছর বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তা গুলি সংস্কারের জন্য ও প্রয়োজনীয় সেতু গুলির তালিকা দ্রুত পাঠাতে বলেছেন তিনি।

এদিন বৈঠকে উদ্যোগ-২ নামে একটি বই এবং সিডি প্রকাশ করেন পঞ্চায়েত মন্ত্রী।পাশাপাশি বৃহস্পতিবার ইসলামপুর মহকুমার কয়েকটি সেতু ও রাস্তা এবং দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার কুশমন্ডি ব্লকের চৌসা গ্রামের টাঙ্গন নদীর উপর নির্মিত সেতু এবং বংশীহারীতে নির্মিত আরেকটি সেতু পরিদর্শন করেন তিনি। এরপর মন্ত্রী বলেন,রাজ্যে যেসব সেতু তৈরি হচ্ছে সেগুলি পরিদর্শন ও পর্যবেক্ষণ করে দেখা হচ্ছে দ্রুত সেগুলি জনসাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হবে।
বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে সুব্রত বাবু বলেন,”আমরা পাইলট প্রজেক্ট গুলির উপর বেশি জোর দিয়েছি। পাশাপাশি আবাস যোজনা রাস্তা সংস্কারের কাজেও গুরুত্ব দিতে বলেছি। গতবারের বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তাগুলি সংস্কারের প্রস্তাব পাঠাতে বলেছি। সভাধিপতি নির্বাচন হয়ে গেছে এবার কাজে অনেকটাই গতি আসবে।”সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের এই বৈঠকে এ দিন উপস্থিত ছিলেন পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন দপ্তর এর রাষ্ট্রমন্ত্রী গোলাম রব্বানী, দপ্তরের প্রিন্সিপাল সেক্রেটারি অজিত বর্ধন, উত্তর দিনাজপুরের সভাপতি কবিতা বর্মন, দক্ষিণ দিনাজপুরের সভাধিপতি লিপিকা রায়, দক্ষিণ দিনাজপুরের জেলাশাসক দীপাপ প্রিয়া পি, উত্তর দিনাজপুর জেলা শাসক অরবিন্দ কুমার মিনা ইটাহারের বিধায়ক অমল আচার্য সহ আরও অনেক বিশিষ্ট জন।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এদিনের সভায় সবচেয়ে বড় বিশেষ ঘোষণা হল পঞ্চায়েত কর্মীদের নিয়োগ ক্ষেত্রে এখন থেকে আর দপ্তর সরাসরি হস্তক্ষেপ করবে না। জেলায় পঞ্চায়েতএ তাই এখন থেকে জেলার চাকরি প্রার্থীর আয় কাজ পাবে বলে আশা করছেন ওয়াকিবহাল মহল।কিন্তু বিরোধীরা অভিযোগ করছে এর ফলে শাসকদলের স্বজনপোষণ আরো বৃদ্ধি পাবে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!