এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > লোকসভায় ভরাডুবির পর পুরভোট কি করতে দেবে শাসকদল? উঠছে প্রশ্ন

লোকসভায় ভরাডুবির পর পুরভোট কি করতে দেবে শাসকদল? উঠছে প্রশ্ন



বাম আমলে নিয়ম ছিল কোনো প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের জন্য কোনো পুরসভায় সময়ে ভোট করা না গেলে, সেখানে কিছুদিনের জন্য প্রশাসক বসিয়ে কাজ চালানো যাবে। কিন্তু তৃণমূল কংগ্রেস দ্বিতীয় দফায় ক্ষমতায় এসে, কোনো কারণ ছাড়াই তা বাড়িয়ে প্রথমে ছমাস ও পরে এক বছর করে দেয়। আর তাই গত অক্টোবর মাসে ১১ টি পুরসভার মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে, প্রথমে শাসকদলের তরফে যুক্তি দেখানো হয়, উৎসবের মরশুমে সরকার ভোট চাইছে না। তাছাড়া ডিসেম্বরের মধ্যে আরও ছটি পুরসভার মেয়াদ শেষ হলে, তখন একসঙ্গে ভোট করা হবে।

এরপর ডিসেম্বরে আরও ছটি পুরসভার মেয়াদ শেষ হওয়ার পাশাপাশি চন্দননগর পুরসভা ভেঙে যায় যায় শাসকদলের অন্তর্কলহে! কিন্তু এই ১৮ টি পুরসভাতেই, যার মধ্যে হাওড়া পুর নিগমও আছে প্রশাসক বসায় শাসকদল। যুক্তি দেওয়া হয়, আর কিছুদিনের মধ্যে লোকসভা নির্বাচনের জন্য আদর্শ নির্বাচনী বিধি চালু হয়ে যাবে, ফলে থমকে যাবে উন্নয়ন। তাই, লোকসভা নির্বাচন মিটলে এই সব পুরসভায় ভোট হবে। কিন্তু, লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল সামনে আসতেই কার্যত সকলের চক্ষু চড়কগাছ!

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

কেননা, এই ১৮ টি পুরসভার মধ্যে অন্তত ১০ টি পুরসভাতে বিজেপি তৃণমূলকে বহু যোজন দূরে ফেলে দিয়েছে। তাছাড়া ২৩ শে মের পরে ওই সব পুর এলাকার শাসকদলের জনপ্রতিনিধি সহ নেতা-কর্মীরা কার্যত লাইন লাগিয়েছেন বিজেপিতে যোগদানের। ফলে, ওই সব পুরাসভাতে এই মুহূর্তে সুষ্ঠুভাবে ভোট হলে শাসকদলের ভরাডুবি কার্যত নিশ্চিত বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। এদিকে, লোকসভার ভরাডুবির পর, শাসকদল এখন প্রমানে মরিয়া যে, লোকসভাতে যা হওয়ার হয়েছে, কিন্তু বিধানসভাতে বিজেপি তৃণমূলের সঙ্গে নাকি পারবে না।

এই অবস্থায় রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, এখনই ওই ১৮ টি পুরসভায় ভোট হলে, সেখানে যদি শাসকদলের পরাজয় হয়, তাহলে বিধানসভায় কার্যত ব্যাকফুটে চলে যাবে মমতা ব্যানার্জির দল। অন্যদিকে, যদি পঞ্চায়েতের মত ‘উন্নয়ন দাঁড় করিয়ে’ নির্বাচন হয়, তার কু-প্রভাবও বিধানসভা নির্বাচনে পড়তে বাধ্য। কেননা যে যে পুর এলাকায় এর আগে ভোট হয়েছে এবং শাসকদল প্রায় বিরোধী শূন্য করে জিতেছে – যেমন বুনিয়াদপুর, রায়গঞ্জ, হলদিয়া, দুর্গাপুর, সেখানে কার্যত উপচে পড়েছে বিজেপির ভোটবাক্স। আর তাই সবমিলিয়ে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের ধারণা, পুর-পরিষেবা যতই মাথায় উঠুক, ভোটের অঙ্কেই এখন পুরভোট করবে না শাসকদল!

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!